×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৪ মার্চ ২০২১ ই-পেপার

লাথি মেরে বিতর্কে সন্দেশ, বলছেন ‘ভালোবাসার চাপড়’

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ১৩ জানুয়ারি ২০২১ ২০:৫৪
সন্দেশের এই লাথি নিয়েই বিতর্ক

সন্দেশের এই লাথি নিয়েই বিতর্ক

সোমবার এটিকে মোহনবাগানের বিরুদ্ধে মুম্বই সিটি এফসি ম্যাচের শেষদিকে বিক্রম প্রতাপ সিংহ মাটিতে পড়ে যান। সময় নষ্ট হওয়ায় এক গোলে পিছিয়ে থাকা এটিকে মোহনবাগানের ডিফেন্ডার সন্দেশ জিঙ্ঘান এগিয়ে এসে বিক্রমকে পা দিয়ে টোকা মেরে জানতে চান কী হয়েছে তাঁর? এই নিয়েই শুরু হয় বিতর্ক।

বিপক্ষের ফুটবলারের গায়ে পা দিয়ে টোকা মারতে পারেন কেউ? প্রশ্ন করতে থাকেন সমর্থকরা। ম্যাচের পর মুম্বই সিটি এফসি-র পক্ষ থেকে সন্দেশের বিরুদ্ধে অভিযোগও জানান হয়। এরপর নিজের সমর্থনে ইনস্টাগ্রামে ম্যাচের ভিডিও পোস্ট করে সন্দেশ বলেন, ‘‘বিক্রম আমার ভাইয়ের মত। লাথি আর ভালবেসে মারা চাপড়ের পার্থক্য বুঝতে শিখুন। আমি আর বিক্রম একসঙ্গে ট্রেনিং করি। তাই বলার আগে একবার ভাবা উচিত।’’

জাতীয় দলের সিনিয়র ফুটবলারের এই পোস্টে তাঁর পক্ষ নিয়েই কমেন্ট করেছেন মুম্বই গোলরক্ষক অমরিন্দরও। তিনি লেখেন, ‘‘যারা তোমায় ঘৃণা করে, তারা আসলে তোমার সাফল্যকে হিংসা করে। আমি জানি এক ফুটবলার অন্য ফুটবলারকে ইচ্ছে করে আঘাত করতে চায় না। আমরা একসঙ্গে চন্ডীগড়ে অনুশীলন করতাম। সাধারণ মানুষ বুঝবে না আমাদের বন্ধুত্ব কতটা গভীর।’’ এরপর তিনি লেখেন, ‘‘তোমার সম্পর্কে আমরা ভালভাবেই জানি। তুমি সতীর্থদের ব্যাপারে কতটা যত্নবান।’’

Advertisement

আরও পড়ুন:এটিকে মোহনবাগান ছেঁটে ফেলছে ব্র্যাড ইনম্যানকে,ভাবনায় বিশ্বকাপার

এই পোস্টে কমেন্ট করেছেন বিক্রম প্রতাপ সিংহ নিজেও। তিনি লিখেছেন, ‘‘সব ঠিক আছে পাজি। এটা খেলার অঙ্গ। আমি জানি তুমি ইচ্ছে করে কিছু করতে চাওনি। আমরা একসাথে অনুশীলন করেছি। তাই খুব কাছ থেকে আমি তোমাকে জানি। যেকোনও ফুটবলারের স্বাস্থ্য সম্পর্কে তুমি নিয়মিত খোঁজ রাখ।’’ দু’দলের ফুটবলারদের মধ্যে বিতর্ক থামলেও তা থামছে না সমর্থকদের মধ্যে।

আরও পড়ুন:বায়ো বাবল, ভার না থাকা খারাপ রেফারিংয়ের কারণ, বলছেন সুভাষ, প্রদীপ

Advertisement