Advertisement
২৮ নভেম্বর ২০২২
ময়দানে মেদিনীপুর

দাসপুরের মাঠে ফুটি খেলা দেখতে ভিড়

অস্ট্রেলিয়ায় জাতীয় খেলা ফুটি আয়োজিত হয় মূলত শীতকালে। বছরের আটমাস ধরেই তা খেলা হয়। বাকি চার মাস হয় ক্রিকেট-সহ অন্যান্য খেলা। ফলে বৃষ্টির মধ্যে খেলার তেমন অভিজ্ঞতা নেই অস্ট্রেলীয় ফুটি খেলোয়াড়দের।

দাসপুরের কলোড়াতে ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার ফুটি খেলা। ছবি: কৌশিক সাঁতরা

দাসপুরের কলোড়াতে ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার ফুটি খেলা। ছবি: কৌশিক সাঁতরা

নিজস্ব সংবাদদাতা
ঘাটাল শেষ আপডেট: ২৩ জুলাই ২০১৭ ১২:৫০
Share: Save:

সুদূর অস্ট্রেলিয়া থেকে এসে দাসপুরকে মাতিয়ে দিলেন ফুটি খেলোয়াড়েরা।

Advertisement

শনিবার সকালে অস্ট্রেলিয়ীয় ফুটি টিম যখন বাস থেকে নামছে, তখন মুষলধারে বৃষ্টি। উদ্যোক্তাদের কপালে চিন্তার ভাঁজ। তবে মাঠ ভর্তি দশর্কদের আতিথেয়তা ও আগ্রহ ততক্ষণে মন জয় করে নিয়েছে অস্ট্রেলীয়দের। বেলা গড়াতে বৃষ্টি কমে। ফলে দুপুর আড়াইটের সময়ে শুরু হল খেলা। কলোড়া মাঠে ফুটি খেলা দেখতে গোটা ঘাটাল মহকুমা থেকেই কয়েক হাজার দর্শক এসেছিলেন। ভিড়ের মধ্যে মহিলাদের সংখ্যা ছিল লক্ষণীয়। ১ বছরের শিশুকে কোলে নিয়ে খেলা দেখতে এসেছিলেন কলমিজোড়ের মালতি পাল। তাঁর কথায়, “সবাই সকাল সকাল রান্নার কাজ সেরে ফেলেছি। ফুটি খেলা তো কখনও দেখিনি। তাই বৃষ্টিকে মাথায় করেই চলে এসেছি।”

অস্ট্রেলিয়ায় জাতীয় খেলা ফুটি আয়োজিত হয় মূলত শীতকালে। বছরের আটমাস ধরেই তা খেলা হয়। বাকি চার মাস হয় ক্রিকেট-সহ অন্যান্য খেলা। ফলে বৃষ্টির মধ্যে খেলার তেমন অভিজ্ঞতা নেই অস্ট্রেলীয় ফুটি খেলোয়াড়দের। উদ্যোক্তাদের পক্ষে শ্যামপদ পাত্র, সুকুমার পাত্ররা জানিয়েছেন, এটা যেহতু প্রদর্শনী ম্যাচ ছিল, কাজেই বৃষ্টিভেজা মাঠে খেলতে রাজি না-ও হতে পারত অস্ট্রেলিয়া দল। তবে দেশের মধ্যে প্রথম বার এত বড় মাপের ম্যাচ সার্থক ভাবে আয়োজন করতে পেরে তাঁরা দৃশ্যতই খুশি।

ম্যাচে জয়ী হয় অস্ট্রেলিয়া। তাদের সংগ্রহে ৯৮ পয়েন্ট, ভারতের ৩১ পয়েন্ট। তবে সেই প্রতিযোগিতা ছাপিয়ে এ দিন দু’দলের মধ্যে তৈরি হয়েছে সৌহার্দ্যের সম্পর্ক। অস্ট্রেলিয়ার ‘মাস্টার টিম’-এর অধিনায়ক মার্ক ওয়ার্ডলি বলেন, “ভিজে মাঠে বল বাউন্স হয় না। তা ছাড়া লাফাতে ও ছুটতে সমস্যা হয়। কিন্তু এখানকার দশর্কদের আন্তরিকতা দেখেই আমরা মাঠে নেমে পড়েছিলাম।” ভারতীয়দের বিরুদ্ধে ম্যাচটা তো উপভোগ করেছেনই, পাশাপাশি সুযোগ পেলে ফের এখানে খেলতে আসবেন বলেও জানিয়েছেন পল-এডওয়ার্ডরা। ভারতীয় ফুটি দলের পক্ষে সুদীপ চক্রবর্তী, রাকেশ ঘোষরা জানিয়েছেন, অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে খেলে অনেক কিছু শিখেছেন তাঁরা।

Advertisement

এ দিন দাসপুর ঘুরে দেখেন অস্ট্রেলিয়া দল। সাধারণ মানুষের সঙ্গে মিশে গিয়ে ছবি তোলেন তাঁরা, ঢুকে পড়েন কয়েক জনের বাড়িতেও। ম্যাচ শুরুর আগে দু’দেশের জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশিত হয়। উপস্থিত ছিলেন অস্ট্রেলিয়ার হাই কমিশনার হরিন্দর সিধু, ভারতীয় ফুটি দলের অধিনায়ক সুদীপ চক্রবর্তী, দাসপুরের বিধায়ক মমতা ভুঁইয়া, বিধায়কের প্রতিনিধি সুনীল ভৌমিক, প্রাক্তন বিধায়ক সুনীল অধিকারী, ঘাটালের সাংসদের প্রতিনিধি সুকুমার পাত্র, ঘাটালের দায়িত্বপ্রাপ্ত মহকুমা শাসক অমিত শেঠ, দাসপুর থানার ওসি প্রদীপ রথ এবং বিডিও ভাস্কর রায়-সহ বহু গণ্যমান্য ব্যক্তিত্ব। সমগ্র অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.