Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

অতীত নিয়ে ভাবছেন না নর্থইস্টের কোচ

নিজস্ব প্রতিবেদন
০১ নভেম্বর ২০১৯ ০৪:৩৩
মহড়া: সতীর্থ মন্দারের সঙ্গে গোয়ার ভরসা কোরোমিনাস। ফাইল চিত্র

মহড়া: সতীর্থ মন্দারের সঙ্গে গোয়ার ভরসা কোরোমিনাস। ফাইল চিত্র

রেকর্ড বা মিথ তৈরি হয় তা ভাঙার জন্যই, মনে করেন নর্থইস্ট ইউনাইটেড এফসি-র কোচ রবার্ট জেরিনি। এফ সি গোয়ার বিরুদ্ধে আজ শুক্রবার গুয়াহাটিতে নিজেদের মাঠে ম্যাচ খেলতে নামছে পাহাড়ের দল। কিন্তু ইন্ডিয়ান সুপার লিগে গত বছর শেষ চারে ওঠা দলটির সের্খিয়ো লোবেরার বিরুদ্ধে রেকর্ড একেবারেই ভাল নয়। দশ ম্যাচে মাত্র দুটিতে জিতেছে তারা। সেটা মনে করিয়ে দেওয়ার পর জেরিনি বলে দিয়েছেন, ‘‘রেকর্ড তৈরি হয় সেটা ভাঙার জন্য। শুধু গোয়া নয়, সব দলের বিরুদ্ধে আমরা এক-একটা রণনীতি তৈরি করে নামি। এ বারও নামব। এবং সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করব।’’

জন আব্রাহামের দলের শুরুটা এ বার খারাপ হয়নি। দুই ম্যাচে চার পয়েন্ট পেয়েছে তারা। সুনীল ছেত্রীর বেঙ্গালুরুকে রুখে দেওয়ার পর ওড়িশার বিরুদ্ধে জিতেছে নর্থ ইস্ট। অন্য দিকে সের্খিয়ো কোচ হয়ে আসার পর আজ পর্যন্ত গুয়াহাটিতে ম্যাচ জেতেনি গোয়া। ম্যাচ জেতা যে কঠিন সেটা মেনে নিয়েছেন স্পেনীয় কোচ। বলে দিয়েছেন, ‘‘মাত্র তিন জন বিদেশি নিয়ে চেন্নাইয়িনের বিরুদ্ধে আমরা যা খেলেছি তাতে আমি খুশি। বেঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে শেষ ম্যাচেও খুব সমস্যায় ছিল দল। আর নর্থ ইস্টের বিরুদ্ধে ম্যাচ জেতাও বেশ কঠিন।’’ শুধু ফেরান কোরামিনাস বা এদু বেদিয়ার মতো বিদেশি শুধু নয়, লোবেরার হাতে রয়েছে লেন, ব্র্যান্ডন ফার্নান্ডেজ, সেরিটোন ফার্নান্ডেজের মতো ভারতীয় ফুটবলারও। গোয়া কোচ এ দিন বলে দিয়েছেন, ‘‘এদু বেদিয়া, হুগো বৌমাসের মতো বিদেশি ফুটবলারের চোট থাকা সত্ত্বেও ভারতীয় ফুটবলাররা দারুণ খেলে পুরো দলকে অপরাজিত রেখে দিয়েছে। জিতিয়েছে। ওদের খেলা দেখে আমি গর্বিত। ওরা যথেষ্ট প্রতিভাবান।’’ পাশাপাশি গোয়া কোচের মন্তব্য, ‘‘ভাল বিদেশি ফুটবলার আইএসএল খেলতে আসায় তাদের সঙ্গে পড়ে ভারতীয় ফুটবলারদের মান আগের চেয়ে বেড়েছে। যা খুব ভাল দিক।’’

গোয়ার সঙ্গে খেলতে নামার আগে অবশ্য প্রচণ্ড সতর্ক নর্থ ইস্টের ক্রোয়েশিয়ান কোচ। এতটাই সতর্ক যে বিপক্ষের শক্তিশালী ফরোয়ার্ড লাইনকে কীভাবে থামাবেন তা নিয়ে একটি শব্দও খরচ করতে চাননি তিনি। উল্টে রবার্ট জেরিনি বলে দিয়েছেন, ‘‘শক্তিশালী দলের বিরুদ্ধে কী ভাবে খেলতে হয় সেটা আমাদের খেলোয়াড়রা জানে। সবাই জানে, যে কোনও আক্রমণ রোখার জন্য পাল্টা কিছু করা যায়। আমার ছেলেরা মানসিক ভাবে ৯০ মিনিট খেলার জন্য একশো শতাংশ তৈরি। দলের সবাই ফিট। চোট থাকলেও তা বলতে যাব কেন।’’ যা থেকে স্পষ্ট গোয়া বনাম নর্থ ইস্টের ম্যাচের আগে দুই কোচই নিজেদের মগজাস্ত্রে এমনভাবে শান দিচ্ছেন যাতে নিজের ও দলের পুরনো রেকর্ড ভাঙা যায়।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement