Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৪ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

ফাইনালে ধাক্কাধাক্কি, বড়সড় শাস্তি ভারত-বাংলাদেশের পাঁচ ক্রিকেটারের

সংবাদ সংস্থা
দুবাই ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১০:৪৬
ফাইনালের পরে হাতাহাতির জন্য দু’ দেশের একাধিক ক্রিকেটারকে কড়া শাস্তি দিল আইসিসি।

ফাইনালের পরে হাতাহাতির জন্য দু’ দেশের একাধিক ক্রিকেটারকে কড়া শাস্তি দিল আইসিসি।

যুব বিশ্বকাপ ফাইনালের শেষে বাংলাদেশ ও ভারত— দুইদেশের ক্রিকেটাররা মাঠের ভিতরেই জড়িয়ে পড়েছিলেন ধাক্কাধাক্কিতে। তার জন্য বাংলাদেশের তিন জন ও ভারতের দুই ক্রিকেটারকে বড়সড় শাস্তি দিল আইসিসি। চার থেকে ১০টি ম্যাচ পর্যন্ত নির্বাসিত হতে পারেন পাঁচ ক্রিকেটার।

রবিবাসরীয় যুব বিশ্বকাপের বল গড়ানোর পর থেকেই দুই দলের ক্রিকেটারদের মেজাজ ছিল সপ্তমে। স্লেজিং, কথা কাটাকাটি, উত্তপ্ত বাক্যবিনিময়, বল ছুড়ে মারার ঘটনা লেগেই ছিল। ম্যাচের শেষে তা মাত্রা ছাড়িয়ে যায়। রাকিবুল হাসান উইনিং স্ট্রোক নিতেই মাঠের ভিতরে ঢুকে পড়েন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। প্রায় হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েন ক্রিকেটাররা।

ম্যাচ শেষের পরের ঘটনার ভিডিয়ো ফুটেজ খতিয়ে দেখে রিপোর্ট জমা দিয়েছেন আইসিসি-র ম্যাচ রেফারি গ্রেম লেব্রয়। সেই অনুযায়ী শাস্তি দেওয়া হয়েছে বাংলাদেশের তৌহিদ হৃদয়, শামিম হোসেন ও রাকিবুল হাসানকে। ভারতের দুই ক্রিকেটার আকাশ সিংহ ও রবি বিষ্ণোইকেও আইসিসি-র আচরণবিধির ২.২১ ধারা ভাঙায় অভিযুক্ত করা হয়েছে। ভারতের লেগ স্পিনার বিষ্ণোই বাংলাদেশের ওপেনার ইমনের সঙ্গে তর্কবিতর্কে জড়িয়ে পড়েন। খারাপ ভাষা ব্যবহার করেন বলেও অভিযোগ। টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রহকারী বিষ্ণোইয়ের বিরুদ্ধে ২.৫ ধারা লঙ্ঘন করার অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে বলে জানিয়েছে আইসিসি।

Advertisement

আরও পড়ুন: সেরা হয়ে চোখে জল ওয়ার্নারের

বাংলাদেশের তৌহিদ পেয়েছেন ১০টি সাসপেনশন পয়েন্ট। এই সাসপেনশন পয়েন্ট ৬টি ডিমেরিট পয়েন্টের সমান। শামিমের ক্ষেত্রে সাসপেনশন পয়েন্ট ৮টি হলেও ডিমেরিট পয়েন্ট কিন্তু ৬টিই থাকছে। রাকিবুল ৪টি সাসপেনশন পয়েন্ট পেয়েছেন, যেটা ৫ ডিমেরিট পয়েন্টের সমান। ভারতের আকাশ ৮টি সাসপেনশন ও ৬টি ডিমেরিট পয়েন্ট পেয়েছেন। বিষ্ণোই প্রথম অপরাধের জন্য ৫ সাসপেনশন ও ৫ ডিমেরিট পয়েন্ট পেয়েছেন।

২৩তম ওভারে বাংলাদেশের অভিষেক দাস আউট হওয়ার পরে বাজে ভাষা ব্যবহার করায় বিষ্ণোই পেয়েছেন আরও ২টি ডিমেরিট পয়েন্ট। পাঁচ ক্রিকেটারই এই শাস্তি মেনে নিয়েছেন। অনূর্ধ্ব ১৯ অথবা অন্য যে কোনও আন্তর্জাতিক ম্যাচে যখনই এই ক্রিকেটাররা অংশ নেবেন, এই সাসপেনশন পয়েন্ট প্রযোজ্য হবে তাঁদের ক্ষেত্রে। ১ সাসপেনশন পয়েন্ট মানে একটি ওয়ানডে বা টি টোয়েন্টি, অনূর্ধ্ব ১৯ পর্যায় বা এ দলের একটি ম্যাচ খেলতে না পারার শাস্তির সমান। ক্রিকেটের স্পিরিট অমান্য করার জন্য ক্রিকেটাররা পেলেন বড় শাস্তি।

আরও পড়ুন: ‘গো ব্যাক’ ধ্বনি ওঠে উঠুক, দর্শন বদলাব না

আরও পড়ুন

Advertisement