Advertisement
১৩ জুন ২০২৪
SC East Bengal

ইস্টবেঙ্গলে এখন ‘সুস্থ প্রতিযোগিতা’, চিন্তিত কোচ রবি ফাওলার

মাত্র ২০ মিনিটে মাঠ কাঁপানো ফুটবল। দ্যুতি ছড়ানো গোল। দুরন্ত বল কন্ট্রোল। গত ম্যাচে ওড়িশা এফসিকে টাইট দিয়ে হেড কোচ রবি ফাওলারের চিন্তা বাড়িয়ে দিলেন ব্রাইট এনোবাখারে।

এফসি গোয়ার বিরুদ্ধে নামার আগে দলের 'সুস্থ প্রতিযোগিতা' নিয়ে চিন্তিত রবি ফাওলার। ছবি: পিটিআই।

এফসি গোয়ার বিরুদ্ধে নামার আগে দলের 'সুস্থ প্রতিযোগিতা' নিয়ে চিন্তিত রবি ফাওলার। ছবি: পিটিআই।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৫ জানুয়ারি ২০২১ ১৮:৩৬
Share: Save:

মাত্র ২০ মিনিটে মাঠ কাঁপানো ফুটবল। দ্যুতি ছড়ানো গোল। দুরন্ত বল কন্ট্রোল। গত ম্যাচে ওড়িশা এফসিকে টাইট দিয়ে হেড কোচ রবি ফাওলারের চিন্তা বাড়িয়ে দিলেন ব্রাইট এনোবাখারে। তবে বুধবার লড়াই আরও কঠিন। এফসি গোয়ার ইগোর আঙ্গুলো-জর্জ মেন্ডোজারা নেকড়ে বাঘের মতো লাল-হলুদ ডিফেন্সকে হজম করার অপেক্ষায় রয়েছেন। তাই অন্যতম শক্তিশালী প্রতিপক্ষ এফসি গোয়ার বিরুদ্ধে শুধু ডিফেন্স আঁটোসাঁটো করা নয়, একইসঙ্গে স্ট্রাইকিং লাইনেও ঝাঁজ রাখতে হবে। ফলে উইনিং কম্বিনেশন ভেঙে ২৩ বছরের নাইজেরীয় স্ট্রাইকারকে শুরু থেকেই মাঠে নামাতে পারেন লিভারপুল লেজেন্ড।

সেক্ষেত্রে কোন পাঁচ বিদেশিকে মাঠে নামাবেন লাল-হলুদের সাহেব কোচ? ব্রাইট, জ্যাক মাঘোমা, অ্যান্টনি পিলকিংটন কম্বিনেশন যেকোনও প্রতিপক্ষের রাতের ঘুম কেড়ে নেবে। তাহলে কি প্রতি ম্যাচে কোচের রক্তচাপ বাড়ানো স্কট নেভিলের ওপর কোপ পড়তে চলেছে? সেটা হলে রাজু গায়কোয়াড়কে সেন্ট্রাল ডিফেন্ডার হিসেবে খেলিয়ে, অঙ্কিত মুখোপাধ্যায়কে রাইট ব্যাকে ভাবা যেতেই পারে। কম্বিনেশন বদলানোর ব্যাপারে ফাওলারও ভাবতে শুরু করেছেন। ভার্চুয়াল সাংবাদিক সম্মেলনে কোচ বলেছেন, ‘‘ব্রাইটকে শুরু থেকে খেলাতে হলে সেন্ট্রাল ডিফেন্সে কোনও ভারতীয়কে খেলাতে হবে। ব্যাপারটা নতুন। তবে ভাবনাচিন্তা করা যেতেই পারে।’’ এরপরেই ফের যোগ করেন, ‘‘আসলে ব্রাইট পারফরম্যান্স করে আমার চিন্তা বাড়িয়ে দিয়েছে। তবে দলে যে সুস্থ প্রতিযোগিতা বাড়ছে এটা দেখে আমি বেশি খুশি।’’

যদিও এফসি গোয়া কিন্তু ওড়িশা নয়। ৯ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবলের তিন নম্বরে থাকা এফসি গোয়া কিন্তু শীর্ষে থাকা এটিকে মোহনবাগানকেও একটা সময় পর্যন্ত চাপে ফেলে দেয়। সেই ম্যাচের ৮৫ মিনিটে রয় কৃষ্ণ গোল করে সবুজ-মেরুনকে স্বস্তি এনে দিলেও, গোয়ার ডিফেন্স কিন্তু দাগ কেটেছিল। তবে ফাওলার কঠিন বিপক্ষ এফসি গোয়াকে নিয়ে বেশি চিন্তিত নন। বরং তাঁর বেশি চিন্তা আগামী চারদিনে দুটো ম্যাচ খেলতে হবে। গোয়ার পর তাঁর সামনে বেঙ্গালুরু এফসি। অবশ্য গায়ে গায়ে ম্যাচের জন্য সূচি নিয়ে তাঁর ক্ষোভ নেই। বলছেন, ‘‘শক্ত প্রতিপক্ষ, দুর্বল প্রতিপক্ষ এগুলো নিয়ে আমার দল চিন্তিত নয়। বিভিন্ন দল সম্পর্কে তকমা দেওয়া প্রচার মাধ্যমের কাজ। আগামী চারদিনে দুটো ম্যাচ খেলতে হবে। আমি সেটা নিয়ে চিন্তিত। কারণ, ফুটবলাররা রিকভারি করার সুযোগ পাবে না।’’

আরও পড়ুন: ভারতীয় মিডফিল্ডার নিতে চান ফাওলার

নতুন বছরে প্রথম জয়। ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া এসসি ইস্টবেঙ্গল। ফাওলার জানেন তাঁর রিজার্ভ বেঞ্চে মশলার অভাব। তাই লাগাতার ম্যাচ খেলা নিয়ে বাড়তি চিন্তিত। যদিও তাঁর দাবি দল এখনও প্লে অফের দরজা খুলতে পারে। ৮ ম্যাচে মাত্র ৬ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবলের ১০ নম্বরে রয়েছে লাল-হলুদ বাহিনী। তাই উপরের দিকে যেতে হলে অনেকটা পথ হাঁটতে হবে।

আরও পড়ুন: ইস্টবেঙ্গলকে চিঠি বিনিয়োগকারীর

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE