Advertisement
১৯ জুন ২০২৪
Mitchell Starc

দল ছেড়ে স্ত্রীর পাশে থাকবেন স্টার্ক

শনিবার তৃতীয় ওয়ান ডে ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে পচেস্ট্রুমে খেলতে নামবে অস্ট্রেলিয়ার পুরুষ দল।

প্রেরণা: ফাইনালে স্ত্রী অ্যালিসা হিলিকে সাহস দেবেন স্টার্ক। ফাইল চিত্র

প্রেরণা: ফাইনালে স্ত্রী অ্যালিসা হিলিকে সাহস দেবেন স্টার্ক। ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৭ মার্চ ২০২০ ০৪:২৬
Share: Save:

মেয়েদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে স্ত্রীর পাশে থাকতে জাতীয় দলের খেলা ছেড়ে দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে উড়ে আসছেন মিচেল স্টার্ক। ফলে শেষ ওয়ান ডে ম্যাচে তারকা পেসারকে পাচ্ছে না অস্ট্রেলিয়া। স্টার্কের স্ত্রী অ্যালিসা হিলি অস্ট্রেলিয়ার উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান। রবিবার হিলির দল ছন্দে থাকা ভারতীয় দলের মুখোমুখি হচ্ছে।

শনিবার তৃতীয় ওয়ান ডে ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে পচেস্ট্রুমে খেলতে নামবে অস্ট্রেলিয়ার পুরুষ দল। সেখানে স্টার্কের না থাকা নিয়ে অবশ্য কোনও আপত্তি নেই অস্ট্রেলিয়ার কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গারের। ‘‘ঘরের মাঠে বিশ্বকাপ ফাইনালে স্ত্রীকে খেলতে দেখার মতো সুযোগ জীবনে খুব কমই আসে। মিচ সেই সুযোগ পেয়েছে। স্ত্রীকে সমর্থন করার জন্য ওকে দেশে ফেরার ছুটি দিতে পেরে আমরা খুব খুশি,’’ বলেছেন ল্যাঙ্গার। তিনি আরও যোগ করেছেন, ‘‘তিনটে ফর্ম্যাটেই মিচের উপরে কতটা চাপ পড়ছে তা নিয়ে আমরা আগেও আলোচনা করেছি। কয়েক দিনের জন্য এই যে ও দেশে ফিরে যাওয়ার সুযোগ পাচ্ছে তাতে ও নিজেকে আরও তরতাজা করতে পারবে। এর পরেই আমাদের সামনে নিউজ়িল্যান্ডের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে এবং দেশের বাইরে ওয়ান ডে এবং টি-টোয়েন্টি সিরিজ রয়েছে।’’ অস্ট্রেলিয়া ইতিমধ্যেই তিন ম্যাচের সিরিজে ০-২ পিছিয়ে রয়েছে। স্টার্কের দুই ম্যাচে পারফরম্যান্স ছিল যথাক্রমে ১-৫৩ ও ২-৫৯।

স্টার্কের স্ত্রী হিলি ছন্দে ফিরেছেন বিশ্বকাপে। ভারতের বিরুদ্ধে গ্রুপ পর্বের ম্যাচে হিলি ৫১ রান করেছিলেন। বাংলাদেশের বিরুদ্ধেও তিনি ৮৩ রান করেন। রবিবার ভারতের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পথে তিনি অন্যতম বড় কাঁটা। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে চার বারের চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া এ বার গ্রুপের প্রথম ম্যাচে যদিও ভারতের কাছে হেরে গিয়েছিল। ভারতীয় দল কতটা ছন্দে আছে সেটা খুব ভাল করে জানে অস্ট্রেলিয়া। তাদের পেসার মেগান শুট তো বলেই দিয়েছেন ভারতের বিরুদ্ধে খেলতে তিনি একেবারেই পছন্দ করেন না। বিশেষ করে শেফালি বর্মা এবং স্মৃতি মন্ধানাকে পাওয়ার প্লে-তে বোলিং করতে চান না। এর আগে এই দুই ব্যাটসম্যানই তাঁর বোলিং তুলোধনা করেছেন। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার পাঁচ রানে জয়ের নেপথ্যে অবদান ছিল শুটের। ১৭ রানে দুই উইকেট নিয়েছিলেন তিনি। তবুও প্রথম ম্যাচে শেফালি এবং স্মৃতি তার বোলিংয়ে যে ভাবে প্রহার করেছিলেন, তা ভুলতে পারছেন না তিনি। শুট বলেছেন, ‘‘ভারতের বিরুদ্ধে খেলতে পছন্দ করি না। স্মৃতি আর শেফালি ভয়ডরহীন ভাবে আমার বোলিংয়ে খেলে। ত্রিদেশীয় সিরিজে আমার বোলিংয়ে শেফালি যে ছক্কা হাঁকিয়েছিল এখনও মনে আছে। আমার বিরুদ্ধে এত বড় ছক্কা মারতে মনে হয় আগে কাউকে দেখিনি।’’ তিনি আরও যোগ করেছেন, ‘‘ফাইনালে নামার আগে কী ভাবে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের সামলাতে হবে, তা নিয়ে অবশ্যই আমাদের পরিকল্পনা রয়েছে। তবে পাওয়ার প্লে-তে ওদের বোলিং করার জন্য আমি আদর্শ বোলার নই। আমার বোলিংয়ে খুব সহজেই মারতে পারে ওরা।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE