×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১২ মে ২০২১ ই-পেপার

রেকর্ডের কথা জানতেনই না ৯ সেকেন্ডে আইলিগের দ্রুততম গোল করা কোমরন

জাগৃক দে
কলকাতা ১০ জানুয়ারি ২০২১ ২১:৫২
গোল করার মুহূর্তে কোমরন। ছবি-এআইএফএফ।

গোল করার মুহূর্তে কোমরন। ছবি-এআইএফএফ।

চেনা মাঠ, চেনা পরিবেশ। শুধু মাঠে দর্শকরাই নেই। কিন্তু তাতে কী? মোহনবাগান মাঠে ভারতীয় ফুটবলের ইতিহাসে দ্রুততম গোলের নজির গড়ে ফেললেন কোমরন তুর্শনভ। ট্রাউ এফসি-র হয়ে রিয়াল কাশ্মীরের বিরুদ্ধে মাত্র ১০ সেকেন্ডে গোল পেলেন তিনি। তবে, তিনি যে নজির গড়ে ফেলেছেন, তা তাঁর জানাই ছিল না। আনন্দবাজার ডিজিটালকে তিনি জানালেন, ‘‘ইতিহাস গড়তে পেরে আমি দারুণ খুশি। এটা মোহনবাগান মাঠে করতে পেরে আমি আরও খুশি। এই মাঠ আমায় অনেক কিছু দিয়েছে।’’ এরপর মজা করেই বললেন, ‘‘আমি চাইব আমাদের সব ম্যাচই যেন এখানেই খেলা হয়। এতদিন মোহনবাগান মাঠ আমি খুব মিস করছিলাম।’’


গত মরশুমে মোহনবাগানে খেলা এই বিদেশির গোল নিয়ে উচ্ছসিত সবুজ-মেরুন সমর্থকরাও। তাই অনেক মেসেজ, ফোন কল পাচ্ছেন কোমরন। এর আগেও মোহনবাগানের ২৩ পাসের গোলটা এসেছিল তাঁর পা থেকেই। এই গোলের ভিডিও ফিফা চেয়ে পাঠিয়েছিল এআইএফএফের কাছে। সেই গোলের প্রসঙ্গ আসতেই আবেগপ্রবণ হয়ে তিনি বলেন, ‘‘আমরা পেশাদার ফুটবলার। প্রত্যেক মরশুমে এক দলে খেলা সম্ভব হয় না। চার্চিলের বিরুদ্ধে করা গোলটার সময় আমার সতীর্থ ছিল জোসেবা বেইতিয়া, ফ্রান গঞ্জালেজ, ভি পি সুহের, শেখ সাহিল, আশুতোষ মেহতা, শুভ ঘোষরা। এখন আমার সতীর্থ ফাল্গুনী, জোসেফ, ভিকিরা। ভাল লাগছে মোহনবাগান সমর্থকরা আমায় মেসেজ করায়। অনেকে ফোনও করছেন। অভিনন্দন জানাচ্ছেন। খুব ভাল লাগছে।’’


তাঁর এই গোল শুধু তাঁকে নয়, আত্মবিশ্বাস জুগিয়েছে গোটা দলকে। তবে তিন পয়েন্ট না পেয়ে আক্ষেপ ঝরে পড়ল তাঁর গলায়। তিনি বলেন, ‘‘এভাবেই গোটা মরশুম খেলতে চাই, গোল করতে চাই। রিয়াল কাশ্মীর শক্ত প্রতিপক্ষ। এর আগে ওরা আইএফএ শিল্ড চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। তিন পয়েন্ট পেলে ভাল হত। প্রথম ম্যাচ কঠিন হয়। কিন্তু, আমরা দুই পয়েন্ট মাঠে ফেলে এলাম। এটাই খারাপ লাগছে।’’

Advertisement
Advertisement