Advertisement
০৩ মার্চ ২০২৪

ভারতীয় ক্রিকেটে ‘লাকি ক্যাপ্টেন’ হিসেবে চিহ্নিত হয়ে থাকবেন অজিত ওয়াড়েকর

বুধবার ভারতের ৭২তম স্বাধীনতা দিবসের দিনে প্রয়াত হলেন সেই অজিত লক্ষ্মণ ওয়াড়েকর। দীর্ঘদিন ধরেই দুরারোগ্য অসুখে ভুগছিলেন তিনি। এ দিন মুম্বইয়ের যশলোক হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর।

অজিত লক্ষ্মণ ওয়াড়েকর।ফাইল চিত্র।

অজিত লক্ষ্মণ ওয়াড়েকর।ফাইল চিত্র।

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ১৬ অগস্ট ২০১৮ ০২:৫০
Share: Save:

ভারতীয় ক্রিকেটের পয়া অধিনায়ক বলা হয় তাঁকে। ১৯৭১ সালে সুনীল গাওস্করের অভিষেক সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজে গিয়ে ভারতের ঐতিহাসিক সিরিজ জয় তাঁরই নেতৃত্বে। শুধু ওয়েস্ট ইন্ডিজ নয়। ইংল্যান্ড থেকেও ভারতের প্রথম টেস্ট সিরিজ জয় তাঁর নেতৃত্বেই। একদিনের ক্রিকেটে ভারতের প্রথম অধিনায়ক তিনিই।

বুধবার ভারতের ৭২তম স্বাধীনতা দিবসের দিনে প্রয়াত হলেন সেই অজিত লক্ষ্মণ ওয়াড়েকর। দীর্ঘদিন ধরেই দুরারোগ্য অসুখে ভুগছিলেন তিনি। এ দিন মুম্বইয়ের যশলোক হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর।

জন্ম ১৯৪১ সালের ১ এপ্রিল মুম্বইয়ে। ছোটবেলায় বাবা অঙ্কে পারদর্শী হয়ে ছেলে বড় ইঞ্জিনিয়ার হোক। কিন্তু মানুষ ভাবে এক, হয় আর এক। ছোট থেকেই খেলাধুলোয় মন ওয়াড়েকরের। ক্লাসরুমের বদলে তাই খেলার মাঠেই তাই সাফল্য আসতে শুরু করে স্কুলজীবন থেকেই। বাধ্য হয়েই তাঁর বাবা অজিতকে আর খেলাধূলায় বাধা দেননি। ১৯৫৮-৫৯ সালে তৎকালীন বোম্বাইয়ের হয়ে রঞ্জি ট্রফিতে অভিষেক হয় ওয়াড়েকরের। এর ঠিক আট বছর পরেই ১৯৬৬ সালের ডিসেম্বরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ভারত সফরে জাতীয় দলের অন্তর্ভুক্ত হন তিনি। ঘরের মাঠ ব্রেবোর্ন স্টেডিয়ামেই টেস্ট অভিষেক হয়েছিল তাঁর। ভারতীয় দলে নিজের জায়গা স্থায়ী করার পরে তিন নম্বরেই ব্যাট করতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। স্লিপ ফিল্ডার হিসেবেও তিনি ছিলেন দুর্দান্ত।

জাতীয় দলের সদস্য হওয়ার কয়েক বছরের মধ্যেই বোম্বাইয়ের অধিনায়ক নির্বাচিত হন প্রথমে। ক্রিকেটার হিসেবে ভারতের হয়ে ৩৭ টেস্টে ২,১১৩ রান করেছেন ওয়াড়েকর। টেস্টে তাঁর সর্বোচ্চ রান ১৪৩। একদিনের ক্রিকেটে মাত্র দু’টি ম্যাচ খেলে তিনি করেন ৭৩ রান। সর্বোচ্চ অপরাজিত ৬৭।

ওভাল টেস্টে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে মারমুখী মেজাজে অধিনায়ক অজিত। ফাইল চিত্র

কিন্তু পরিসংখ্যানের বাইরেও অজিত ওয়াড়েকর ভারতীয় ক্রিকেটে চিহ্নিত হয়ে থাকবেন ‘লাকি ক্যাপ্টেন’ হিসেবে। ১৯৭১ সালে ভারতের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে তিনিই দলের নেতা নির্বাচিত হন। যে দলে ছিলেন সুনীল গাওস্কর, গুন্ডাপ্পা বিশ্বনাথ, ফারুক ইঞ্জিনিয়ার, বিষাণ সিংহ বেদীরা। সে বার ওয়েস্ট ইন্ডিজে সিরিজ জিতে ইতিহাস তৈরি করেছিল ভারত। বিদেশে সেটাই ভারতের প্রথম টেস্ট সিরিজ জয়। এর পরেই ইংল্যান্ড সফরে গিয়েও তাঁর নেতৃত্বে সিরিজ জিতে ফেরে ভারত।

স্মৃতি: সেই ঐতিহাসিক মুহূর্ত। ইংল্যান্ডে প্রথম টেস্ট সিরিজ জিতে দর্শকদের অভিবাদন চন্দ্রশেখর ও ওয়াড়েকরের।

১৯৭৪ সালে ভারতের ইংল্যান্ড সফরেও দলের অধিনায়ক হন তিনি। কিন্তু সেই সিরিজ হারের পরে সব ধরনের ক্রিকেট থেকেই অবসর নিয়ে ফেলেন ওয়াড়েকর। ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার পরে নির্বাচক প্রধান ও ভারতীয় দলের কোচ হিসেবেও দায়িত্ব সামলেছেন তিনি। ভারতীয় ক্রিকেটে যে কৃতিত্ব লালা অমরনাথ ও চাঁদু বোরদে ছাড়া আর কারও নেই। নব্বইয়ের দশকে মহম্মদ আজহারউদ্দিন ও অজিত ওয়াড়েকরের অধিনায়ক-কোচ জুটি বহু টেস্টে জয় এনে দিয়েছিল ভারতকে।

আরও পড়ুন: মরিয়া ক্রোমাকে নিয়ে চিন্তায় শঙ্কর

কিংবদন্তি এই ক্রিকেটারের মৃত্যুর খবর জানা যেতেই এ দিন শোকের ছায়া নেমে আসে গোটা দেশে। শোক প্রকাশ করেছেন বিষাণ সিংহ বেদী, মদন লাল, ইরফান পাঠান, সুরেশ রায়না, দীপ দাশগুপ্ত-সহ প্রাক্তন ক্রিকেটাররা। শোক ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ।

আরও পড়ুন: কাতার বিশ্বকাপ স্টেডিয়ামে কাজ করতে গিয়ে শ্রমিকের মৃত্যু

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE