Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৫ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

বিশ্বকাপ দৌড়ে নতুন নাম বিজয় শঙ্কর, রোহিতদের বিশ্রাম দেওয়া নিয়ে প্রশ্ন

আজ, শুক্রবার, দেশের মাঠে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি এবং  ওয়ান ডে দল বাছতে বসছেন নির্বাচকেরা। সম্ভবত দু’টি টি-টোয়েন্টি এবং প্রথম তিনটি

সুমিত ঘোষ
১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ০৩:৩৯
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

ভারতীয় দলের বিশ্বকাপের সম্ভাব্য দল নিয়ে আলোচনায় আরও একটি নাম যুক্ত হল। তিনি— বিজয় শঙ্কর। নিউজ়িল্যান্ডে তাঁর খেলা দেখে দল পরিচালন সমিতি এবং জাতীয় নির্বাচকদের মধ্যে যথেষ্টই প্রশংসিত হচ্ছে। বিশ্বকাপের জন্য তাঁদের সম্ভাব্য তালিকায় তামিলনাড়ুর এই অলরাউন্ডারও আছেন।

আজ, শুক্রবার, দেশের মাঠে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি এবং ওয়ান ডে দল বাছতে বসছেন নির্বাচকেরা। সম্ভবত দু’টি টি-টোয়েন্টি এবং প্রথম তিনটি ওয়ান ডে-র দল নির্বাচন করা হবে। অধিনায়ক বিরাট কোহালির উপস্থিতিতে এই বৈঠকে বিশ্বকাপের সম্ভাব্য একাদশের রূপরেখাও ঠিক করে ফেলতে পারেন জাতীয় নির্বাচকেরা। সভায় খুব গুরুত্ব সহকারে আলোচিত হতে পারে তামিলনাড়ুর অলরাউন্ডার বিজয় শঙ্করের নাম। যিনি কি না কুড়ি বছর বয়স পর্যন্তও স্পিন বোলিং করতেন। আর ব্যাটের হাত তৈরি হয়েছে বাড়ির ছাদে বাবা এবং দাদার ছোড়া বলে অনুশীলন করতে করতে।

এমনিতে বিশ্বকাপের দলে এক নম্বর অলরাউন্ডার হিসেবে হার্দিক পাণ্ড্যর নির্বাচন নিশ্চিত। বিজয় শঙ্করের নাম উঠছে চতুর্থ পেসারের জায়গায়। কোহালির দলে পেসার হিসেবে বিশ্বকাপের উড়ানের টিকিট নিশ্চিত তিন জনের— যশপ্রীত বুমরা, ভুবনেশ্বর কুমার এবং মহম্মদ শামি। চতুর্থ জোরে বোলার হিসেবে দৌড়ে সব চেয়ে এগিয়ে ছিলেন খলিল আহমেদ। কিন্তু নিউজ়িল্যান্ডে বিজয় শঙ্করের সাহসী এবং আত্মবিশ্বাসী পারফরম্যান্স দেখে কারও কারও মনে হচ্ছে, চতুর্থ পেসার না নিয়ে দ্বিতীয় অলরাউন্ডার হিসেবে তাঁকে নিয়ে গেলে কেমন হয়!

Advertisement

ডান হাতে জোরে বল করতে পারেন, সঙ্গে ব্যাটিংয়ের হাতও বেশ ভাল শঙ্করের। সম্ভবত বিশ্বকাপের ভাবনায় ঢুকে পড়েছেন বলেই নিউজ়িল্যান্ডে তাঁকে উপরের দিকে ব্যাট করতে পাঠানো হয়েছিল। ব্যাট হাতে অন সাইডে দারুণ শক্তিশালী শঙ্কর পরীক্ষায় ভালই নম্বর পেয়েছেন। বিশেষ করে ওয়েলিংটনে শেষ ওয়ান ডে-তে ১৮-৪ হয়ে যাওয়ার পরে যে ভাবে অম্বাতি রায়ডুর সঙ্গে জুটি বেঁধে তিনি ধস নামা আটকান, তা দেখে প্রভাবিত সকলে। নিউজ়িল্যান্ড বোলারদের বিষাক্ত সুইং বোলিংয়ের সামনে সেই ম্যাচে ৬৪ বলে ৪৫ রান করেন শঙ্কর। চাপের মধ্যে পড়েও সেই ম্যাচ জিতে সিরিজ ৪-১ করতে পারে ভারত। ওয়েলিংটনের সেই ইনিংসই বিশ্বকাপের হাইওয়েতে প্রথম এনে ফেলে তাঁকে। শেষ টি-টোয়েন্টিতে ভারত হারলেও শঙ্কর ফের ৪৩ রান করে নজর কাড়েন। তাঁর বোলিংয়ের উপর কতটা আস্থা রাখা যাবে, সেটা নিয়ে শুধু সংশয় থেকে যাচ্ছে। তবু কারও কারও মত, ইংল্যান্ডে সুইংয়ের আবহাওয়া থাকলে তাঁর মতো মিডিয়াম পেসারকে কাজে লাগতেই পারে।

এ দিকে জোর জল্পনা ছড়িয়েছে, রোহিত শর্মা, শিখর ধওয়নের মতো সিনিয়রদের বিশ্রাম দিয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে আসন্ন ওয়ান ডে সিরিজে নতুনদের দেখা হতে পারে। কয়েকটি সূত্রে অন্য রকম ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। শোনা যাচ্ছে, প্রথম তিনটি ওয়ান ডে ম্যাচে অন্তত সেরা দল খেলিয়ে দেখে নিতে চাইছেন কোহালি, রবি শাস্ত্রীরা। কারণ, বিশ্বকাপের আগে এটাই শেষ ওয়ান ডে সিরিজ। সেরা একাদশ এক সঙ্গে খেলিয়ে দেখে নেওয়ার এটাই শেষ সুযোগ। কয়েক জনের ফর্ম নিয়েও উদ্বেগ রয়েছে। যেমন শিখর ধওয়ন। অস্ট্রেলিয়া বা নিউজ়িল্যান্ডে দারুণ ছন্দে ছিলেন না। শিখরকে আরও বেশি ম্যাচের মধ্যে রাখা উচিত বলে কারও কারও মনে হচ্ছে। এর পর পড়ে থাকবে শুধু আইপিএল। রোহিত শর্মাও অস্ট্রেলিয়ায় টেস্টে নিয়মিত খেলেননি। বলা হচ্ছে, সদ্য পিতা হওয়া রোহিত একান্তই বিশ্রাম নিয়ে স্ত্রী ও কন্যার সঙ্গে সময় কাটাতে চাইলে তাঁকে টি-টোয়েন্টি ম্যাচের বাইরে রাখুন না নির্বাচকেরা।

দল পরিচালন সমিতি কী চাইছে, সেই বার্তা নির্বাচকদের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়াও নির্বাচনী বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন বিরাট কোহালি। অধিনায়ক স্বয়ং বৈঠকে পুরো শক্তির দল নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে নামার ইচ্ছা প্রকাশ করতে পারেন। মহেন্দ্র সিংহ ধোনির ভারত যে ২০১১ বিশ্বকাপ জিতেছিল, তার মহড়া চলেছিল দু’বছর ধরে। শ্রীলঙ্কায় এশিয়া কাপের ফাইনাল খেলতে নামার আগে তাঁরা ঠিক করেছিলেন, বিশ্বকাপ ফাইনাল ধরে নিয়ে খেলবেন। ডাম্বুলায় এশিয়া কাপ ফাইনাল জেতা যে তাঁদের বিশ্ব জয়ের বিশ্বাস জুগিয়েছিল, তা পরে অনেক ক্রিকেটার স্বীকার করেছিলেন।

কোহালির এই দলে এখনও গুরুত্বপূর্ণ সদস্য হিসেবে রয়েছেন ধোনি। তিনি নিশ্চয়ই সেই মহড়ার কথা ভোলেননি। ২ এপ্রিল, ২০১১-র ওয়াংখেড়েতে ধোনির সেই বিশ্বজয়ী দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন কোহালি। তিনি এবং হেড কোচ রবি শাস্ত্রীও চাইবেন, বিশ্বকাপের আগে শেষ সিরিজে মহড়া সেরে নিতে।

নির্বাচনী বৈঠকের আগের দিন আরও জল্পনা ছড়িয়েছে, বিশ্বকাপের জন্য বাঁ হাতি পেসার হিসেবে জয়দেব উনাদকাটও দৌড়ে আছেন। ওয়াকিবহাল মহলে সে রকম কোনও ইঙ্গিত নেই। তিিন হয়তো টি-টোয়েন্টি সিরিজে থাকতে পারেন। বিশ্বকাপের দলে থাকার কোনও সম্ভাবনা নেই। বরং শোনা যাচ্ছে, নতুন কাউকে সে ভাবে আর দেখা হবে না। চতুর্থ পেসার গেলে খলিল আহমেদ, উমেশ যাদব বা মহম্মদ সিরাজের মধ্যে কেউ যাবেন। না হলে দ্বিতীয় অলরাউন্ডার হিসেবে বিজয় শঙ্করের সম্ভাবনা থাকছে। পাঁচ ব্যাটসম্যানের নাম চূড়ান্ত— রোহিত শর্মা, শিখর ধওয়ন, বিরাট কোহালি, অম্বাতি রায়ডু, কেদার যাদব। ষষ্ঠ ব্যাটসম্যানের জন্য লড়াইয়ে চার জন— কে এল রাহুল, শুভমন গিল, দীনেশ কার্তিক এবং পৃথ্বী শ। এঁদের মধ্যে রাহুল এবং গিলকে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে শেষ দুই ম্যাচে দেখা হতে পারে। পৃথ্বী এখনও পুরো ফিট হননি বলে তাঁকে এই সিরিজেই খেলানো কঠিন। তাঁর সম্ভাবনা বাড়িয়ে দিতে পারে দুর্দান্ত একটি আইপিএল।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement