Advertisement
০৩ মার্চ ২০২৪
Wimbledon 2023

আবার নতুন মহিলা চ্যাম্পিয়ন পেল উইম্বলডন, ‘চোকার’ জাবেরকে স্ট্রেট সেটে হারিয়ে জয়ী ভন্দ্রোসোভা

উইম্বলডন পেল মহিলাদের বিভাগে নতুন চ্যাম্পিয়ন। ট্রফি জিতলেন মার্কেতা ভন্দ্রোসোভা। শনিবার ফাইনালে কার্যত একপেশে লড়াইয়ে ওনস জাবেরকে হারিয়ে ট্রফি জিতলেন তিনি।

wimbledon

ট্রফি হাতে উইম্বলডন চ্যাম্পিয়ন মার্কেতা ভন্দ্রোসোভা। ছবি: রয়টার্স

শেষ আপডেট: ১৫ জুলাই ২০২৩ ১৯:৫৯
Share: Save:

উইম্বলডন পেল মহিলাদের বিভাগে নতুন চ্যাম্পিয়ন। ট্রফি জিতলেন মার্কেতা ভন্দ্রোসোভা। শনিবার ফাইনালে কার্যত একপেশে লড়াইয়ে ওনস জাবেরকে হারিয়ে ট্রফি জিতলেন তিনি। ৬-৪, ৬-৩ গেমে জিতলেন ভন্দ্রোসোভা। উইম্বলডনে ওপেন যুগে প্রথম অবাছাই হিসাবে ট্রফি জিতলেন তিনি। ২০১৭ থেকে মহিলাদের বিভাগে কোনও খেলোয়াড় ট্রফি ধরে রাখতে পারেননি। প্রতি বার নতুন বিজয়ী পাওয়া গিয়েছে। সেই তালিকায় নতুন সংযোজন চেক প্রজাতন্ত্রের খেলোয়াড়। ভন্দ্রোসোভার জয় এতটাই সহজে এসেছে যে এটি ফাইনাল ছিল নাকি প্রথম রাউন্ডের ম্যাচ বোঝা মুশকিল।

গত বছরের পর এই বছরও উইম্বলডনে রানার-আপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হল জাবেরকে। অল ইংল্যান্ডের ঘাসের কোর্টে এ বারও ‘আরব বসন্ত’ দেখা গেল না। গত বছর ইউএস ওপেনেও ফাইনালে উঠে থেমে গিয়েছিল তাঁর লড়াই। অর্থাৎ তিন বার গ্র্যান্ড স্ল্যামের ফাইনালে উঠেও জিততে পারলেন না তিনি। টেনিস বিশেষজ্ঞরা ইতিমধ্যেই ‘চোকার’ তকমা দেওয়া শুরু করেছেন তাঁকে। অর্থাৎ শেষ ধাপ যিনি কিছুতেই টপকাতে পারেন না। অতীতে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলকে এই তকমা দেওয়া হয়েছিল। টেনিসে মহিলাদের বিভাগে সেই তকমা এখন দেওয়া যেতেই পারে জাবেরকে।

প্রথম রাউন্ড থেকে জাবেরের আগ্রাসী খেলা দেখে আসছিলেন উইম্বলডনের দর্শকেরা। যত ফাইনালের দিকে এগোচ্ছিলেন ততই অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠছিলেন তিনি। কিন্তু ফাইনালে ভুল করার রোগ এ বারও তাঁর গেল না। ফাইনালের মতো ম্যাচে তাঁর ‘আনফোর্সড এরর’-এর (অনিচ্ছাকৃত ভুল) সংখ্যা ৩১। যেখানে ভন্দ্রোসোভা মাত্র ১৩টি মেরেছেন। ফলে ‘উইনার’-এর দিক থেকে জাবের অনেকটা এগিয়ে থাকলেও (২৫-১০) নিজের ভুলের কারণে ম্যাচটা হাতছাড়া হল তাঁর। প্রথম সেটে এক সময় জেতার মুখে ছিলেন তিনি। কিন্তু টানা চারটি গেম জিতে ম্যাচ ঘুরিয়ে দেন ভন্দ্রোসোভা।

প্রথম সেটের পুরোটাই হল ব্রেক এবং পাল্টা ব্রেকের খেলা। কোনও খেলোয়াড়ই নিজেদের সার্ভ ধরে রাখতে পারছিলেন না। আধুনিক টেনিসে পয়েন্ট পাওয়ার অন্যতম অস্ত্র হল সার্ভিস ধরে রাখা। সেই কাজে জাবের এবং ভন্দ্রোসোভা দু’জনেই অন্তত প্রথম সেটে ব্যর্থ। জাবের প্রথম সার্ভ করেন। তিনি নিজের সার্ভ ধরে রেখে পরেরটাতেই ব্রেক করেন ভন্দ্রোসোভাকে। চেক প্রজাতন্ত্রের খেলোয়াড়ও ছেড়ে দেওয়ার পাত্র নন। তিনি পরের গেমে ব্রেক করেন জাবেরকে। এক সময় তিউনিশিয়ার খেলোয়াড় ৪০-১৫ এগিয়েছিলেন। সেখান থেকেও সার্ভ ধরে রাখতে পারেননি। টানা তিনটি পয়েন্ট পেয়ে ব্রেক করেন ভন্দ্রোসোভা।

ষষ্ঠ গেমে আবার ভন্দ্রোসোভাকে ব্রেক করেন জাবের। ৪-২ এগিয়ে যান তিনি। মনে করা হচ্ছিল, প্রথম সেট জেতা সময়ের অপেক্ষা। সেই সময়েই প্রত্যাবর্তন করলেন ভন্দ্রোসোভা। একটি-দু’টি নয়, টানা চারটি গেম পেলেন তিনি। দু’বার ব্রেক করলেন জাবেরকে। একের পর এক ‘আনফোর্সড এরর’ (অনিচ্ছাকৃত ভুল) করার খেসারত দিতে হল তিউনিশিয়ার খেলোয়াড়কে।

দ্বিতীয় গেমের শুরু থেকেই ভন্দ্রোসোভাকে আগ্রাসী মেজাজে পাওয়া যায়। প্রথম গেমেই তিনি জাবেরকে ব্রেক করেন। পরের সেটে জাবেরও ব্রেক করেন ভন্দ্রোসোভাকে। চতুর্থ গেমে আবার ভন্দ্রোসোভাকে ব্রেক করে ৩-১ এগিয়ে যান। অনেকেই ভেবেছিলেন, প্রথম সেটের ভুল আর দ্বিতীয় সেটে দেখা যাবে না। কোথায় কী! ভন্দ্রোসোভা পরের সেটে ব্রেক করলেন জাবেরকে। ৪-৩ এগিয়ে গিয়েও সেখান থেকে ম্যাচ ধরে রাখতে পারেননি জাবের। টানা তিনটি গেম জিতে ট্রফি হাতে তুললেন ভন্দ্রোসোভা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE