×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

রিয়ালের জয়, জ়িদানের দাবি মরসুমের সেরা ম্যাচ

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ১১ ডিসেম্বর ২০২০ ০৪:১৩
উৎসব: বুধবার রাতে রিয়ালের দ্বিতীয় গোলের পরে বেঞ্জেমা। রয়টার্স

উৎসব: বুধবার রাতে রিয়ালের দ্বিতীয় গোলের পরে বেঞ্জেমা। রয়টার্স

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ
রিয়াল মাদ্রিদ ২ • মনশেনগ্লাডবাখ ০

সালজ়বুর্গ ০ • আতলেতিকো ২

লিভারপুল ১ • মিডজিল্যান্ড ১

Advertisement

নায়কের নাম করিম বেঞ্জেমা। তিনি একাই যেন দায়িত্ব নিয়ে রিয়াল মাদ্রিদকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোয় তুলে দিলেন। নিজেদের মাঠে জিততেই হবে এ রকম একটা অবস্থায় বরুসিয়া মনশেনগ্লাডবাখকে ২-০ হারালেন জ়িনেদিন জ়িদানের ফুটবলারেরা। ৯ ও ৩১ মিনিটে বেঞ্জেমা দু’টি গোলই করলেন হেডে। অনেক দিন পরে অসাধারণ খেললেন লুকা মদ্রিচ। জ়িদান নিজে এতটাই খুশি এই জয়ে যে বললেন, ‘‘এই মরসুমের সেরা ম্যাচটা এতদিনে খেললাম। প্রথম থেকে শেষ মিনিট পর্যন্ত দল অবিশ্বাস্য ফুটবল খেলেছে।’’

নকআউটে আতলেতিকো: রিয়ালের মতোই আর এক মাদ্রিদ— আতলেতিকোও বুধবার সফল। তারা জিতেওছে ২-০ গোলে। ‘এ’ গ্রুপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ। বুধবার তারা ২-০ হারিয়েছে লোকোমোটিভ মস্কোকে।

ইন্টারের বিদায়: মিলানে এ দিন খেলা ছিল ইন্টার মিলান ও শাখতার দনেস্কের মধ্যে। যে দলই জিতত, তারাই গ্রুপ ‘বি’ থেকে চলে যেত নকআউটে। কিন্তু ম্যাচ ০-০ ড্র হয়েছে। তাই দু’দলই এ বার ছিটকে গেল। মজা হচ্ছে, রিয়ালের সঙ্গে খেলা শেষ করেই মনশেনগ্লাডবাখের ফুটবলারেরা স্মার্টফোন ও ল্যাপটপে মিলানের ম্যাচটা দেখছিলেন। ওই ম্যাচ ড্র হওয়ায় গ্রপ ‘বি’-র দ্বিতীয় দল হিসেবে শেষ ষোলোয় চলে গেল রিয়ালের কাছে হেরে যাওয়া মনশেনগ্লাডবাখ।

সালাহর নজির: বুধবার গ্রুপ ‘ডি’ থেকে যোগ্যতা অর্জন করল ইটালির ক্লাব আতালান্তাও। তারা ১-০ হারাল আয়াখসকে। এই গ্রুপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে লিভারপুল। তারা অবশ্য বাইরের মাঠে মিটজিল্যান্ডের সঙ্গে ১-১ ড্র করেছে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে লিভারপুলের হয়ে ম্যাচে দ্রুততম গোল করলেন মহম্মদ সালাহ। ৫৫ সেকেন্ডে। ইউরোপের সেরা টুর্নামেন্টে নিজের ২২ নম্বর গোলও হয়ে গেল মিশরের মেসির। ছাপিয়ে গেলেন লিভারপুলের হয়ে স্টিভন জেরারের ২১ গোলের নজির।

আগুয়েরোর গোল: গ্রুপ ‘সি’-তে ম্যাঞ্চেস্টার সিটি ৩-০ হারিয়েছে মার্সেইকে। একটি গোল করেছেন সের্খিয়ো আগুয়েরো। পিএসজি ৫-১ গোলে হারায় ইস্তানবুল বাসাকসেহিরকে। হ্যাটট্রিক করেছেন নেমার দা সিলভা স্যান্টোস জুনিয়র।

Advertisement