Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

আইপিএলেও নেই কলঙ্কিত স্মিথ, ওয়ার্নার

আইসিসি দিয়েছে এক টেস্ট নির্বাসন, দেশ এক বছরের 

বুধবার রাতে যখন ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সিইও জেমস সাদারল্যান্ড জানিয়ে দিয়েছিলেন, বল-বিকৃতি কাণ্ডে এই তিন ক্রিকেটারকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে, ত

নিজস্ব প্রতিবেদন
২৯ মার্চ ২০১৮ ০৪:১৯
Save
Something isn't right! Please refresh.
বিধ্বস্ত: বল-বিকৃতি কাণ্ডে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ডের নজিরবিহীন শাস্তি ঘোষণার পরে বুধবার কড়া নিরাপত্তায় জোহানেসবার্গ বিমানবন্দরে অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ। ছবি: এএফপি

বিধ্বস্ত: বল-বিকৃতি কাণ্ডে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ডের নজিরবিহীন শাস্তি ঘোষণার পরে বুধবার কড়া নিরাপত্তায় জোহানেসবার্গ বিমানবন্দরে অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ। ছবি: এএফপি

Popup Close

বল-বিকৃতি কাণ্ডে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় এক বছরের জন্য আন্তর্জাতিক এবং ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে বহিষ্কৃত হলেন স্টিভ স্মিথ এবং ডেভিড ওয়ার্নার। শুধু অস্ট্রেলিয়ার হয়েই আগামী ১২ মাস এই দুই ক্রিকেটার মাঠে নামতে পারবেন না, তা নয়। একই সঙ্গে এ বছরের আইপিএলেও খেলা হচ্ছে না স্মিথ এবং ওয়ার্নারের। অস্ট্রেলীয় ক্রিকেট বোর্ড (ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া) তাদের সিদ্ধান্ত জানানোর কিছু পরেই আইপিএল কমিশনার রাজীব শুক্ল জানিয়ে দেন, এই দুই ক্রিকেটার এ বারের প্রতিযোগিতায় খেলতে পারবেন না। এর পাশাপাশি তৃতীয় অভিযুক্ত, ক্যামেরন ব্যানক্রফ্ট-কে নয় মাসের জন্য নির্বাসিত করেছে সে দেশের বোর্ড।

বুধবার রাতে যখন ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সিইও জেমস সাদারল্যান্ড জানিয়ে দিয়েছিলেন, বল-বিকৃতি কাণ্ডে এই তিন ক্রিকেটারকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে, তখনই বোঝা গিয়েছিল কঠোর শাস্তি অপেক্ষা করে আছে স্মিথদের জন্য। সেটাই হল। বুধবার সাদারল্যান্ড এই তিন ক্রিকেটারকে জানিয়ে দিলেন, তাঁদের কী শাস্তি হয়েছে। ১২ মাস নির্বাসনে থাকা মানে, স্মিথ ওয়ার্নাররা কেউই ভারতের বিরুদ্ধে দু’টো সিরিজে খেলতে পারবেন না। আগামী নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে ভারত চার টেস্টের সিরিজ খেলবে। সেখানে এই দু’জনের কেউই থাকবেন না। এর পরে আবার যখন ফেব্রুয়ারিতে ওয়ান ডে এবং টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে অস্ট্রেলিয়া আসবে ভারতে, তখনও প্রধান দুই ব্যাটসম্যানকে ছাড়াই আসতে হবে তাদের।

আইপিএলেও রাজস্থান রয়্যালস এবং সানরাইজার্স হায়দরাবাদ-কে এই দুই ক্রিকেটারের বিকল্প খুঁজে নিতে হবে। স্মিথের জায়গায় ইতিমধ্যেই রাজস্থানের অধিনায়ক হয়েছেন অজিঙ্ক রাহানে। সানরাইজার্স এখনও বদলি অধিনায়কের নাম জানায়নি। তবে শিখর ধবন এগিয়ে আছেন দৌড়ে।

Advertisement

শাস্তির সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আবেদন করার একটা রাস্তা খোলা আছে তিন ক্রিকেটারের সামনে। অস্ট্রেলীয় ক্রিকেট বোর্ডের নিয়ম অনুযায়ী, নিরপেক্ষ কমিশনারের কাছে আবেদন করা যায়। এমনকী চাইলে আইনি রাস্তাতেও যেতে পারেন ক্রিকেটারেরা। অস্ট্রেলীয় প্রচারমাধ্যমের একটা অংশের খবর, স্মিথ-ওয়ার্নার, দু’জনেই আইনি রাস্তায় হাঁটতে পারেন। বুধবারই দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে দেশে ফেরার বিমান ধরেছেন তিন ক্রিকেটার। তার আগে স্মিথ, ওয়ার্নার দু’জনেই নাকি আইনজীবীদের সঙ্গে একদফা কথা বলেছেন বলে খবর।

বুধবার তদন্তের পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট পাওয়ার পরে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া তাদের সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেয়। তাদের বিবৃতিতে বলা হয়েছে: ‘‘তিন ক্রিকেটারই বোর্ডের আচরণবিধির ২.৩.৫ ধারা ভঙ্গ করেছে। সব কিছু খতিয়ে দেখার পরেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। নির্বাসনের সময়কালে তিন ক্রিকেটারই ক্লাব ক্রিকেট খেলতে পারবে।’’ পাশাপাশি বলে দেওয়া হয়েছে, নির্বাসন উঠে যাওয়ার পরেও ওয়ার্নারের নাম কোনও দিন কোনও রকম নেতৃত্ব দেওয়ার ক্ষেত্রে বিবেচিত হবে না। স্মিথের ক্ষেত্রে বলা হয়েছে, নির্বাসন উঠে যাওয়ার পরে এক বছর অন্তত তাঁর নাম নেতৃত্বের জন্য বিবেচিত হবে না।

আরও পড়ুন: বল ‘বানাতে’ হবে, সঙ্গে রাখো স্কচব্রাইটও

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া আরও জানিয়ে দিয়েছে, কোনও রকম টেপ জাতীয় বস্তু নয়, শিরিস কাগজ ব্যবহার করা হয়েছিল বল-বিকৃতি ঘটনোর ক্ষেত্রে। অস্ট্রেলীয় প্রচারমাধ্যমের কোথাও কোথাও বলা হয়েছে, পরিকল্পনাটা নাকি ওয়ার্নারের মাথা থেকেই বেরিয়েছে। এমনকী তিনি নাকি ব্যানক্রফ্ট-কে বুঝিয়েও দিয়েছিলেন, কী ভাবে বলের একটা দিক ঘষতে হবে।

নির্বাসনের শাস্তি বহাল থেকে গেলে স্মিথ, ওয়ার্নারের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রত্যাবর্তন ঘটবে আগামী বছরের বিশ্বকাপের আগে। ব্যানক্রফ্ট অবশ্য তার আগেই ফিরবেন। স্মিথ, ওয়ার্নারের আইপিএল খেলা নিষিদ্ধ হলেও ব্যানক্রফ্ট-কে নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত এখনও নেয়নি তাঁর কাউন্টি সমারসেট।



Something isn't right! Please refresh.

Advertisement