Advertisement
৩১ জানুয়ারি ২০২৩
Igor Stimac

Igor Stimac: লিস্টন-উদান্ত-রাহুলের ছিটকে যাওয়ায় হার, বলছেন হতাশ ইগর

জর্ডনের বিরুদ্ধে ম্যাচের শুরু থেকেই ভারতীয় দলের লক্ষ্য ছিল রক্ষণ মজবুত করে নিজেদের মধ্যে ছোট-ছোট পাসে খেলা।

ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ৩০ মে ২০২২ ০৭:১২
Share: Save:

ফিফা ক্রমতালিকায় জর্ডন ৯১তম স্থানে। ভারত ১০৬ নম্বরে। শনিবার দোহায় আন্তর্জাতিক ফিফা ফ্রেন্ডলিতে ১৫ ধাপ এগিয়ে থাকা শক্তিশালী প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে ৭৬ মিনিট পর্যন্ত গোলশূন্য রেখেও শেষরক্ষা হয়নি। ০-২ হেরে মাঠ ছাড়ে ভারতীয় দল।

Advertisement

জর্ডনের বিরুদ্ধে ম্যাচের শুরু থেকেই ভারতীয় দলের লক্ষ্য ছিল রক্ষণ মজবুত করে নিজেদের মধ্যে ছোট-ছোট পাসে খেলা। কারণ, জর্ডনের খেলার ধরনই হল লম্বা পাসে খেলে দ্রুত আক্রমণ করা। সুনীল, সন্দেশ জিঙ্ঘন, প্রীতম কোটাল, গ্লেন মার্টিন্সদের জন্য পরিকল্পনা অনেকটাই ভেস্তে যায় বিপক্ষের ফুটবলারদের। বেশ কয়েকটি গোলের সুযোগও পেয়েছিলেন সুনীল ছেত্রীরা। কিন্তু তা কাজে লাগাতে পারেননি। প্রথমার্ধ শেষ হয় গোলশূন্য ভাবে। দ্বিতীয়ার্ধে দু’বার এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছিল ভারতীয় দল। মহম্মদ ইয়াসিরের ফ্রি-কিক অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। কয়েক মিনিট পরে সন্দেশের হেডও ক্রসবারের উপর দিয়ে উড়ে যায়। কিন্ত ৭৬ মিনিটে পরিবর্ত হিসেবে নামা আবু আমারা জর্ডনকে ১-০ এগিয়ে দেন। সংযুক্ত সময়ে (৯০+৪ মিনিট) ২-০ করেন মহম্মদ আবু।

৭৬ মিনিট পর্যন্ত লড়াই করেও কেন শেষরক্ষা হল না? ইগরের মতে চোট পেয়ে লিস্টন কোলাসো, উদান্ত সিংহ ও রাহুল ভেকে দল থেকে ছিটকে না গেলে ফল অন্যরকম হত। শুধু তাই নয়। ভারতীয় দলের কোচের পর্যবেক্ষণ, শুরুতেই গোল করে এগিয়ে গেলে ছবিটা বদলে যেত। ঘনিষ্ঠ মহলে হতাশ ইগর বলেছেন, ‘‘জর্ডনের মতো শক্তিশালী দলের বিরুদ্ধে দারুণ খেলেছে ছেলেরা। লিস্টন, উদান্ত, রাহুল খেললে ম্যাচের ফল হয়তো অন্যরকম হত। এই তিন জনকে দ্রুত সুস্থ করে তোলাই প্রধান লক্ষ্য।’’

ইগর খুশি শারীরিক ভাবে শক্তিশালী জর্ডনের ফুটবলারদের সঙ্গে যে ভাবে লড়াই করেছেন আশিক কুরুনিয়নরা, তা নিয়েও। সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের ওয়েবসাইটে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ‘‘শুরুতে গোল করতে না পারায় আমরা দুঃখিত। ছেলেরা যে ভাবে ৯০ মিনিট পর্যন্ত লড়াই করেছে তাতে আমি মুগ্ধ।’’ ৩১ মে সকালে দোহা থেকে কলকাতায় ফিরে প্রস্তুতি নেওয়ার কথা ভারতীয় দলে।

Advertisement

এএফসি এশিয়ান কাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বে যাত্রা শুরু করার আগে শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে হারের ফলে ভারতের ফুটবলপ্রেমীদের অনেকেই হতাশ। কিন্তু জাতীয় কোচ স্তিমাচ আত্মবিশ্বাসী আগামী বছর এশিয়ান কাপের মূল পর্বে যোগ্যতা অর্জন করার ব্যাপারে। যুবভারতীতে আগামী ৮ জুন ভারতের প্রথম ম্যাচ কাম্বোডিয়ার বিরুদ্ধে। দ্বিতীয় ম্যাচ আফগানিস্তানের সঙ্গে ১১ জুন। হংকংয়ের বিরুদ্ধে শেষ ম্যাচ ভারতীয় দল খেলবে ১৪ জুন।

সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তেফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ

Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.