Advertisement
২৭ নভেম্বর ২০২২

আইএসএলে নিলামে যেতে চান মেহতাবরা

নিলামের আগে তুঙ্গে উঠেছে ফুটবলারদের সঙ্গে ফ্র্যাঞ্চাইজিদের দরাদরি। নিয়মানুযায়ী শুক্রবারের মধ্যে দশ ফ্র্যাঞ্চাইজিকেই জানাতে হবে দু’জন করে চুক্তিবদ্ধ স্বদেশী ফুটবলারের নাম।

লক্ষ্য: ফ্র্যাঞ্চাইজির প্রস্তাব ফেরালেন মেহতাব। ফাইল চিত্র

লক্ষ্য: ফ্র্যাঞ্চাইজির প্রস্তাব ফেরালেন মেহতাব। ফাইল চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
শেষ আপডেট: ০৫ জুলাই ২০১৭ ০৩:৩৭
Share: Save:

ইন্ডিয়ান সুপার লিগের দেশীয় ফুটবলারদের নিলাম হওয়ার সম্ভাবনা মুম্বইতে ২৩ জুলাই।

Advertisement

নিলামের আগে তুঙ্গে উঠেছে ফুটবলারদের সঙ্গে ফ্র্যাঞ্চাইজিদের দরাদরি। নিয়মানুযায়ী শুক্রবারের মধ্যে দশ ফ্র্যাঞ্চাইজিকেই জানাতে হবে দু’জন করে চুক্তিবদ্ধ স্বদেশী ফুটবলারের নাম। কিন্তু পরিস্থিতি এতটাই জটিল যে, বেঙ্গালুরু ছাড়া এখনও কোনও দলই দু’জন ফুটবলারের নাম জানাতে পারেনি। না পারার অন্যতম কারণ অবশ্যই ঝামেলা এড়াতে প্রায় সব দলই চাইছে দুই বা তিন বছরের চুক্তি করতে। তাতে টাকা কম লাগছে। কিন্তু ফুটবলাররা তা মানতে চাইছেন না। তাঁরা যেতে চাইছেন নিলামে। সেখানে দর বেশি পাওয়ার পাশাপাশি চুক্তিও হবে মাত্র এক বছরের জন্য।

এই মনোভাবের টাটকা উদাহরণ মেহতাব হোসেন, সন্দেশ ঝিঙ্গন, শৌভিক চক্রবর্তী বা দেবজিৎ মজুমদাররা। দরে পোষাচ্ছে না বলে বুধবারই কেরল ব্লাস্টার্সের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিলেন মেহতাব। ইস্টবেঙ্গলে টানা বারো বছর খেলার পর এটাই তাঁর শেষ বছর জানিয়ে দিয়েছিলেন আগেই। সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন আইএসএলে ক্লাবে খেলবেন। কিন্তু এ দিন যে আর্থিক প্রস্তাব দিল তাঁর পুরানো ক্লাব কেরল, তা ফোনেই ফিরিয়ে দিলেন লাল-হলুদের মাঝমাঠের জেনারেল। চুক্তি করতে গেলেনও না হায়দরাবাদে। বেঙ্গালুরু থেকে বেরিয়ে গিয়ে সি কে বিনীত সই করলেন কেরলে। কিন্তু মেহতাব গত তিন বছরের খেলা ফ্র্যাঞ্চাইজিকে ফেরালেন। বললেন, ‘‘আমি কেরলের মালিকদের বলে দিয়েছি নিলামে যাব। ওখানে অনেক বেশি টাকা পাব।’’ তাঁর হিসাব, নিলামে গেলে অন্তত দশ লাখ টাকা বেশি পাবেন। একই অবস্থা সন্দেশ ঝিঙ্গনেরও। কেরলের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিলেও টাটার প্রস্তাব রয়েছে জাতীয় দলের এই তারকা ডিফেন্ডারের কাছে। চাইছেন এক কোটির উপর। তাতে টাটা রাজি না হওয়ায় তিনিও যেতে চান নিলামে। মোহনবাগান মিডিও শৌভিক চক্রবর্তী আইএসএলের অন্যতম সফল ধারাবাহিক ফুটবলার। তিনিও বললেন, ‘‘লম্বা চুক্তি করতে চাইছে। অথচ যে টাকা দিতে চাইছে দিল্লি, সেটা খুব কম। কথা চলছে। না পোষালে নিলামে যাব।’’ আর দেশের অন্যতম সেরা গোলকিপার দেবজিৎ মজুমদার আতলেতিকো দে কলকাতার থেকে তিন বছরের জন্য কোটি টাকার উপর প্রস্তাব পেয়েছেন। নিজের এজেন্টের কাছ থেকে কাগজ নিয়ে খেলাচ্ছেন এটিকে কর্তাদের। ফোনও ধরছেন না। এ দিন রাত পর্যন্ত তিনি সই করেননি এটিকে-র চুক্তিপত্রে। শোনা যাচ্ছে, টাকা নিয়ে দরাদরি চালানোর পাশাপাশি লম্বা চুক্তিপত্র নিয়ে দ্বিধায় দেবজিৎ। প্রীতম কোটাল এবং প্রবীর দাশের সঙ্গে কথা চালাচ্ছে এটিকে। প্রীতমের সম্ভাবনাই বেশি। তবে দরে যদি না পোষায় তা হলে প্রীতমরাও যেতে চান নিলামে।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.