Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ জুন ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Virat Kohli: সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপাও, বিরাটের বার্তা সতীর্থদের

লখনউ সুপার জায়ান্টসের শক্তি তাঁদের ওপেনারেরা। কে এল রাহুল ও কুইন্টন ডি’ককের উপরে নির্ভর করেই দলের রান বাড়িয়ে নিচ্ছে লখনউ।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৪ মে ২০২২ ০৬:১৮
Save
Something isn't right! Please refresh.
অপেক্ষা: ইডেনে আবার দেখা যাবে বিরাট কোহলিকে।

অপেক্ষা: ইডেনে আবার দেখা যাবে বিরাট কোহলিকে।
ফাইল চিত্র।

Popup Close

আইপিএলে তিনটি ফাইনাল খেলার পরেও ট্রফি ওঠেনি রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের ক্যাবিনেটে। কিন্তু এ বার প্লে-অফে ওঠার রাস্তায় এত কাঁটা থাকা সত্ত্বেও ইডেনে এলিমিনেটর খেলতে কলকাতায় পৌঁছে গিয়েছেন বিরাট কোহলিরা। দিল্লি ক্যাপিটালসের বিরুদ্ধে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স জেতার সৌজন্যে বিরাটদের এলিমিনেটরের দরজা খুলে গিয়েছিল। সোমবার বিকেলে শহরে পৌঁছেই ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি দিয়ে বিরাট লিখেছেন, ‘‘কলকাতায় পৌঁছলাম।’’ তাঁর মুখে হাসিই বলে দিচ্ছে, ইডেনে খেলার জন্য কতটা মরিয়া ছিলেন প্রাক্তন অধিনায়ক।

ইডেনই সাক্ষী তাঁর প্রথম ও এখনও পর্যন্ত শেষ আন্তর্জাতিক সেঞ্চুরির। শেষ আইপিএল সেঞ্চুরিও ইডেনে। তাই ম্যাচের আগের দিন দলীয় বৈঠকে বিরাট নিজের অনুভূতিও প্রকাশ করেছেন। আরসিবি সূত্রে জানা গিয়েছে, বিরাট নাকি প্রত্যেককে বলেছেন এক ইঞ্চিও জায়গা না ছাড়তে। সর্বশক্তি নিয়ে বিপক্ষের উপরে ঝাঁপিয়ে পড়ার নির্দেশ তাঁর।

লখনউ সুপার জায়ান্টসের শক্তি তাঁদের ওপেনারেরা। কে এল রাহুল ও কুইন্টন ডি’ককের উপরে নির্ভর করেই দলের রান বাড়িয়ে নিচ্ছে লখনউ। তাঁদের কী ভাবে শুরুতে সরিয়ে দেওয়া যায়, সেই পরিকল্পনাই তৈরি হচ্ছে আরসিবি শিবিরে। এমনকি মহসিন খানের বোলিংয়ের ভিডিয়োও নাকি চলছে আরসিবি ব্যাটারদের ফোনে। প্রত্যেকে দেখে নেওয়ার চেষ্টা করছেন, নতুন বলে কোন দিকে বেশি সুইং করান বাঁ-হাতি পেসার। লখনউ সুপার জায়ান্টস এই বাঁ-হাতি পেসারের উপরে অনেকটাই নির্ভরশীল। বিরাট ও ফ্যাফকেই সেই কাঁটা উপরে ফেলার দায়িত্ব নিতে হবে। গুজরাত টাইটান্সের বিরুদ্ধে শেষ ম্যাচে ৭৩ রান করেছেন বিরাট। সেই ইনিংসের পর থেকে দলের প্রত্যেকের সঙ্গে নাকি আরও খোলামেলা ভাবে মিশতে শুরু করেছেন প্রাক্তন অধিনায়ক। আসলে বিশ্বের অন্যতম সেরা ব্যাটার হিসেবে তাঁর কাছে অনেক কিছু আশা করেন সমর্থকেরা। সেই আশা পূরণ করতে না পারার আক্ষেপ মানসিক চাপ বাড়াতে বাধ্য। যা অনেকটাই কমেছে।

Advertisement

ফ্যাফ ডুপ্লেসি এ দিন ফুরফুরে মেজাজেই ছিলেন। কলকাতায় নামার পরে দলের অনেককেই বলেছেন, চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে খেলার সময় ইডেনের বাউন্ডারি লাইনে তাঁর ক্যাচ দেখে সমর্থকেরা কতটা খুশি হয়েছিলেন। দলের সকলকে বোঝানোর চেষ্টা করেন, ঘরের মাঠের ক্রিকেটারেরাই নয়, বিপক্ষের কেউ ভাল খেললেও ইডেন তাঁদের অভ্যর্থনা জানাতে ভোলে না। এ দিন হোটেলে পৌঁছে সকলে বিশ্রাম নিলেও আজ বিরাটরা নামছেন অনুশীলনে।।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement