×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০২ অগস্ট ২০২১ ই-পেপার

নাইট শিবিরে তারুণ্যের জোয়ার

জন্মদিনে ঈশানের উপহার কুম্বলের শুভেচ্ছা, পরামর্শ

ইন্দ্রজিৎ সেনগুপ্ত
কলকাতা ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ০৪:৫৬
কৃতজ্ঞ: কোচ কুম্বলের শুভেচ্ছায় অনুপ্রাণিত ঈশান পোড়েল।

কৃতজ্ঞ: কোচ কুম্বলের শুভেচ্ছায় অনুপ্রাণিত ঈশান পোড়েল।

শনিবারই বাইশ বছরে পা দিলেন বাংলার পেসার ঈশান পোড়েল। অন্যান্য বারের চেয়ে এ বারের জন্মদিন তাঁর কাছে বিশেষ ভাবে স্মরণীয় হয়ে থাকল। কিংস ইলেভেন পঞ্জাব দলের সদস্য ঈশানের জন্মদিন পালন হয় দুবাইয়ে দলের হোটেলে। সকালে জিম শেষ হওয়ার পরে ব্রেকফাস্ট টেবলে যেতেই দেখেন তাঁর জন্য অপেক্ষা করছেন সতীর্থরা।

পঞ্জাব দলের কোচ অনিল কুম্বলে নিজে ঈশানের ব্রেকফাস্ট টেবলে এসে তাঁকে শুভেচ্ছা জানিয়ে যান। ক্রিকেটীয় পরামর্শও দেন তরুণ পেসারকে। কী বললেন কুম্বলে? দুবাই থেকে ঈশান বললেন, ‘‘অনুশীলনের সময়েও খুব যত্ন নিয়ে আমাদের শেখান কুম্বলে স্যর। কখনও ভাবতেও পারিনি আমার ব্রেকফাস্ট টেবলে এসে শুভেচ্ছা জানিয়ে যাবেন ওঁর মতো কিংবদন্তি। এত দিন জন্মদিন মানে মায়ের হাতের সুস্বাদু খাবার, বন্ধুদের সঙ্গে গল্প। এ বারের জন্মদিন সত্যি আলাদা।’’ যোগ করেন, ‘‘বহু ক্রিকেটীয় পরামর্শও দেন কুম্বলে স্যর। সে সব যদিও ব্যক্তিগত।’’

কিংস ইলেভেন পঞ্জাব অধিনায়ক কে এল রাহুলও ঈশানকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। কী বললেন রাহুল? ঈশানের কথায়, ‘‘রাহুল ভাই একদম বন্ধুর মতো মেশে। বলল, এ মরসুমে যেন আগের বারের চেয়েও বেশি উইকেট পাই। জন্মদিনে এত বড় ক্রিকেটারদের মধ্যে থাকতে পেরে প্রচণ্ড আনন্দ হচ্ছে।’’

Advertisement



মহড়া: কলকাতা নাইট রাইডার্সের এ বারের অন্যতম ভরসা শুভমন গিল মগ্ন প্রস্তুতিতে। ছবি সৌজন্য কেকেআর।

জন্মদিনে যদিও প্র্যাক্টিস থেকে বিশ্রাম নেই। অনুশীলনে যাওয়ার কিছুক্ষণ আগে আরও একটি চমক অপেক্ষা করছিল ঈশানের জন্য। দলীয় বৈঠকের রুমে সবাইকে ডেকে পাঠানো হয়। ঈশান ঢুকে দেখেন, তাঁর জন্য কেক সাজিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন সতীর্থরা। বাংলার পেসার প্রবেশ করতেই শুরু হয় জন্মদিনের গান। একে একে এসে তাঁকে শুভেচ্ছা জানান সতীর্থ ও কোচেরা। কিংস ইলেভেন পঞ্জাবে বাংলার বোলার সায়ন ঘোষও উপস্থিত ছিলেন সেই জন্মদিন পালনে। বলছিলেন, ‘‘অনেক দিন পরে খুব আনন্দ করলাম সবাই মিলে। এই দলে কোনও সিনিয়র, জুনিয়র ভেদাভেদ নেই। প্রত্যেককে সমান গুরুত্ব দেওয়া হয়। দু’দিন আগে শামি ভাইয়ের জন্মদিনেও যে রকম মজা হয়েছ, ঈশানের জন্মদিনেও একই রকম আনন্দ করেছি সকলে।’’

ঈশান নিজে কী চান আগামী বছরে? বাংলার পেসারের উত্তর, ‘‘প্রথম লক্ষ্য, অবশ্যই আইপিএলে কিছু করে দেখানোর। সুযোগ না পেলেও ভেঙে পড়ব না। প্রস্তুতিতে ফাঁকি দেব না। লকডাউনের সময় বাইরে বেরোতে পারতাম না। কিন্তু আমার ট্রেনিং থেমে ছিল না। ফিটনেস বাড়িয়ে রেখেছি বলেই এত দিন পরেও কোনও সমস্যা হচ্ছে না।’’

৯ সেপ্টেম্বর প্রস্তুতি ম্যাচ কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের। সেখানে ভাল কিছু করে দেখাতে চান ঈশান। তাঁর লক্ষ্য, ‘‘প্রস্তুতি ম্যাচেই প্রমাণ করতে হবে নিজেকে। এর চেয়ে বড় সুযোগ আর পাব না। ৯ তারিখের মধ্যে আরও কিছুটা ছন্দ ফিরে পাব। জড়তাও কাটবে। আত্মবিশ্বাসী হয়ে মাঠে নামতে হবে।’’

ঈশানের সঙ্গেই এ বারের আইপিএলে অভিষেক হতে পারে বাংলার শাহবাজ় আহমেদের। এই আইপিএল তাঁদের জীবনে আশীর্বাদ হয়ে উঠতে পারে কি না, তা সময়ই বলবে।

Advertisement