Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৯ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

খেলা

পিছিয়ে গ্রেটরা, টেস্টে স্মিথের রেকর্ড অশ্বমেধের ঘোড়া

নিজস্ব প্রতিবেদন
১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১২:৩৫
বর্তমান সময় বিশ্ব ক্রিকেটের সেরা চার ব্যাটসম্যান ধরা হয় ভারতের বিরাট কোহালি, অস্ট্রেলিয়ার স্টিভ স্মিথ, ইংল্যান্ডের জো রুট এবং নিউজিল্যান্ডের কেন উইলিয়ামসনকে। অনেকেই মনে করেন, তিন ধরনের ক্রিকেট ধরলে বিরাটই সেরা। কিন্তু কথা যদি হয় টেস্ট নিয়ে, তা হলে অনেকটাই এগিয়ে থাকবেন স্মিথ। সেই কথাই বলছে পরিসংখ্যান।

বল বিকৃতি, এক বছরের নির্বাসন, অস্ট্রেলীয় জাত্যাভিমানে আঘাত, জাতীয় খলনায়কে পরিণত হওয়া স্মিথ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরে এলেন রাজার মতো। সম্প্রতি শেষ হওয়া অ্যাশেজের পাঁচটি টেস্টের মধ্যে তিনি খেলেছিলেন চারটি। কিন্তু রান সংগ্রহের তালিকায় সবার ওপরে। সাত ইনিংসে তাঁর সংগ্রহ ৭৭৪ রান। গড় ১১০.৫৭।
Advertisement
কেরিয়ারে স্মিভ স্মিথ ইতিমধ্যেই খেলে ফেলেছেন ৬৮টি টেস্ট। দেখে নেওয়া যাক ৬৮টি টেস্টের পর বিশ্বের কিংবদন্তি ব্যাটসম্যানদের তালিকায় কে কোথায় দাঁড়িয়ে।

স্টিভ স্মিথ- ৬৮টি টেস্ট শেষে তাঁর সংগ্রহ ৬৯৭৩ রান, গড় ৬৪.৫৬। ৬৮ টেস্ট শেষে ব্যাটিং গড়ের নিরিখে শীর্ষে তিনিই। অ্যাশেজের ফর্ম ধরে রাখলে ভবিষ্যতে কোথায় গিয়ে থামবেন বলা কঠিন।
Advertisement
গ্যারি সোবার্স-কিংবদন্তি ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার সারা জীবনে খেলেছেন ৯৩টি টেস্ট। সংগ্রহ ৮০৩২ রান এবং গড় ৫৭.৭৮। কিন্তু ৬৮টি টেস্ট শেষে ব্যাটিং গড়ের বিচারে তিনি দ্বিতীয়। তাঁর গড় ছিল ৬২.০৫।

লিওনার্ড হাটন- ডানহাতি এই ইংরেজ ব্যাটসম্যান আন্তর্জাতিক কেরিয়ার শুরু করেছিলেন ১৯৩৭ সালে। ১৮ বছরের ক্রিকেট কেরিয়ারে খেলেছিলেন ৭৯টি টেস্ট। কিন্তু ৬৮টি টেস্টের পর তাঁর গড় ছিল ৬০.২৪। এই তালিকায় তিনি তৃতীয়।

ওয়ালি হ্যামন্ড- আরেক ইংরেজ ব্যাটসম্যান।৮৫ টেস্টে যাঁরসংগ্রহ ছিল ৭২৪৯ রান, গড় ৫৮.৪৫। ২০ বছরের আন্তর্জাতিক কেরিয়ারে ২২টি সেঞ্চুরি আছে তাঁর ঝুলিতে। ৬৮টি টেস্ট শেষে গড় ছিল ৫৯.৯৫।

কেন ব্যারিংটন- ১৯৫৫ সালে খেলেছিলেন প্রথম টেস্ট। ১৩ বছর ধরে ৮২ টেস্টে সংগ্রহ ৬৮০৬ রান, গড় ৫৮.৬৭। ৬৮ টেস্ট শেষে তাঁর গড় ছিল ৫৭.১২। তালিকায় তিনি পাঁচ নম্বরে।

কুমার সঙ্গকারা- শ্রীলঙ্কার এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান বিশ্ব ক্রিকেটে বোলারদের ত্রাস হয়ে উঠেছিলেন তাঁর সময়। ১৫ বছরের কেরিয়ারে ১৩৪টি ম্যাচ খেলে ১২,৪০০ রান করেন। গড় ৫৭.৪০। কিন্তু ৬৮ টেস্ট শেষে তিনিও গড়ের বিচারে স্মিথের নীচেই ছিলেন। তাঁর গড় ছিল ৫৫.৭৩। ষষ্ঠ স্থানে রয়েছেন তিনি।

জাভেদ মিয়াঁদাদ- পাকিস্তানি কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান ১২৪ ম্যাচে করেছিলেন ৮৮৩২ রান। সেরা ২৮০ নটআউট, গড় ৫২.৫৭। কিন্তু ৬৮ টেস্ট শেষে গড় ছিল ৫৪.৮২। এই তালিকায় তিনি সাত নম্বরে।

ভিভিয়ান রিচার্ডস- বিধ্বংসী ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান। টি-টোয়েন্টির যুগে ব্যাট ধরলে হয়তো চিন্তায় ফেলতেন এখনকার বোলারদের। ১২১টি টেস্টে তাঁর সংগ্রহ ৮৫৪০ রান, গড় ৫০.২৩। ৬৮ টেস্টে তাঁর গড় ছিল ৫৪.৫৫।

সচিন তেন্ডুলকর- আধুনিক ক্রিকেটের ডনকেও পিছনে ফেলে দিয়েছেন স্টিভ স্মিথ। ২০০টি টেস্টে ১৫,৯২১ রান, গড় ৫৩.৭৮। কিন্তু ৬৮ টেস্ট শেষে তাঁর গড় ছিল ৫৪.৪৯। সচিনকে ছুঁতে পারেন এমন ব্যাটসম্যানদের অন্যতম স্মিথ। এই তালিকায় লিটল মাস্টারকে পিছনে ফেলে দিলেও রান বা শতরানে টপকে যেতে পারবেন কিনা সময় বলবে।

বিরাট কোহালি- এই সময়ের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান তিনি। কিন্তু ৬৮ টেস্টের পর তাঁর সংগ্রহ ছিল ৫৭৯৪ এবং গড় ৫৩.৬৪। এই মুহূর্তে তিনি খেলে ফেলেছেন ৭৯ টেস্ট। রান ৬৭৪৯, গড় ৫৩.১৪, সেঞ্চুরি করেছেন ২৫টি।

ডন ব্র্যাডম্যান- এই লিস্টে রাখা যায়নি ক্রিকেটের সেরা কিংবদন্তিকে। কারণ তিনি সারা জীবনে খেলেছিলেন ৫২টি টেস্ট। তাতে তাঁর সংগ্রহ ৬৯৯৬ রান, গড় ৯৯.৯৪। তাঁকে ছোঁওয়া বোধ হয় সম্ভব নয়।