Advertisement
০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

এই বছরেই সিন্ধু চান এক নম্বর হতে

অলিম্পিক্স এবং বিশ্ব চ‌্যাম্পিয়নশিপে রুপোজয়ী সিন্ধু গত মরসুমের শেষে দুবাই সুপার সিরিজ ফাইনালসে আকানে ইয়ামাগুচির কাছে ৯৪ মিনিট লড়াই করে হারেন।

আত্মবিশ্বাসী: নিজের লক্ষ্যের কথা জানিয়ে দিলেন পি ভি সিন্ধু। মঙ্গলবার মুম্বইয়ে এক অনুষ্ঠানে। ছবি: পিটিআই

আত্মবিশ্বাসী: নিজের লক্ষ্যের কথা জানিয়ে দিলেন পি ভি সিন্ধু। মঙ্গলবার মুম্বইয়ে এক অনুষ্ঠানে। ছবি: পিটিআই

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ০৪:১৮
Share: Save:

গত মরসুমে একটুর জন্য ফস্কে গিয়েছিল বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে এক নম্বরের সিংহাসন। এ বার সেটাকেই পাখির চোখ করছেন পি ভি সিন্ধু। এটাই তাঁর চলতি মরসুমে লক্ষ্য।

Advertisement

‘‘এ বছরটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। এর পরে অল ইংল্যান্ড চ্যাম্পিয়নশিপে নামব। কমনওয়েলথ গেমস ও এশিয়ান গেমসও রয়েছে এ মরসুমে। আমি একটা করে টুর্নামেন্ট ধরে এগোতে চাই। চলতি বছরের শেষে নিজেকে বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে এক নম্বরে দেখতে চাই।’’ মুম্বইয়ে একটি অনুষ্ঠানে সংবাদসংস্থাকে বলেন সিন্ধু।

অলিম্পিক্স এবং বিশ্ব চ‌্যাম্পিয়নশিপে রুপোজয়ী সিন্ধু গত মরসুমের শেষে দুবাই সুপার সিরিজ ফাইনালসে আকানে ইয়ামাগুচির কাছে ৯৪ মিনিট লড়াই করে হারেন। এই ম্যাচে জিতলেই তিনি বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে উঠে আসতেন। তার আগে অগস্টে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালেও ইয়ামাগুচির সতীর্থ নজোমি ওকুহারার কাছে ১১০ মিনিট লড়ে হেরে গিয়েছিলেন সিন্ধু।

ফাইনালে এই হার নিয়ে জানতে চাইলে সিন্ধু বলেন, ‘‘ফাইনালে ওঠাটাও তো খারাপ ফল নয়। তবে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ, দুবাই, ইন্ডিয়ান ওপেনে (চিনা বংশোদ্ভূত ঝ্যাং বেইয়েন এর বিরুদ্ধে) একটুর জন্য হারাটা হতাশাজনক। ভুল থেকে আমায় অনেক শিক্ষা নিতে হবে।’’ সঙ্গে তিনি যোগ করেন, ‘‘ওঠা-পড়া তো থাকেই। ফাইনালে ওঠার পরে এক-দু’পয়েন্টে হেরে যাওয়াটা বড় কথা নয়।’’ এর মধ্যে সিন্ধুর কাছে সবেচেয়ে হতাশাজনক গ্লাসগোর হার। ‘‘প্রত্যেকটা টুর্নামেন্টই আলাদা। বিশেষ করে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের কথা বলব। অন্য ম্যাচগুলোর চেয়ে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের ম্যাচটা অনেক দীর্ঘ ছিল। আমার কেরিয়ারে অন্যতম দীর্ঘ ম্যাচ।’’

Advertisement

চলতি মরসুমে সিন্ধুদের আরও বড় চ্যালেঞ্জ হল বাধ্যতামূলক ভাবে প্রতি বছরে ১৫টা টুর্নামেন্টে নামার যে নতুন নিয়ম হয়েছে তা মেনে চলা। সেই লক্ষ্য পূরণ করতে সিন্ধু শারীরিক ও মানসিক ভাবে ফিট থাকাকেই সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন। ‘‘আমাদের বেছে বেছে টুর্নামেন্ট খেলতে হবে। মানসিক আর শারীরিক ভাবে ফিট থাকতে হবে। এ মরসুমের সূচি প্রকাশ হয়ে গিয়েছে। আমরা যদি অসুস্থ বা ফিট না থাকি টুর্নামেন্টে নামতে পারব না,’’ বলেন সিন্ধু। সঙ্গে তিনি যোগ করেন, ‘‘প্রত্যেকটা টুর্নামেন্টই গুরুত্বপূর্ণ। সুপার সিরিজ প্রিমিয়ার এবং সুপার সিরিজের মতো টুর্নামেন্টগুলো আমাদের খেলতে হবে।’’ পাশাপাশি ব্যাডমিন্টনে সার্ভিস নিয়ে নতুন নিয়ম চালু হওয়া নিয়ে সিন্ধু বলেন, ‘‘সার্ভিসের যে নিয়ম চালু হচ্ছে সেটা আমার মতে মরসুমের শুরু থেকে হলে ভাল হতো। অল ইংল্যান্ডের মতো একটা নামী টুর্নামেন্টে নয়। তাতে নিয়মটার সঙ্গে আরও ভাল করে সড়গড় হওয়া যেত।’’

শোনা যাচ্ছে ব্যাডমিন্টনে এখন যে ২১ পয়েন্টের নিয়ম চালু আছে তা বদলে যেতে পারে। ১১ পয়েন্টের পাঁচটি গেমে খেলা হতে পারে। সিন্ধু যা নিয়ে বলেন, ‘‘আমার ২১ পয়েন্টের নিয়মই বেশি পছন্দ। এই নিয়ে খেলোয়াড়দের মতামত চাওয়া হয়েছিল। আমি বলেছি ২১ পয়েন্টের নিয়মটাই ভাল।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.