Advertisement
২৭ নভেম্বর ২০২২

এসসিজিতে নানা ব্যাটিং নজির

আগেই সিরিজ জিতে ফেলা অস্ট্রেলিয়া পাকিস্তানের বিরুদ্ধে শেষ টেস্টে একের পর এক ব্যাটিং নজির গড়ল প্রথম দু’দিনের খেলায়।

সিডনি শেষ আপডেট: ০৫ জানুয়ারি ২০১৭ ০৩:২৩
Share: Save:

আগেই সিরিজ জিতে ফেলা অস্ট্রেলিয়া পাকিস্তানের বিরুদ্ধে শেষ টেস্টে একের পর এক ব্যাটিং নজির গড়ল প্রথম দু’দিনের খেলায়। আগের দিন ওয়ার্নারের ডনোচিত পারফরম্যান্সের পর বুধবার অপর ওপেনার রেনশ, মি়ডলঅর্ডারে হ্যান্ডসকম্ব, দুই তরুণ অস্ট্রেলীয়র কেউ বহু পুরনো নজির ভাঙলেন, কেউ ছুঁলেন।

Advertisement

প্রথম দিনের অপরাজিত সেঞ্চুরিকারী রেনশ এ দিন থামেন ১৮৪-তে। যা টেস্ট ক্রিকেটে একুশের কমবয়সি কোনও ওপেনারের সর্বোচ্চ রান। ১৯২৮-২৯ মরসুমে আর্চি জ্যাকসনের ১৬৪ ছিল এত দিন এ ব্যাপারে সর্বোচ্চ। আর হ্যান্ডসকম্বের টেস্টজীবনের মধুচন্দ্রিমা চলেছেই। এসসিজিতে মরসুমের গোড়ায় শেফিল্ড শিল্ডে ডাবল সেঞ্চুরি করে তিনি টেস্ট দলে ঢুকেছিলেন। সেই মাঠে এ দিন করলেন দ্বিতীয় টেস্ট সেঞ্চুরি (১১০)। ২০০৫-এ ওয়ার্নের পরে টেস্টে প্রথম অস্ট্রেলীয় হিসেবে রেনশ আজ হিট উইকেট আউট হলেও ততক্ষণে তিনি ১৯২০-২১ মরসুমে হার্বি কলিন্সের অসাধারণ কীর্তি ছুঁয়ে ফেলেন। জীবনের প্রথম চার টেস্টের প্রত্যেক ইনিংসে ন্যূনতম হাফসেঞ্চুরি বা তার বেশি রান করার কৃতিত্ব। হ্যান্ডসকম্ব এ পর্যন্ত ছ’টা ইনিংসে ব্যাট করে প্রতিটায় ন্যূনতম ৫০ রান করলেন।

এ সব ঔজ্জ্বল্যে অস্ট্রেলিয়া ৫৩৮-৮ স্কোরে প্রথম ইনিংস ছেড়ে দেওয়ার পর পাকিস্তান দ্বিতীয় দিনের শেষে ১২৬-২। ছয় রানে দু’উইকেট হারানোর পরে অবিচ্ছেদ্য সেঞ্চুরি পার্টনারশিপ গড়ে ইনিংস টানছেন আজহার আলি (৫৮ ব্যাটিং) ও ইউনিস খান (৬৪ ব্যাটিং)। পাক ওপেনার আজহারও এ দিন রেকর্ড বইয়ে নাম তোলেন। অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে বিদেশি ওপেনার হিসেবে সুনীল গাওস্করের তিন টেস্টের সিরিজে (১৯৮৫-৮৬) সর্বাধিক রানের (৩৫২) নজির টপকে। আজহারের চলতি সিরিজে এ পর্যন্ত মোট রান ৩৮২। আর ন’রান করলে তিনি টপকে যাবেন পাঁচ টেস্টের সিরিজে অস্ট্রেলিয়ার মাঠে পাক ওপেনার মহসিন খানের (৩৯০) সর্বাধিক রানের রেকর্ডও।

ব্যাটিং নজিরের দিনে অবশ্য দু’দলের ফিল্ডিংই এ দিন খারাপ হয়। হ্যান্ডসকম্ব দু’বার ক্যাচ তুলে বেঁচে যান মিসবা ও ইউনিসের সৌজন্যে। ওয়ার্নার আবার দু’টো রান আউট ও একটা ক্যাচের সুযোগ নষ্ট করেন। তবে পাক শিবিরের জন্য একটা খারাপ খবর, দলের সেরা স্পিনার ইয়াসির শাহকে বাঁ পায়ের হ্যামস্ট্রিং সমস্যায় লাঞ্চের পর থেকে আর মাঠে দেখা যায়নি!

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.