Advertisement
২২ মে ২০২৪
ISL

ISL: দুর্ভেদ্য রক্ষণ চান দুই প্রধানের স্পেনীয় গুরু

গত বছর মাঝমাঠ থেকে বলের জোগান পর্যাপ্ত থাকত না সবুজ-মেরুন শিবিরের গোলমেশিন রয় কৃষ্ণের জন্য।

ভরসা: বিপক্ষের আক্রমণ ভাঙাই লক্ষ্য শুভাশিস ও আমিরের।

ভরসা: বিপক্ষের আক্রমণ ভাঙাই লক্ষ্য শুভাশিস ও আমিরের। ছবি: টুইটার।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৭ নভেম্বর ২০২১ ০৬:৩০
Share: Save:

বাহাত্তর ঘণ্টা পরেই শুরু হবে ইন্ডিয়ান সুপার লিগের দ্বৈরথ। তার আগে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি চলছে কলকাতার দুই বড় দল এটিকে-মোহনবাগান এবং এসসি ইস্টবেঙ্গলের। মহড়ায় মগ্ন গত বারের চ্যাম্পিয়ন মুম্বই সিটি এফসিও।

এটিকে-মোহনবাগানের তরফে মঙ্গলবার গোয়ায় দলের অনুশীলন এবং সেই ব্যাপারে কোচের মন্তব্য-সহ যে ভিডিয়ো প্রকাশ করা হয়েছে, সেখানে দলের কোচ আন্তানিয়ো লোপেস হাবাসকে প্রস্তুতি নিয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করতেই দেখা গিয়েছে। স্পেনীয় কোচকে প্রশ্ন করা হয়েছিল দর্শকবিহীন আইএসএলে এ বারও খেলতে কেমন লাগবে। যা শুনে হাবাস বলেছেন, ‍‘‍‘এতে মানসিক ভাবে ফুটবলারদের মনে খানিকটা প্রভাব পড়লেও কিছু করার নেই। আমাদের এ বারও এগিয়ে যেতে হবে।’’ যোগ করেছেন, ‍‘‍‘দলের প্রস্তুতিতে আমি খুশি। এ বার এগিয়ে যাওয়ার পালা।’’

গত বছর মাঝমাঠ থেকে বলের জোগান পর্যাপ্ত থাকত না সবুজ-মেরুন শিবিরের গোলমেশিন রয় কৃষ্ণের জন্য। কিন্তু জনি কাউকো, হুগো বুমোসেরা চলে আসায় সেই সমস্যা মিটবে বলে আশাবাদী এটিকে-মোহনবাগান। পাশাপাশি কৃষ্ণের সঙ্গে মনবীর সিংহ ও লিস্টন কোলাসোর মতোও দুই ভারতীয় ফুটবলারও ছন্দে রয়েছেন। তাই গোল করা নিয়ে হাবাস বেশি চিন্তিত নন। বরং এটিকে-মোহনবাগানের কোচ বেশি ভাবছেন তাঁর দলের রক্ষণ সংগঠন নিয়ে। কারণ শেষ যে প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে প্রীতম কোটালরা খেলেছিলেন, সেই এএফসি কাপের আন্তঃআঞ্চলিক সেমিফাইনালে আল নাসাফের বিরুদ্ধে ০-৬ হেরেছিল হাবাসের প্রশিক্ষণাধীন দল। সেই স্মৃতি যাতে কারও মনে না থাকে, তার জন্য কোচ অনুশীলনে কথা বলছেন প্রীতম কোটাল, শুভাশিস বসু, তিরিদের সঙ্গে। একই সঙ্গে মাঝমাঠে কার্ল ম্যাকহিউ এবং লেনি রদ্রিগেসদের সঙ্গেও রক্ষণ নিশ্ছিদ্র করার জন্য শেষ মুহূর্তের পরিকল্পনা সাজাচ্ছেন হাবাস। উদ্দেশ্য শুক্রবার কেরল ব্লাস্টার্সের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচে জয় নিয়ে মাথা উঁচু করে মাঠ ছাড়া।

সবুজ-মেরুনে যখন এই পরিকল্পনা, তখন লাল-হলুদ শিবিরে এ দিন অনুশীলন ছুটি দিয়েছিলেন দলের স্পেনীয় কোচ ম্যানুয়েল মানলো দিয়াস। বুধবার থেকে চূড়ান্ত পর্যায়ের প্রস্তুতি শুরু হবে প্রথম ম্যাচের জন্য। রবিবার, ২১ নভেম্বর প্রথম ম্যাচে মহম্মদ রফিকেরা খেলবেন জামশেদপুর এফসি-র বিরুদ্ধে। যারা এ বারের লিগে অন্যতম ভারসাম্য যুক্ত শক্তিশালী দল। পিটার হার্টলে, এলি সাবিয়ার মতো বড় চেহারার বিদেশিদের সঙ্গে রয়েছেন নেরিয়ুস ভাল্সকিস। লিথুয়ানিয়ার এই দীর্ঘদেহী স্ট্রাইকার সামান্য সুযোগ পেলেই গোল করে যান। ২০১৯-২০ মরসুমে চেন্নাইয়িনের জার্সি গায়ে ২০ ম্যাচে ১৫টি গোল করেছিলেন ও ৬টি গোল করিয়েছিলেন। গত বছরেও ১৮ ম্যাচে ৮ গোল রয়েছে ভাল্সকিসের। তাই প্রথম ম্যাচে শক্তিশালী চেহারার এই বিদেশিকে বোতলবন্দি করার জন্য আমির দার্ভিসেভিচের মতো এসসি ইস্টবেঙ্গলের দীর্ঘদেহী ফুটবলারদের তৈরি রাখছেন মানলো। মঙ্গলবার দলের ছুটি থাকলেও বিপক্ষকে নিয়ে ক্লাস, ভিডিয়ো দেখা, গত বছরের ম্যাচ দেখেছেন মহম্মদ রফিক, ড্যানিয়েল চিমারা।

এ দিকে গত বছরের চ্যাম্পিয়ন মুম্বই সিটি এফসি তাদের প্রথম ম্যাচে খেলবে ২২ নভেম্বর এফসি গোয়ার বিরুদ্ধে। মুম্বইয়ের নতুন কোচ দেস বাকিংহাম বলেছেন, ‍‘‍‘‍ আক্রমণাত্মক ফুটবল আমার পছন্দের। সেই ঘরানাতেই খেলবে মুম্বই।’’ তিনটি প্রস্তুতি ম্যাচে হায়দরাবাদ এফসিকে ২-১ হারালেও ওড়িশা এফসি ও এসসি ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে ম্যাচ অমীমাংসিত ছিল মুম্বইয়ের।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

ISL SC East Bengal ATK Mohun Bagan
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE