Advertisement
০৬ অক্টোবর ২০২২
Ramesh Powar

তিক্ততা ভুলে শান্তি চান পওয়ার-মিতালি

ইংল্যান্ডে একটি টেস্ট খেলবে ভারতীয় দল। পরে তিনটি করে ওয়ান ডে ও টি-টোয়েন্টি ম্যাচ।

—ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা শেষ আপডেট: ০২ জুন ২০২১ ০৪:৫২
Share: Save:

আজ, বুধবার বিরাট কোহালিদের সঙ্গে একই বিমানে তাঁরাও উড়ে যাবেন ইংল্যান্ডে। তার আগে কোচ রমেশ পওয়ারের ভূয়সী প্রশংসা শোনা গেল হরমনপ্রীত কৌরের গলায়। ভারতীয় মহিলা টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক জানিয়ে দিলেন, নতুন কোচ অসম্ভব উচ্চাকাঙ্ক্ষী, যা তাঁদের আরও ভাল খেলতে সাহায্য করবে।

পাশাপাশি ‘ভার্চুয়াল’ সাংবাদিক সম্মেলনে এসে রমেশ পওয়ার ও টেস্ট দলের অধিনায়ক মিতালি রাজ বুঝিয়ে গেলেন, পারস্পরিক তিক্ততা এখন অতীত। শান্তির বার্তা দেওয়া মিতালি মনে করেন, বিরাট কোহালিদের পরামর্শ ইংল্যান্ড সফরে তাঁদের ভাল খেলতে সাহায্য করবে।

সংবাদ সংস্থাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে হরমনপ্রীত বলেছেন, ‘‘দলের সবকিছুর সঙ্গে সব সময় রমেশ নিজেকে জড়িয়ে রাখে‌ন। চেষ্টা করেন প্রত্যেক ক্রিকেটারের শক্তি-দুর্বলতা বুঝতে। কোন জায়গায় কে ভয় পাচ্ছে বা সমস্যায় পড়ছে, তা বুঝে নিয়ে সমাধানের চেষ্টা করেন।’’ যোগ করেছেন, ‘‘উনি অসম্ভব উচ্চাকাঙ্ক্ষী। প্রচুর অভিজ্ঞতাও আছে। যা দলকে আরও ভাল খেলতে সাহায্য করে।’’

দ্বিতীয়বার কোচের দায়িত্ব নিয়ে রমেশ নিজের কাজ শুরু করে দিয়েছেন। এ দিন সাংবাদিক সম্মেলনে এসে মিতালিও বলে যান, ‘‘ওঁর সঙ্গে কাজ করতে সমস্যা নেই। যে কোনও পরিবারে সদস্যদের মধ্যে এই ধরনের মতের অমিল হতে পারে। অতীতকে আঁকড়ে বসে থাকার অর্থ হয় না।’’

তিনি আরও বলেছেন, ‘‘নতুন কোচের নিশ্চয়ই নির্দিষ্ট পরিকল্পনা আছে, যা আমাদের শোনা উচিত। রোজই রমেশের সঙ্গে কথা হচ্ছে। পরের বছরের বিশ্বকাপের কথাটাও মাথায় রাখছি।’’ যোগ করেছেন, ‘‘তিন বছর আগের কোনও বিচ্ছিন্ন ঘটনা নিয়ে পড়ে থাকা অর্থহীন। আমরা কি সামনের দিকে এগিয়ে যাব না? মনে রাখবেন এটা ২০২১।’’

সেই বক্তব্যের প্রতিধ্বনি শোনা গিয়েছে রমেশের কণ্ঠেও। তিনি বলেন, ‘‘মিতালির সঙ্গে আমার সম্পর্ক নিয়ে জল্পনা থামার নয়। কিন্তু আমি চাই, সে সব এখনই বন্ধ হোক। আমাদের মধ্যে নিয়মিত কথা হয়, মতবিনিময়ও করি। সম্পর্ক স্বাভাবিক না হলে কখনওই এই দায়িত্বে ফিরতাম না।’’

ইংল্যান্ডে একটি টেস্ট খেলবে ভারতীয় দল। পরে তিনটি করে ওয়ান ডে ও টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। টেস্ট ব্রিস্টলে শুরু হবে ১৬ জুন। মিতালি মনে করেন, কোহালিদের সঙ্গে একই হোটেলে থাকা বা একই বিমানে ইংল্যান্ডে যাওয়ার সুযোগ পাওয়াটা বড় প্রাপ্তি। ‘‘ওদের সঙ্গে দেখা হলেই মেয়েরা ক্রিকেটের নানা বিষয়ে মত বিনিময় করছে। বিরাটদের অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নিয়ে ইংল্যান্ডে অবশ্যই উপকৃত হব আমরা,’’ বলেছেন মিতালি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.