Advertisement
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
1983 World Cup

বিসিসিআইয়ের মতো এ বার মুম্বই ক্রিকেটের সভাপতি পদেও ১৯৮৩-র বিশ্বকাপজয়ী? বাড়ছে সম্ভাবনা

সভাপতি পদে যে চার জনের মনোনয়ন জমা পড়েছে, তার মধ্যে এক জন এই ক্রিকেটার। বাকি তিন জন হলেন আশিস শেলার, অমল কালে এবং বর্তমান সচিব সঞ্জয় নায়েক। বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্যের বিরুদ্ধে স্বার্থের সঙ্ঘাতের অভিযোগ বাতিল হয়েছে।

১৯৮৩-র বিশ্বকাপজয়ী কি এ বার মুম্বই ক্রিকেটের শীর্ষপদে?

১৯৮৩-র বিশ্বকাপজয়ী কি এ বার মুম্বই ক্রিকেটের শীর্ষপদে? ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ১২ অক্টোবর ২০২২ ১৬:৪০
Share: Save:

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি পদে নির্বাচিত হতে পারেন রজার বিন্নী। ১৯৮৩-র বিশ্বজয়ী দলের আর এক সদস্য এ বার মুম্বই ক্রিকেট সংস্থাতেও সভাপতি হতে পারেন। তিনি সন্দীপ পাতিল। তাঁর বিরুদ্ধে স্বার্থের সঙ্ঘাতের যে অভিযোগ উঠেছিল তা খারিজ হয়ে গিয়েছে। গ্রহণ করা হয়েছে তাঁর মনোনয়নপত্র।

সভাপতি পদে যে চারজনের মনোনয়ন গ্রহণ করা হয়েছে, তার মধ্যে একজন পাতিল। বাকি তিনজন হলেন আশিস শেলার, অমল কালে এবং বর্তমান সচিব সঞ্জয় নায়েক। উল্লেখ্য, মঙ্গলবার নায়েকই প্রথম পাতিলের বিরুদ্ধে স্বার্থের সঙ্ঘাতের অভিযোগ করেন। তিনি জানান, মুম্বইয়ের নির্বাচন কমিটির চেয়ারম্যান সলিল আঙ্কোলার সঙ্গে পারিবারিক সম্পর্ক রয়েছে পাতিলের। কারণ, পাতিলের ছেলে বিয়ে করেছেন আঙ্কোলার মেয়েকে।

তবে নির্বাচনী আধিকারিক জেএস সাহারিয়া এই আবেদনকে পাত্তা দেননি। তিনি মঙ্গলবার রাতের দিকে পাতিলের মনোনয়নপত্র গ্রহণ করেন। শেলার যে হেতু বিসিসিআইয়ের কোষাধ্যক্ষ পদে প্রায় নিশ্চিত, তাই পাতিলের সরাসরি লড়াই হতে চলেছে কালের বিরুদ্ধে। প্রসঙ্গত, কালে যদি পাতিলকে নির্বাচনে হারিয়ে দেন, তা হলে সহ-সভাপতি পদে কোনও প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছাড়াই নির্বাচিত হবেন নবীন শেট্টি।

সঞ্জয় নায়েক সভাপতি এবং সচিব দু’টি পদেই মনোনয়ন জমা করেছেন। যে কোনও একটি পদে লড়তে পারবেন তিনি। সচিব পদে নায়েক ছাড়াও আরও আটজন লড়তে চলেছেন। কোষাধ্যক্ষ পদে লড়বেন ১০ জন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE