Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৮ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

মেরিকে হারানো কঠিন, মানছেন প্রতিদ্বন্দ্বী হানা

নিজস্ব প্রতিবেদন
২৪ নভেম্বর ২০১৮ ০৩:১৩
লড়াই: বক্সিং বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপে আজ ফাইনাল মেরির। টুইটার, ফাইল চিত্র

লড়াই: বক্সিং বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপে আজ ফাইনাল মেরির। টুইটার, ফাইল চিত্র

মেরি কমের ষষ্ঠ সোনা তা হলে কি নিশ্চিত ভাবেই আসছে? শনিবার বিশ্ব বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপে ৪৮ কেজির ফাইনালে ‘ম্যাগনিফিসেন্ট’ মেরির শেষ প্রতিপক্ষ ইউক্রেনের হানা ওখোতা নিজেই অঘটনের সম্ভাবনা দেখছেন না! তাঁর সাফ কথা, ভারতে পঁয়ত্রিশে পা দেওয়া মণিপুরি বক্সারের জনপ্রিয়তার কাছেই তাঁকে হয়তো হার মানতে হবে।

তিন মাস আগে এই হানার সঙ্গেই লড়েছিলেন মেরি। পোলান্ডের এক প্রতিযোগিতায়। সে বারই প্রথম রিংয়ে দু’জন মুখোমুখি হন। পোলান্ডে কিন্তু হানা কার্যত দাঁড়াতেই পারেননি। এ বার দিল্লিতেও কি তারই পুনরাবৃত্তি হতে যাচ্ছে? সংবাদমাধ্যমকে হানা ওখোতার জবাব, ‘‘ফাইনালে লড়াইটা সত্যিই খুব কঠিন। মেরি দারুণ অভিজ্ঞ এক বক্সার। এবং ভারতের মহাতারকা। দেখেছি এ দেশে ভক্তেরা কী ভাবে ওকে সমর্থন করে। তাই ওদের সামনে মেরিকে হারানো মোটেই সহজ নয়।’’

তিন মাস আগে পোলান্ডে সেমিফাইনালে সেই হারের কথাও ভোলেননি ওখোতা। বলেছেন, ‘‘বক্সিংটাও তো খেলা। একজন জিতবেই। পোলান্ডে সে দিনটা মেরির ছিল।’’ অলম্পিক্স পদকজয়ীর বিরুদ্ধে তাঁর পরিকল্পনা অবশ্য ভাঙেননি ইউক্রেনের বক্সার। শুধু বলেছেন, ‘‘হ্যাঁ, নিশ্চয়ই আমার নিজস্ব একটা রণনীতি থাকবে। শনিবার সেই কৌশলই কাজে লাগানোর চেষ্টা করব। আশা করি ফাইনালে আমাদের লড়াইটা জমে যাবে। উত্তেজনার অনেক মশলাও থাকবে।’’ মেরি নিজে কী বলছেন? প্রতিপক্ষকে প্রচণ্ড সমীহ করেও ভারতের সর্বকালের সেরা বক্সার শোনাচ্ছেন আশার কথা। বৃহস্পতিবার সেমিফাইনালে উত্তর কোরিয়া কিম হায়াং মি-কে হারিয়ে উঠে তিনি বলে দেন, ‘‘ওকে তো পোলান্ডে হারিয়েছি। আশা করছি এ বারও জিতব।’’

Advertisement

মেরি কম বিশ্ব বক্সিং চ্যাম্পিয়শিপ থেকে নিজের শেষ এবং পঞ্চম সোনাটি জিতেছিলেন ২০১০ সালে। এত দিন পরে আবার তিনি সোনার দাবিদার! সেমিফাইনালে তাঁর কাছে পরাজিত কিমও মনে করছেন, ওখোতার বিরুদ্ধে মেরিই এগিয়ে থাকবেন, ‘‘মেরিকে প্রচণ্ড শ্রদ্ধা করি। তিন সন্তানের মা হয়েও রিংয়ে আজও দাপট দেখাচ্ছে! ওর জন্য শুভেচ্ছা। নিশ্চয়ই সোনাটা মেরির গলাতেই উঠবে।’’ এত কিছু বলার পরেও কিম অবশ্য জানিয়েছেন, সেমিফাইনালে তিনি বিচারকদের কাছ থেকে সুবিচার পাননি, ‘‘জিতেছিলাম আমিই। কিন্তু বিচারকদের সিদ্ধান্তকে মেনে নেওয়া ছাড়া উপায় নেই। তবে মেরির বিরুদ্ধে লড়তে পারা মানে অনেক কিছু শেখা। আশা করি, পরের বার এই শিক্ষাটা কাজে লাগিয়ে একজন সত্যিকারের চ্যাম্পিয়ন হয়েই রিংয়ে ফিরব।’’

আরও পড়ুন

Advertisement