×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১১ মে ২০২১ ই-পেপার

শিশুর মতো ভুল করেই হার: মেসি

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ১১ জানুয়ারি ২০২০ ০৩:৩৭
বিধ্বস্ত: সেমিফাইনালে আতলেতিকোর বিরুদ্ধে হারের পরে মেসি। রয়টার্স

বিধ্বস্ত: সেমিফাইনালে আতলেতিকোর বিরুদ্ধে হারের পরে মেসি। রয়টার্স

শিশুর মতো ভুল করেই আতলেতিকো দে মাদ্রিদের কাছে সেমিফাইনালে হার! স্প্যানিশ সুপার কাপ থেকে ছিটকে গিয়ে এ’কথা স্বীকার করলেন বার্সেলোনার অধিনায়ক লিয়োনেল মেসি স্বয়ং। জেড্ডায় রবিবার টুর্নামেন্টের ফাইনালে দিয়েগো সিমিয়োনের আতলেতিকোর লড়াই রিয়াল মাদ্রিদের বিরুদ্ধে।

মজা হচ্ছে, বৃহস্পতিবার খেলা শেষ হওয়ার ন’মিনিট আগেও বার্সা ২-১ এগিয়ে ছিল। এমনিতে ৪৬ মিনিটে ১-০ করেন আতলেতিকোর কোকে। ৫১ মিনিটে সমতা ফেরান মেসি। এবং ৬২ মিনিটে বার্সাকে ২-১ এগিয়ে দেন আঁতোয়ান গ্রিজ়ম্যান। কিন্তু ৮১ মিনিটে পেনাল্টি থেকে আতলেতিকোর আলভারো মোরাতা ২-২ করতেই ম্যাচ নাটকীয় মোড় নেয়। সিমিয়োনের ফুটবলারেরা ৮৬ মিনিটে জয়ের গোল পায় অ্যাঞ্জেল কোরেয়ার সৌজন্যে।

হতাশ মেসি ম্যাচের পরে বললেন, ‘‘এই হার লজ্জার। শেষ দিকের কয়েক মিনিট আমাদের মন ম্যাচ থেকে বেরিয়ে যায়। অন্যমনস্কতার খেসারত আজ দিতে হল। সেই সময় যে ভুলগুলো আমরা করলাম তা একমাত্র বাচ্চারা করতে পারে। অথচ রবিবার আমাদেরই ফাইনাল খেলার কথা।’’ এখানেই না থেমে মেসি যোগ করেন, ‘‘সন্দেহ নেই, এই হার আমাদের কাছে বড় একটা ধাক্কা। নিজেদের ভুলেই বার্সেলোনাকে খালি হাতে জেড্ডা থেকে স্পেনে ফিরতে হবে।’’

Advertisement

খেলার পাঁচটি গোলই দ্বিতীয়ার্ধে। পরিবর্ত হিসেবে নেমে ২১ সেকেন্ডের মধ্যে কোকের গোল দিয়ে যা শুরু। মেসিদের গোলে এগিয়েও বার্সার শেষরক্ষা হয়নি। অবশ্য ভিডিয়ো প্রযুক্তির সাহায্য নিয়ে বার্সার দু’টি গোল বাতিল হয়। সঙ্গে জেরার পিকে বক্সে পরিষ্কার বল হাতে লাগালেও আতলেতিকো বঞ্চিত হয়েছে নিশ্চিত পেনাল্টি থেকে।

Advertisement