×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৩ মে ২০২১ ই-পেপার

ধারাভাষ্যের মাঝে হর্ষ ভোগলেকে অপমান! সোশ্যাল মিডিয়ায় তোপের মুখে মঞ্জরেকর

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ২৫ নভেম্বর ২০১৯ ১০:২৭
গোলাপি বল দেখতে পাওয়া নিয়ে মতান্তর ভোগলে-মঞ্জরেকরের।

গোলাপি বল দেখতে পাওয়া নিয়ে মতান্তর ভোগলে-মঞ্জরেকরের।

বিতর্কে জড়ালেন সঞ্জয় মঞ্জরেকর। রবিবার ইডেনে গোলাপি বলের টেস্টে টিভিতে সরাসরি সম্প্রচারের সময় সঙ্গী ধারাভাষ্যকার হর্ষ ভোগলেকে করা এক মন্তব্যের জেরে বিতর্কে জড়ান তিনি। ক্রিকেট মহলের একাংশের অভিযোগ ভোগলের প্রতি অপমানসূচক মন্তব্য করেন সঞ্জয়। যার প্রতিবাদে সরব হয় সোশ্যাল মিডিয়াও।

ভারতে হওয়া প্রথম গোলাপি বলের টেস্টে ইনিংস ও ৪৬ রানে হেরেছে বাংলাদেশ। মোমিনুল হকের দলের অনেকে ভারতীয় পেসারদের বাউন্সারে হেলমেটে বল খেয়েছেন। ফলে গোধূলিতে বল দেখতে সমস্যা হচ্ছে কি না, এমন প্রশ্ন উঠছে। আর এই ব্যাপারেই ধারাভাষ্য দেওয়ার সময় আলোচনা করছিলেন মঞ্জরেকর ও ভোগলে।

হর্ষ ভোগলে বলেন, গোলাপি বল দেখতে সমস্যা হচ্ছে কি না, তা জিজ্ঞাসা করে দেখা দরকার ক্রিকেটারদের। মঞ্জরেকর অবশ্য বল দেখতে সমস্যা হচ্ছে না বলেই দাবি করেন। তাঁর মতে, প্রথম দুই দিনে স্লিপ কর্ডনে যে ভাবে কঠিন ক্যাচ ধরা হয়েছে, তাতে বল দেখতে সমস্যার প্রশ্নই ওঠে না। ভোগলে ফের বলেন, এই ব্যাপারে ক্রিকেটারদের জিজ্ঞাসা করা উচিত। মঞ্জরেকর পাল্টা বলে ওঠেন, “আপনাদের উচিত, বল দেখা যাচ্ছে কি না তা হর্ষকে জিজ্ঞাসা করা। আমরা যাঁরা একটু-আধটু ক্রিকেট খেলেছি, তাঁদের জিজ্ঞাসা করার দরকার নেই। এটা তো পরিষ্কার যে বল দেখতে কোনও সমস্যা হচ্ছে না।”

Advertisement

আর এই মন্তব্য নিয়েই পড়ে গিয়েছে শোরগোল। এই মন্তব্যকে ভোগলের ক্রিকেটজ্ঞানের প্রতি অপমান হিসেবেই দেখছে ক্রিকেট মহলের একাংশ। সোশ্যাল মিডিয়ায় এর জন্য প্রবল ভাবে সমালোচিত হয়েছেন মঞ্জরেকর। ভোগলেও সঙ্গে সঙ্গে বলে ওঠেন, “ক্রিকেট খেলা শেখার ক্ষেত্রে যেন বাধা হয়ে না দাঁড়ায়। তেমন হলে তো টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট আসতই না।” মঞ্জরেকর অবশ্য একমত হননি। আর তা জানিয়েও দেন সোজাসুজি।






Advertisement