Advertisement
১৮ জুন ২০২৪

স্টেনের দেশে বিরাট জয়ের আশায় রাহুল

যে সফরকে অনেকেই কোহালির টিমের অগ্নিপরীক্ষা হিসেবে দেখছেন। একজন অবশ্য মনে করছেন, দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে সে দেশ থেকে প্রথম টেস্ট সিরিজ জিতে আসার ক্ষমতা আছে কোহালির দলের।

আশায়: দ্রাবিড় ইতিবাচক থাকছেন।

আশায়: দ্রাবিড় ইতিবাচক থাকছেন।

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ০৮ ডিসেম্বর ২০১৭ ০৪:১০
Share: Save:

টানা ন’টি টেস্ট সিরিজ জয়ের পরে বিরাট কোহালিদের পরীক্ষা এখন উপমহাদেশের বাইরে। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে। যে সফরকে অনেকেই কোহালির টিমের অগ্নিপরীক্ষা হিসেবে দেখছেন। একজন অবশ্য মনে করছেন, দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে সে দেশ থেকে প্রথম টেস্ট সিরিজ জিতে আসার ক্ষমতা আছে কোহালির দলের।

তিনি— রাহুল দ্রাবিড়। বৃহস্পতিবার সংবাদ সংস্থাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে দ্রাবিড় বলেছেন, ‘‘ভারতের এই দলটার যা গভীরতা, তাতে আমার মনে হয়, দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে সিরিজ জিতে আসার ক্ষমতা আছে ওদের।’’

কেন দ্রাবিড় এতটা আশাবাদী হচ্ছেন? ভারতের অন্যতম সেরা এই ব্যাটসম্যান বলেছেন, ‘‘আমাদের দলে বেশ কয়েক জন ভাল ফাস্ট বোলার আছে। প্রয়োজন পড়লে আমরা এক জন অলরাউন্ডারকে (হার্দিক পাণ্ড্য) খেলাতে পারি। তা ছাড়া আমাদের দুই স্পিনার— রবীন্দ্র জাডেজা এবং আর. অশ্বিন, দু’জনেই খুব ভাল। ওদের অভিজ্ঞতাও আছে। সব মিলিয়ে আমাদের বোলিং আক্রমণের ভারসাম্য খুবই ভাল।’’

আরও পড়ুন: সেনাদের শ্রদ্ধার্ঘ্য বিরাটদের

দ্রাবিড়ের আরও একটা ব্যাপার খুব পছন্দ। ‘‘আমার যে জিনিসটা খুব ভাল লাগছে, সেটা হল, এই টিমের ব্যাটসম্যানদের সবার দক্ষিণ আফ্রিকায় খেলার অভিজ্ঞতা আছে। তা ছাড়া সবারই মোটামুটি ৪০-৫০টা টেস্ট খেলার অভিজ্ঞতাও আছে। যা কাজে আসবে,’’ বলেছেন ‘দ্য ওয়াল।’ এর পাশাপাশি তিনি আরও বলেছেন, ‘‘তবে আমাদের একটু ভাগ্যের সাহায্য দরকার। যদি সেটা পাওয়া যায়, তবে দক্ষিণ আফ্রিকায় ভাল ফল করার ব্যাপারে আমি আশাবাদী।’’

ধর্মশালায় প্রথম ওয়ান ডে খেলতে ‘ফিনিশার’ ধোনি ও উত্তরসূরি হার্দিক।

এই বছরে ভারতীয় দল টানা খেলে চলেছে। ২৪ ডিসেম্বর শ্রীলঙ্কা সিরিজ শেষ হওয়ার দিন দু’য়েকের মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকায় উড়ে যেতে হবে কোহালিদের। ফলে এ রকম গুরুত্বপূর্ণ বিদেশ সফরের আগে প্রস্তুতির সময় একদম পাচ্ছেন না ভারতীয় ক্রিকেটারেরা। যা নিয়ে কিছু দিন আগে সরব হয়েছিলেন ভারত অধিনায়কও। দ্রাবিড়কে এই নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘‘মাঝে মাঝে কোনও কোনও বছরের ক্রীড়াসূচি খুব কঠিন হয়ে যায়। আবার কোনও কোনও বছরে হয় না। কোনও সন্দেহ নেই, ক্রিকেটারদের ওপর মারাত্মক চাপ থাকে। কিন্তু সেটা সব টিমের ক্ষেত্রেই বলা যায়। যদি ক্রীড়াসূচি দু’দিক বজায় রেখেই করা যায়, তা হলে তো খুবই ভাল হয়। কিন্তু সে রকম করা মোটেই সোজা কাজ নয়।’’

দিন কয়েক আগেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সেঞ্চুরি করার দিক দিয়ে দ্রাবিড়কে টপকে যান কোহালি। এখন তাঁর সামনে শুধুই সচিন তেন্ডুলকর। কোহালি এবং বাকিদের মধ্যে পার্থক্যটা কোথায়? প্রশ্ন শুনে দ্রাবিড় বলেন, ‘‘সতীর্থদের উদ্বুদ্ধ করতে কোহালি যে তীব্রতা নিজের খেলার মধ্যে নিয়ে আসে, সেটা আমার সবচেয়ে ভাল লাগে।’’

এই মুহূর্তে দ্রাবিড় ভারতীয় ‘এ’ এবং অনূর্ধ্ব-১৯ দলের কোচিংয়ের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন। গত মাসে এশিয়া কাপে ভারতের অনূর্ধ্ব-১৯ দল অত্যন্ত খারাপ খেলে ছিটকে যায়। কেন এ রকম খারাপ ফল হল? দ্রাবিরের ব্যাখ্যা, ‘‘আমদের খেলায় যে খুব ভুল হয়েছে, সেটা বলব না। এই পর্যায়ে সব সময় ফলের ওপর নজর দিলে চলে না। ওদের বয়স অল্প। মাঝে মাঝে ফলটা আশানুরূপ নাও হতে পারে।’’

দ্রাবিড় এবং নির্বাচকেরা মিলে ঠিক করেছিলেন ফর্মে থাকা পৃথ্বী শ-কে যুব এশিয়া কাপে না খেলিয়ে রঞ্জি খেলাবেন। যা নিয়ে দ্রাবিড় বলছেন, ‘‘আমরা ঠিক করেছিলাম, যারা রঞ্জি ট্রফি খেলছে, তারা রঞ্জি ট্রফিই খেলবে। অনূর্ধ্ব-১৯ দলে নয়। আমরা কিন্তু ঠিক সিদ্ধান্তই নিয়েছি।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE