Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৯ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

সবুজ-মেরুনের কোচ হয়ে চ্যালেঞ্জ নিতে তৈরি খালিদ

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০৮ জানুয়ারি ২০১৯ ০৫:১১
দায়িত্ব: মোহনবাগানের হয়ে নতুন ইনিংস খালিদের। ফাইল চিত্র

দায়িত্ব: মোহনবাগানের হয়ে নতুন ইনিংস খালিদের। ফাইল চিত্র

দশ মাস পরে কলকাতায় কোচিং করাতে ফিরে খালিদ জামিল সোমবার সন্ধ্যায় বলে দিলেন, ‘‘এটা আমার কাছে নতুন চ্যালেঞ্জ। নিজের সেরাটা দিতে চাই।’’
রবিবার রিয়াল কাশ্মীরের কাছে হারের পরে পদত্যাগ করেছিলেন মোহনবাগান কোচ শঙ্করলাল চক্রবর্তী। চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যেই খালিদকে কোচ করে কলকাতায় উড়িয়ে এনেছেন সবুজ-মেরুন কর্তারা। বুধবার মিনার্ভা পঞ্জাবের বিরুদ্ধে খেলা দিপান্দা ডিকাদের। তাই মঙ্গলবার সকালেই সনি নর্দেদের কোচিং করাতে নামতে হচ্ছে খালিদকে। দায়িত্ব নেওয়ার দু’দিনের মধ্যে আই লিগের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। এটা তো চাপের? প্রশ্ন শুনে আইজলকে আই লিগ জেতানো কোচের গলা নির্লিপ্ত। ফোনে বলে দিলেন, ‘‘আই লিগের সব ম্যাচ দেখেছি। মোহনবাগানের সব খেলাও দেখেছি। আচ্ছে টিম। ছেলেরা খুব ভাল।’’ কিন্তু মোহনবাগান তো আই লিগের খেতাব থেকে ছিটকে গিয়েছে? এখন নতুন কোন লক্ষ্য নিয়ে এগোবেন? তা ছাড়া ২৭ জানুয়ারি আবার ডার্বি? খালিদের জবাব, ‘‘জয়ে ফেরাটাই প্রথম চ্যালেঞ্জ। লিগ টেবলে যতটা সম্ভব ভাল জায়গায় পৌঁছতে হবে। ডার্বির কথা পরে ভাবা যাবে।’’
গত বছর এপ্রিলে নানা ঝামেলায় জড়িয়ে ইস্টবেঙ্গল থেকে ছাঁটাই হয়েছিলেন খালিদ। তাঁর কুসংস্কারের বাড়াবাড়িতে সমস্যায় পড়ছিলেন লাল-হলুদ কর্তারা। খালিদের মাথার উপর টেকনিক্যাল ডিরেক্টর হিসাবে সুভাষ ভৌমিককে বসিয়েও পরিস্থিতি সামাল দিতে পারেননি তাঁরা। সেই বিতর্কিত কোচকে মোহনবাগান ফিরিয়ে আনায় ময়দান জুড়ে আলোড়ন। ফুটবলাররাও অনেকেই চিন্তায়। মিডিয়ার লোকজনের কাছে খোঁজ নিচ্ছেন তাঁরা। জানতে চাইছেন, ‘‘খালিদ বদলেছেন কি না?’’ খালিদকে ইস্টবেঙ্গলে কোচ করে আনার পিছনে যাঁর বড় ভূমিকা ছিল, লাল-হলুদের সেই প্রাক্তন ফুটবলার বলছিলেন, ‘‘খালিদ যদি নিজেকে বদলায়, তা হলেই সফল হবে। মুশকিল হল, ও কাউকেই বিশ্বাস করে না। সবাইকে নিয়ে চলতে পারে না। সবাইকে
সন্দেহ করে।’’
মোহনবাগান কর্তারা যে এটা জানেন না, তা নয়। কিন্তু তাঁদের সামনে আর কোনও রাস্তা খোলা ছিল না। এক শীর্ষ কর্তা যুক্তি দিচ্ছিলেন, ‘‘বাংলার কাউকে কোচ করলে নানা টানাপড়েন চলত ক্লাবে। খালিদের মতো কড়া কোচ এখন দরকার। তা ছাড়া ও ইস্টবেঙ্গলে এসেছিল একটা দলকে আই লিগ চ্যাম্পিয়ন করে। এ বার সেই দাপট নেই। পরিস্থিতি অন্য রকম। বসে ছিল। প্রস্তাব দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে রাজি হয়ে গিয়েছে। আমরা ওকে বুঝিয়ে দিয়েছি, এখানে যেন সমস্যা না হয়।’’
জানা গিয়েছে, খালিদের সঙ্গে মোহনবাগানের চুক্তি চার মাসের। আই লিগের নয় ম্যাচ এবং সুপার কাপের জন্য। এ দিন বিকেলে ক্লাবের কর্মসমিতির প্রাক্তন সদস্য ও ময়দানের পরিচিত কর্তা সরোজ বন্দ্যোপাধ্যায়ের মরদেহ নিয়ে আসা হয়েছিল তাঁবুতে। সুব্রত ভট্টাচার্য, শিশির ঘোষ ছাড়াও বহু কর্তা ও সদস্য-সমর্থক এসেছিলেন তাঁবুতে। সবারই আশঙ্কা, খালিদ না আবার ঝামেলা বাঁধান।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement