Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ জুন ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

জয়ের হ্যাটট্রিক, উচ্ছ্বাসে ভাসতে চান না ডিকারা

বৃহস্পতিবার রাতেই গোয়ায় নিজের বাড়িতে পুরো দলকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন ইস্টবেঙ্গলের বিনিয়োগকারী সংস্থার কর্ণধার। কিন্তু উৎসবের আবহেও নিজেদের গ

নিজস্ব সংবাদদাতা
২২ ডিসেম্বর ২০১৮ ০৪:১২
Save
Something isn't right! Please refresh.
 প্রস্তুতি: বোগমালো বিচে অনুশীলন ইস্টবেঙ্গলের। টুইটার

প্রস্তুতি: বোগমালো বিচে অনুশীলন ইস্টবেঙ্গলের। টুইটার

Popup Close

চব্বিশ ঘণ্টা আগে চার্চিল ব্রাদার্সকে হারিয়ে আই লিগের খেতাবি দৌড়ে নাটকীয় প্রত্যাবর্তন ইস্টবেঙ্গলের। অথচ আশ্চর্যরকম ভাবে উচ্ছ্বাসহীন কোচ থেকে ফুটবলারেরা।

বৃহস্পতিবার রাতেই গোয়ায় নিজের বাড়িতে পুরো দলকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন ইস্টবেঙ্গলের বিনিয়োগকারী সংস্থার কর্ণধার। কিন্তু উৎসবের আবহেও নিজেদের গুটিয়ে রেখেছিলেন ফুটবলারেরা। লাল-হলুদের নতুন তারকা জবি জাস্টিন বললেন, ‘‘আমরা আই লিগ চ্যাম্পিয়ন হইনি। লিগ টেবলে দ্বিতীয় স্থানে শুধু উঠে এসেছি। এখন উৎসবের সময় নয়। অনেক দূর যেতে হবে।’’

ইস্টবেঙ্গলের পরের ম্যাচ ২৮ ডিসেম্বর কলকাতায় রিয়াল কাশ্মীরের বিরুদ্ধে। কিন্তু শুক্রবার থেকেই প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছেন কোচ আলেসান্দ্রো মেনেন্দেস! এ দিন সকালে গোয়ার বোগমালো সমুদ্র সৈকতে ফুটবলারদের নিয়ে নেমে পড়েন তিনি। ঘণ্টাখানেক অনুশীলন করান তিনি। মূলত ফিটনেস ট্রেনিংয়ের উপরেই জোর দেওয়া হয় এ দিন। অনুশীলনের পরে চার্চিল ম্যাচের ক্লান্তি কাটাতে সমুদ্রে নামেন ফুটবলারেরা। সন্ধ্যায় কলকাতায় ফেরেন জনি আকোস্তারা। আপাতত ফুটবলারদের দু’দিন বিশ্রাম দিয়েছেন লাল-হলুদ কোচ।

Advertisement

মোহনবাগানের বিরুদ্ধে ডার্বিতে গোল খেয়ে পিছিয়ে পড়েও দুর্দান্ত ভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে ম্যাচ জিতেছিল ইস্টবেঙ্গল। চার্চিলের বিরুদ্ধেও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি।

প্রত্যাবর্তনের রহস্য কী? চার্চিলের বিরুদ্ধে ফ্রি-কিকে অসাধারণ গোল করা ডিকা বললেন, ‘‘জয় দিয়ে আই লিগ শুরু করেছিলাম আমরা। কিন্তু তার পরে টানা তিনটি ম্যাচ হেরে খেতাবি দৌড়ে পিছিয়ে পড়েছিলাম। তখনই আমরা শপথ নিয়েছিলাম ঘুরে দাঁড়ানোর।’’ তিনি যোগ করেন,‘‘ড্রেসিংরুম থেকে মাঠ— সব সময় আমরা একে অপরকে উদ্বুদ্ধ করি। বলি, কোনও ভাবেই হারা চলবে না। যে কোনও মূল্যে জিততে হবে। বৃহস্পতিবারও উইলিস প্লাজার গোলে তিন মিনিটের মধ্যে চার্চিল এগিয়ে যাওয়ার পরে সবাইকে বলেছিলাম, চলো সবাই মিলে চেষ্টা করি ঘুরে দাঁড়ানোর।’’

তবে সতীর্থ জবির মতো ডিকাও উচ্ছ্বাসে গা ভাসাতে নারাজ। তাঁর কথায়, ‘‘মাত্র আটটি ম্যাচ খেলা হয়েছে। এখনও অনেক দূর যেতে হবে। তাই উচ্ছ্বসিত হওয়ার কোনও কারণ নেই।’’

জয়ের হ্যাটট্রিকের পরেও ইস্টবেঙ্গলের স্প্যানিশ কোচ খুব একটা খুশি নন দলের খেলায়। তাঁর উদ্বেগের মূল কারণ, বল দখলের লড়াইয়ে পিছিয়ে থাকা। চার্চিল ম্যাচের পরে সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বলেছেন, ‘‘আমি চাই বলের দখল আমাদের থাকুক। কিন্তু তা হচ্ছে না। এই সমস্যা দূর করার জন্য আরও পরিশ্রম করতে হবে।’’ তিনি যোগ করেছেন, ‘‘চার্চিলের মতো শক্তিশালী দলের বিরুদ্ধে ম্যাচ সব সময়ই কঠিন। দুর্দান্ত শুরু করেছিল ওরা। আমাদের চেয়ে এগিয়ে ছিল। কিন্তু পরে আমরা দুর্দান্ত ভাবে ম্যাচে ফিরে আসি।’’

জয়ী অ্যারোজ: ঘরের মাঠে গোকুলম এফসিকে হারাল ইন্ডিয়ান অ্যারোজ। শুক্রবার কটকে বরাবাটি স্টেডিয়ামে ৬৬ মিনিটে পেনাল্টি থেকে অ্যারোজের হয়ে একমাত্র গোলটি করেন অমরজিৎ সিংহ খৈয়ম।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement