Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

‘ওভার স্টেপিং’এর সমস্যায় ভারতীয় বোলাররা

টানা সিরিজ জয়। সে টেস্টই হোক বা ওয়ান ডে। যদিও ওয়ান ডের শেষ ম্যাচ ও টি২০ সিরিজের প্রথম ম্যাচে হারের মুখ দেখতে হয়েছে ভারতকে। আর সব হারের পিছ

সংবাদ সংস্থা
৩০ জানুয়ারি ২০১৭ ২০:২৮
বুমরাহ। সব থেকে বেশি ওভারস্টেপিং তাঁরই। ছবি: সংগৃহীত।

বুমরাহ। সব থেকে বেশি ওভারস্টেপিং তাঁরই। ছবি: সংগৃহীত।

টানা সিরিজ জয়। সে টেস্টই হোক বা ওয়ান ডে। যদিও ওয়ান ডের শেষ ম্যাচ ও টি২০ সিরিজের প্রথম ম্যাচে হারের মুখ দেখতে হয়েছে ভারতকে। আর সব হারের পিছনে যা সমস্যায় ফেলছে সেটা হল ‘ওভার স্টেপিং’। হ্যাঁ, নো বলের কবলে পরে হাতছাড়া হচ্ছে আউট। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টানা সিরিজে এই ঘটনা একাধিকবার হয়েছে। বিশেষ করে হারের ম্যাচের হিসেব দেখলে বেশ সমস্যা বলেই মনে হচ্ছে ভারতীয় দলের ক্ষেত্রে।

পর পর তিনটি ম্যাচে এই সমস্যায় ভুগেছে ভারতীয় দল। নো-বলের জন্য মোক্ষম সময়ে তিনটি গুরুত্বপূর্ণ উইকেট হাতছা়ড়া হয়েছে বিরাট কোহালিদের। তৃতীয় ওয়ান ডে ও প্রথম টি২০তে এর জন্য দায়ী ছিলেন যশপ্রীত বুমরাহ। ইডেনে তৃতীয় ওয়ান ডেতে জন বেয়ারস্টোকে ২৮ রানে থার্ডম্যানে ক্যাচ তুলে দিয়েছিলেন। কিন্তু রি প্লেতে দেখা গেল নো-বল করে ফেলেছেন বুমরাহ। যার ফল আউট বাতিল। তিনি শেষ করলেন গুরুত্বপূর্ণ ৫৬ রান করে। পরেরটা অবশ্য অতটা গুরুত্বপূর্ণ না হলেও কানপুরে প্রথম টি২০তে বুমরাহর নো-বলে বোল্ড হয়েছিলেন জো রুট। শেষটা ছিল অমিত মিশ্রা। যার কথা ম্যাচের পর স্বয়ং বলেছেন আশিস নেহরাও। তিনি বলেছেন, ‘‘সেই নো-বল না হলে ভারত আরও আগে ম্যাচের দখল নিতে পারত।’’ দ্বিতীয় ওয়ান ডেতে নাগপুরে নেমেই কোনও রান না করেই প্যাভেলিয়নে ফিরে যেতে পারতেন বেন স্টোকস। কিন্তু অমিত মিশ্রার নো-বল সেটা হতে হেয়নি। বেন স্টোকস আউট হন ৩৮ রানে।

দ্বিতীয় টি২০তে ভারত জিতলেও ভারতীয় বোলারদের এই সমস্যা ভাবাচ্ছে টিম ম্যানেজমেন্টকে। কোচ, সাপোর্ট স্টাফরা এই সমস্যা সমাধানের কথা ভাবছেন। যা খুব বেশি করে ভারতের খেলায় প্রভাব ফেলছে।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement