Advertisement
৩০ জানুয়ারি ২০২৩
ক্ষমা চেয়ে নায়ককে ব্রেসলেট উপহার সেই ক্যামেরাম্যানের

রিওর পরে কী, ভাবা শুরু করে দিলেন বোল্ট

রিও অলিম্পিকই শেষ। ২০১৭ লন্ডন বিশ্ব মিটে হয়তো আর দেখা যাবে না উসেইন বোল্টকে। বিশ্বের সর্বকালের সেরা স্প্রিন্টার বেজিং বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে জোড়া সোনা জেতার পর এ রকমই ইঙ্গিত দিলেন।

মিটমাট। দুশো মিটারের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের পর বোল্টের সঙ্গে ক্যামেরাম্যান সং। ছবি: রয়টার্স।

মিটমাট। দুশো মিটারের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের পর বোল্টের সঙ্গে ক্যামেরাম্যান সং। ছবি: রয়টার্স।

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ২৯ অগস্ট ২০১৫ ০৩:০০
Share: Save:

রিও অলিম্পিকই শেষ। ২০১৭ লন্ডন বিশ্ব মিটে হয়তো আর দেখা যাবে না উসেইন বোল্টকে। বিশ্বের সর্বকালের সেরা স্প্রিন্টার বেজিং বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে জোড়া সোনা জেতার পর এ রকমই ইঙ্গিত দিলেন।

Advertisement

‘‘রিও-র পর আমার স্পনসররা চাইছে আমি আরও এক বছর ট্র্যাকে থাকি। কিন্তু কোচ বলেছেন, সিরিয়াস না হলে ২০১৭ লন্ডন মিটে নামার ব্যাপারে আমার না ভাবাই উচিত,’’ বলার পাশাপাশি বোল্ট যোগ করেন, ‘‘আসলে রিও-র পর আমার শরীর কী বলে তার উপর অনেক কিছু নির্ভর করবে। দেখতে হবে তার পরও আমি একটা বছর চাপ সামলাতে পারব কি না। দেখা যাক কী হয়।’’

তবে দু’বছর পরের বিশ্ব মিট নিয়ে ভাবার আগে অবশ্য জামাইকান মহাতারকার সামনে শনিবার ১০০ মিটার রিলের চ্যালেঞ্জ রয়েছে। যেখানে বিশ্ব মিটের এগারো নম্বর সোনা জেতার সুযোগ নিয়ে আপাতত মগ্ন স্প্রিন্ট সম্রাট। সেখানে আবার জাস্টিন গ্যাটলিনের এ বার বিশ্ব মিটে বোল্টকে হারানোর শেষ চ্যালেঞ্জটাও থাকছে। বৃহস্পতিবার দুশো মিটারের যুদ্ধের পর দু’জনকে খোশমেজাজে আড্ডা দিতে দেখা গেলেও গ্যাটলিন যে শনিবার মরিয়া চেষ্টায় থাকবেন, ভালই জানেন বোল্ট।

তা ছাড়া মাসদুয়েক আগে বাহামা বিশ্ব রিলেয় গ্যাটলিন-সহ মার্কিন দল সোনাও জিতেছিল। জামাইকা রুপো। তবে বোল্ট সেই দলে ছিলেন না। তাই হয়তো মার্কিন অ্যাথলিটকে নিয়ে তিনি বলে দেন, ‘‘বিশ্ব রিলেতে ওদের সোনা জেতার ক্ষেত্রে গ্যাটলিনের বড় ভূমিকা ছিল।’’ তার পরই অবশ্য খোঁচা দিয়ে জামাইকান বলেছেন, ‘‘তবে আমার মনে হয় ও এখন খুব ক্লান্ত। আমাদের রিলেটা না জেতার কোনও কারণ নেই।’’

Advertisement

তুমুল আত্মবিশ্বাসী বোল্ট শনিবার কোনও ভুলের জেরে ধরাশায়ী হতে নারাজ। অবশ্য না চাইলেও এ বারের বিশ্বমিটে এক বার উল্টে পড়তেই হয়েছে তাঁকে। সেটা শুক্রবার টিভি ক্যামেরাম্যান সং তাও-এর সঙ্গে হঠাৎ ধাক্কায়। যার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় বলাবলি শুরু হয়ে গিয়েছিল, গ্যাটলিন এত চেষ্টা করেও যা পারেননি সেটা করে দেখিয়েছেন সং— বোল্টকে পেড়ে ফেলা! শুধু গ্যাটলিনই কেন বিশ্বের তাবড় অ্যাথলিটদের কেউই পারেননি। শুধু ২০১১ দায়েগু বিশ্বমিট ছাড়া। যে বার ফলস স্টার্টের জন্য বোল্ট ছিটকে যান। আর তাঁরই দেশের ইয়োহান ব্লেক চ্যাম্পিয়ন হন। সেই এক বার ছাড়া বোল্ট যে ট্র্যাকেই নেমেছেন তাতেই মাতিয়েছেন দর্শকদের, তাঁর ভক্তদেরও।

অবশ্য জয়ের সেলিব্রেশনে এ ভাবে বিপদে পড়ার অভি়জ্ঞতাও এই প্রথম তাঁর। বৃহস্পতিবার রেসের পর ট্র্যাকে হঠাৎ ভারসাম্য হারিয়ে বোল্টকে ধাক্কা মারেন ইলেকট্রিক স্কুটারে সওয়ার সং। দু’জনেই মাটিতে পড়ে যান। পরে যে জন্য সং ক্ষমা চান বোল্টের কাছে। একটি ব্রেসলেটও উপহার দেন বিশ্বের দ্রততম স্প্রিন্টারকে। বোল্ট যা নিয়ে মজা করে বলেছেন, ‘‘মনে হচ্ছে আমার দুটো পায়ের বিমা করতে হবে। যা হয়েছে ভয়ানক! তবে দুর্ঘটনা তো ঘটেই।’’

এ দিকে, ভারতীয়দের মধ্যে এ দিন বিশ্ব অ্যাথলেটিক্সে মেয়েদের ২০ কিমি হাঁটায় খুশবীর কাউর ৩৭তম স্থানে শেষ করেন। শনিবার ভারতের বিকাশ গৌড়া ডিসকাস থ্রোয়ের ফাইনালে নামবেন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.