Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

মাশাকে উড়িয়ে তোপ বুশার্ডের

নিজস্ব প্রতিবেদন
১০ মে ২০১৭ ০৪:২৫
দূরত্ব: ম্যাচের পরেও চলল শারাপোভা-বুশার্ডের ব্যবধান। এএফপি

দূরত্ব: ম্যাচের পরেও চলল শারাপোভা-বুশার্ডের ব্যবধান। এএফপি

মাদ্রিদ ওপেনের দ্বিতীয় রাউন্ডে মারিয়া শারাপোভাকে হারিয়ে উঠেই বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন কানাডিয়ান টেনিস তারকা ইউজিনি বুশার্ড।

গত সপ্তাহেই শারাপোভার প্রত্যাবর্তনের সমালোচনা করে রুশ টেনিস তারকাকে ‘প্রতারক’ বলেছিলেন বুশার্ড। একই সঙ্গে শারাপোভাকে ডোপিং কাণ্ডের জন্য আজীবন নির্বাসিত না করে কেন বিভিন্ন টুর্নামেন্টে ওয়াইল্ড কার্ড দিয়ে প্রত্যাবর্তনের রাস্তা মসৃণ ভাবে তৈরি করে দেওয়া হচ্ছে তা নিয়ে প্রশ্নও তুলেছিলেন তিনি। সোমবার রাতে শারাপোভাকে তিন ঘণ্টার লড়াইয়ের পর ৭-৫, ২-৬, ৬-৪ সেটে হারিয়ে ফের সেই প্রসঙ্গ তুলে বুশার্ড বলেন, মহিলাদের টেনিস সার্কিটে অনেকেই তাঁকে এ ব্যাপারে সমর্থন করলেও প্রকাশ্যে মুখ খুলছেন না ভয়ে।

বুশার্ড বলেন, ‘‘কোর্টে অবশ্যই কিছু অতিরিক্ত মোটিভেশন ছিল। ম্যাচ শুরুর আগে অনেক খেলোয়াড় এসে জেতার জন্য ব্যক্তিগত ভাবে আমাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন। এমনকী অনেক খেলোয়াড় যাদের সঙ্গে সচরাচর কথা বলি না তাঁরাও শুভেচ্ছা বার্তা পাঠিয়েছেন। তাই নিজের পাশাপাশি ওদের জন্যও জিততে নেমেছিলাম।’’ এখানেই না থেমে বুশার্ড আরও বলেন, ‘‘তার মানে বেশির ভাগ খেলোয়াড়ই কিন্তু আমাকে সমর্থন করছেন। যদিও এ নিয়ে প্রকাশ্যে কথা বলতে ভয় পাচ্ছেন তাঁরা।’’

Advertisement

আন্তর্জাতিক টেনিস সার্কিটে এই ম্যাচের আগে শারাপোভার বিরুদ্ধে চার বার মুখোমুখি হয়ে প্রত্যেক বারই হেরেছিলেন বুশার্ড। এ দিন প্রথম বার শারাপোভাকে হারিয়ে ‘শীতল’ করমর্দনও করতে দেখা যায় তাঁকে। যা নিয়ে সাংবাদিক সম্মেলনে প্রশ্ন করলে সেখানেও প্রতিদ্বন্দ্বীকে মৃদু কটাক্ষ করতে ছাড়েননি তিনি। বলেন, ‘‘ও আমাকে ম্যাচ শেষে হাত মিলিয়ে বলল ‘ওয়েল প্লেড’। তবে শারাপোভা আজ ওর তথাকথিত প্রত্যাবর্তনের পর ভালই খেলল।’’

শারাপোভা যদিও বুশার্ডের এই সব মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে কড়া কোনও প্রতিক্রিয়া না দিলেও বলেন, ‘‘আন্তর্জাতিক টেনিসের সঙ্গে দীর্ঘ দিন জড়িয়ে রয়েছি। জানি, এগুলো সব খেলারই অঙ্গ। এখানে উত্তেজনা, ঈর্ষা, ব্যঙ্গ, শত্রুতা থাকবেই। আর সেগুলো নিয়েই চলতে হবে।’’

শারাপোভা সঙ্গে এটাও জানিয়ে দিতে ভোলেননি যে বুশার্ডের কাছে হেরে তিনি মোটেও হতাশ নন। ফের মহিলাদের সার্কিটে শীর্ষে পৌঁছাতে পারবেন বলে নিজের প্রতি বিশ্বাস রয়েছে তাঁর। শারাপোভার কথায়, ‘‘আজ ম্যাচটা হেরে যদি হাসিমুখে বলতাম আমি খুশি তা হলেই চিন্তিত হওয়ার ব্যাপার ছিল। কার বিরুদ্ধে খেলে কোন রাউন্ডে হারলাম সেটা ভাবছি না। এটাই বুঝতে চাই, প্রতিদিনের পরিশ্রমই আমাকে জয়ের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। আজ সেই দিনটা ছিল না। সে কারণেই হতাশ লাগছে। এই তাগিদটাই আমাকে টুর্নামেন্ট বা ম্যাচ জেতার দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।’’

ফের ওয়াইল্ড কার্ড শারাপোভার: তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বীরা যা-ই বলুন না কেন, উইম্বলডনের আগে ফের ওয়াইল্ড কার্ড পাচ্ছেন মারিয়া শারাপোভা। এ বার ইংল্যান্ডের লন টেনিস অ্যাসোসিয়েশনের সৌজন্যে। যার ফলে আগামী মাসে বার্মিংহ্যামে ঘাসের কোর্টে অনুষ্ঠিত হতে চলা এইগন ক্ল্যাসিক টুর্নামেন্টে ওয়াইল্ড কার্ড নিয়ে খেলতে দেখা যাবে এই রুশ টেনিস তারকাকে। ১৭-২৫ জুন এজবাস্টনে হবে এই টুর্নামেন্ট। তার পরেই ৩ জুলাই থেকে শুরু হবে উইম্বলডন। নির্বাসন কাটিয়ে কোর্টে ফেরার পর এই মুহূর্তে শারাপোভার র‌্যাঙ্কিং ২৫৮। তাই এই টুর্নামেন্টে সরাসরি খেলতে পারবেন না তিনি। শেষ এই টুর্নামেন্টে শারাপোভা জিতেছিলেন ২০০৫ সালে।

আরও পড়ুন

Advertisement