×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৯ জুন ২০২১ ই-পেপার

রোনাল্ডোর হ্যাটট্রিক, ফাইনালে পর্তুগাল

নিজস্ব প্রতিবেদন
০৭ জুন ২০১৯ ০৫:২৮
 নায়ক: নেশনস লিগে দেশকে জিতিয়ে উল্লাস রোনাল্ডোর। এপি

নায়ক: নেশনস লিগে দেশকে জিতিয়ে উল্লাস রোনাল্ডোর। এপি

পর্তুগালের কোচ ফের্নান্দো স্যান্টোসের কথায়, ‘‘ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো অবিশ্বাস্য প্রতিভা।’’ একধাপ এগিয়ে জাতীয় দলে রোনাল্ডোর সতীর্থ পেপে বলে দিলেন, ‘‘আমার অভিধানে রোনাল্ডোর প্রতিশব্দ একটাই— গোল করার যন্ত্র।’’ পর্তুগিজ মহাতারকাকে নিয়ে উচ্ছ্বাসের কারণ, নেশনস লিগের সেমিফাইনালে সুইৎজ়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে তাঁর হ্যাটট্রিক। রোনাল্ডোর তিনটি গোলের একটাও পড়ে পাওয়া নয়। সেইসঙ্গে তাঁর যে ফ্রি-কিকে পর্তুগাল ১-০ এগিয়ে যায়, তা দেখে বিস্ময়াভিভূত ফুটবল দুনিয়া।

পর্তুগাল জিতল ৩-১। ২৫ মিনিটে ১-০ করেন রোনাল্ডো। মাঝখানে ৫৭ মিনিটে সুইৎজ়ারল্যান্ডের রিকার্ডো রদরিগেস ভিডিয়ো প্রযুক্তির সৌজন্যে পাওয়া পেনাল্টি থেকে গোল শোধ করেন। রোনাল্ডোর দ্বিতীয় ও তৃতীয় গোল ৮৮ ও ৯০ মিনিটে। ম্যাচে রোনাল্ডো হ্যাটট্রিক করলেও ফল ১-১ অবস্থায় পর্তুগাল হঠাৎ ছন্দ হারিয়ে ফেলেছিল। তখন মনে হয়েছিল, খেলা অতিরিক্ত সময়ে গড়াবে। শেষ রক্ষা করেন রোনাল্ডোই। অসাধারণ প্লেসিংয়ে করা তাঁর দ্বিতীয় ও তৃতীয় গোল প্রায় একই জায়গা থেকে নেওয়া শটে। ২-১ করেন বের্নার্দো সিলভার সেন্টার থেকে। তবে তিনটি গোলের মধ্যে সৌন্দর্যের নিরিখে সব ক’টিকে ছাপিয়ে গিয়েছে তাঁর ফ্রি-কিকে গোল।

মোহিত পর্তুগালের কোচ স্যান্টোসের প্রতিক্রিয়া, ‘‘অতীতেও ক্রিশ্চিয়ানো প্রসঙ্গে ভাল ভাল বিশেষণ ব্যবহার করেছি। সেই ২০০৩ সালেও ওর কোচ ছিলাম (স্পোর্টিং লিসবনে)। তখনই বলতাম, ছেলেটা কতদূর যাবে নিজেও জানে না। আমরা জানি, চিত্রশিল্পীদের মধ্যে অনেকে জিনিয়াস হন। আর আমার চোখে ফুটবলের জিনিয়াস ও একাই।’’ সঙ্গে যোগ করেছেন, ‘‘যে গুরুত্বপূর্ণ একটা ম্যাচে শক্তিশালী প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে তিন গোল করে, সে যে একাই পার্থক্য গড়ে দেয়।’’

Advertisement

রাশিয়া বিশ্বকাপের পরে অনেকটা সময় রোনাল্ডো দেশের হয়ে খেলেননি। দেশের জার্সিতে মাঠে ফেরেন ইউরোয় যোগ্যতা অর্জনের টুর্নামেন্টে দু’টি ম্যাচে। নেশনস লিগেও (এ বারই শুরু হয়েছে) বুধবার প্রথম ম্যাচ খেললেন। এ বারের ইউরোয় যোগ্যতা অর্জনের ম্যাচে বিশেষ কিছু করতে না পারলেও সব খামতি পুষিয়ে দিলেন পর্তুগালকে ফাইনালে তুলে। তবে ফ্রি-কিকে এমন গোল রোনাল্ডো আগেও করেছেন। বিপক্ষ দলের প্রাচীরের মাথার উপর দিয়ে তাঁর ভাসিয়ে দেওয়া বল কোনদিকে যাবে তা বুঝতেই পারেননি সুইৎজ়ারল্যান্ডের গোলরক্ষক। প্রত্যাশিত ভাবেই ম্যান অফ দ্য ম্যাচ হয়েছেন রোনাল্ডো। পোর্তোয় রবিবার নেশনস লিগের ফাইনালে রোনাল্ডোরা খেলবেন ইংল্যান্ড ও নেদারল্যান্ডস ম্যাচের বিজয়ীর বিরুদ্ধে।

Advertisement