Advertisement
০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

পয়া ওয়াংখেড়েতে জয়ে ফিরতে মরিয়া ইংল্যান্ড

বিরাট কোহালিরা যখন বাইশ গজে নিজেদের আরও ধারালো করে তোলার লক্ষ্যে নতুন প্র্যাকটিসে মজে, অ্যালিস্টার কুক এবং তাঁর ইংল্যান্ডের সামনে তখন দুঃস্বপ্ন ভুলে নতুন শুরুর প্রতিজ্ঞা। গত কয়েকটা দিন যার জন্য ক্রিকেট থেকে একদম দূরে ছিলেন কুক এবং ইংরেজ ক্রিকেটাররা।

দুবাইয়ে বান্ধবীদের সঙ্গে ছুটি কাটালেন ইংরেজ ক্রিকেটাররা। ছবি: টুইটার

দুবাইয়ে বান্ধবীদের সঙ্গে ছুটি কাটালেন ইংরেজ ক্রিকেটাররা। ছবি: টুইটার

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ০৬ ডিসেম্বর ২০১৬ ০৩:৪৮
Share: Save:

বিরাট কোহালিরা যখন বাইশ গজে নিজেদের আরও ধারালো করে তোলার লক্ষ্যে নতুন প্র্যাকটিসে মজে, অ্যালিস্টার কুক এবং তাঁর ইংল্যান্ডের সামনে তখন দুঃস্বপ্ন ভুলে নতুন শুরুর প্রতিজ্ঞা।

Advertisement

গত কয়েকটা দিন যার জন্য ক্রিকেট থেকে একদম দূরে ছিলেন কুক এবং ইংরেজ ক্রিকেটাররা। স্ত্রী-বান্ধবীদের সঙ্গে দুবাইয়ে পুরোদমে ছুটি কাটিয়েছেন তাঁরা। স্টুয়ার্ট ব্রড, জো রুট, জস বাটলার, জেমস অ্যান্ডারসনদের দেখা গিয়েছে দুবাই সমুদ্রের মাঝে বিলাসবহুল নৌকোয় রৌদ্র স্নান করতে। দুবাইয়ের বিখ্যাত বুর্জ আল আরব হোটেলের সামনে সমুদ্রস্নানের পোশাকে পোজ দিচ্ছেন বাটলার। সঙ্গে বান্ধবী লুইস ওয়েবার। কখনও আবার মরুভূমির মাঝে ছবি তুলছেন বাটলার, হাতে বিয়ার নিয়ে। ছুটি কাটিয়ে সোমবার রাতে ভারতে চলে আসছে ইংল্যান্ড।

কিন্তু দুবাইয়ের বিশ্রাম ইংল্যান্ডকে কতটা সাহায্য করবে, সন্দেহ থাকছে। চতুর্থ টেস্টের কেন্দ্র ওয়াংখেড়ে তাঁদের কাছে ‘লাকি’, এই তথ্যটাও কুকদের কতটা স্বস্তি দেবে, বলা কঠিন। কারণ আর কিছুই নয়, টেস্ট সিরিজে ০-২ পিছিয়ে পড়ে দেশের মিডিয়ায় ভাল রকম তুলোধোনা হচ্ছেন কুক।

বিখ্যাত ব্রিটিশ ক্রিকেটলিখিয়ে শিল্ড বেরি যেমন সোজাসুজি বলে দিচ্ছেন, চতুর্থ টেস্টে ঘুরে না দাঁড়াতে পারলে অধিনায়কত্ব ছেড়ে দিতে হবে কুককে। সিরিজ শেষ পর্যন্ত অপেক্ষা না করে, চতুর্থ টেস্টের পরেই। বেরির দাবি, পঞ্চম টেস্টে তা হলে নেতৃত্ব দিতে পারবেন জো রুট। সমালোচনা হচ্ছে কুকের হতাশাজনক ব্যাটিং ফর্মের। কেন তিনি দুটো সহজতম ক্যাচ ফেলে দিলেন, তার ময়নাতদন্ত চলছে।

Advertisement

এই পরিস্থিতিতে অবশ্য কুকের পাশে দাঁড়াচ্ছেন রুট। তিনি বলেছেন, ‘‘কুক নিজে চায় আর কয়েকটা বছর অধিনায়কত্ব করতে। আশা করব ও সেটা করবে। কারণ আমি মনে করি কুক অসাধারণ লিডার। ওর নেতৃত্বে খেলাটা আমি উপভোগ করি।’’ তাঁর সতীর্থ জনি বেয়ারস্টো আবার বলে দিচ্ছেন, ওয়াংখেড়েতে প্রত্যাবর্তনের দিকে মুখিয়ে আছেন। পাশাপাশি দুবাইয়ে ছুটি কাটানোর যুক্তিও দিচ্ছেন তিনি।

‘‘অনেকেই ভাবছেন ০-২ পিছিয়ে থেকে কী করে আমরা ছুটি কাটাতে চলে গেলাম? আমাদের তো নেটে পড়ে থাকা উচিত। সত্যিটা হল, সেপ্টেম্বরের শেষ থেকে আমরা সফর করছি। উপমহাদেশে নিরাপত্তা ছাড়া হোটেল থেকে বেরনো খুব কঠিন। তাই সেই আবহাওয়া থেকে বেরনো খুব দরকার ছিল,’’ একটি ব্রিটিশ সংবাদপত্রে তাঁর কলামে লিখেছেন বেয়ারস্টো। সঙ্গে যোগ করেছেন, ‘‘এই বিশ্রামটার পর আমরা আরও ভাল ভাবে ক্রিকেটে ফিরতে পারব। দুটো টিমই কিন্তু সমান শক্তিশালী।’’

এই বিশ্বাসের পাশাপাশি চতুর্থ টেস্টের আগে ইংল্যান্ডকে তাতাতে পারে একটা পরিসংখ্যান। সেটা হল, ওয়াংখেড়েতে ঐতিহাসিক ভাবে তারা জিতে এসেছে। ১৯৮০-র গোল্ডেন জুবিলি টেস্টে ইয়ান বোথামের ১৩টা উইকেট এবং সেঞ্চুরি থেকে শুরু। সাতাশির বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে এ মাঠেই সুনীল গাওস্করদের হারিয়েছিল ইংল্যান্ড। তার পরেও টেস্ট, ওয়ান ডে আর টি-টোয়েন্টি— তিন ফর্ম্যাটেই ওয়াংখেড়ে অনেক সুখস্মৃতি দিয়েছে ইংল্যান্ডকে।

অবশ্য এ বার তাদের বিপক্ষের কাছে এমন একটা নাম আছে, যার সামনে ইতিহাসের থমকে গেলে সেটা খুব আশ্চর্যের হবে না। তিনি— বিরাট কোহালি!

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.