Advertisement
০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Sania Mirza

সানিয়া-শোয়েব দূরত্ব ৯ হাজার কিমি! মেলবোর্নে স্ত্রীর সাফল্যেও নীরব মীরপুরের পাক তারকা

মীরপুরে শোয়েব। মেলবোর্নে সানিয়া। খেলোয়াড় জীবনের শেষ প্রান্তে আসা দু’জনেই দারুণ ছন্দে। সানিয়া অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে মিক্সড ডাবলসের ফাইনালে। বিপিএলে ব্যস্ত শোয়েব শুভেচ্ছা জানালেন না।

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে সাফল্যের পরেও সানিয়াকে শুভেচ্ছা জানাননি শোয়েব।

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে সাফল্যের পরেও সানিয়াকে শুভেচ্ছা জানাননি শোয়েব। ফাইল ছবি।

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ২৫ জানুয়ারি ২০২৩ ১৭:৪০
Share: Save:

সম্পর্কের জটিলতা প্রভাব ফেলেনি মিয়াঁ-বিবির পারফরম্যান্সে। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের কোর্ট দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন সানিয়া মির্জা। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে চেনা ছন্দে দেখা যাচ্ছে তাঁর স্বামী শোয়েব মালিককে। রোহন বোপান্নাকে সঙ্গে নিয়ে মিক্সড ডাবলসের ফাইনালে পৌঁছে গিয়েছেন সানিয়া। তাও তাঁকে শুভেচ্ছা জানালেন না শোয়েব।

Advertisement

সানিয়া-শোয়েবের বৈবাহিক সম্পর্কে চিড় ধরেছে বলে শোনা যাচ্ছে কিছু দিন ধরে। এ নিয়ে কেউ সরকারি ভাবে কোনও মন্তব্য করেননি। যদিও দূরত্ব তৈরি হওয়ার খবরের সত্যতা স্বীকার করেছেন দু’জনের ঘনিষ্ঠরা। আকাশ পথে মীরপুর থেকে মেলবোর্নের দূরত্ব ৮,৯০৩ কিলোমিটার। এই দূরত্বের থেকেও কি বেশি সানিয়া-শোয়েবের মনের দূরত্ব? বুধবার বোপান্নাকে সঙ্গে নিয়ে সানিয়া অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ফাইনালে ওঠার পর এই প্রশ্নই বড় হয়ে উঠেছে দক্ষিণ এশিয়ার ক্রীড়াপ্রেমীদের মনে। পৃথিবীর এই অঞ্চলের জনপ্রিয় ক্রীড়াবিদদের মধ্যে রয়েছেন সানিয়া, শোয়েব দু’জনেই। ভারত-পাকিস্তানের সম্পর্কের দূরত্ব মুছে ২০১০ সালে বিয়ে করেন তাঁরা। তাঁদের সম্পর্কের পরিণতি উদ্বেল করেছিল দু’দেশে সাধারণ মানুষকে। সেই সম্পর্কের উপহার চার বছরের ইজ়হান মির্জা মালিক। এক রত্তির নামের সঙ্গে জুড়ে রয়েছেন সানিয়া এবং শোয়েবও।

ইজ়হান রয়েছে মায়ের সঙ্গে অস্ট্রেলিয়ায়। বুধবার সানিয়া মিক্সড ডাবলস সেমিফাইনাল জেতার পর ইজ়হান নেমে আসে কোর্টে। মীরপুরের বিলাসবহুল হোটেলের ঘরে শোয়েব কি টেলিভিশনের পর্দায় চোখ রেখেছিলেন? রাখলে দেখতে পেয়েছেন নিজের সন্তানকে। জটিল হয়ে যাওয়া সানিয়া-শোয়েব সম্পর্কের এক মাত্র সলতে ইজ়হান। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ খেলতে ব্যস্ত শোয়েব সমাজমাধ্যমে কিছুই লেখেননি সানিয়ার পারফরম্যান্স নিয়ে। রংপুর রাইডার্সের হয়ে ছ’ম্যাচে ২২৫ রান করা শোয়েব হয়তো সতর্ক ভাবেই দূরত্ব বজায় রেখেছেন। যদিও গত ১৫ নভেম্বর সানিয়ার জন্মদিনে নিজেদের ঘনিষ্ঠ ছবি দিয়ে স্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন শোয়েব।

সানিয়ার ফাইনাল দেখতে শোয়েব মেলবোর্ন যাওয়ার কথাও জানাননি। কারণ, ২৭ জানুয়ারি বিপিএলে তাঁর খেলা রয়েছে। লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগ খেলতে যাওয়ার আগে গত ৪ ডিসেম্বর ছেলের সঙ্গে ভিডিয়ো ভক্তদের সঙ্গে ভাগ করে নিয়েছিলেন শোয়েব। গত ১০ জানুয়ারি সমাজমাধ্যমে ছেলের থেকে দূরে থাকার দুঃখ বাংলাদেশে বসেই পোস্ট করেছিলেন পাক অলরাউন্ডার। পরিবার নিয়ে আর কোনও পোস্ট করেননি শোয়েব। এক রত্তি ইজ়হান এখনও বাবা-মার বিচ্ছেদ আটকে রেখেছে। কাছাকাছি আনতে পারবে কি তাঁদের? মীরপুর-মেলবোর্নের দূরত্ব অতিক্রম করা অসাধ্য নয়। শোয়েব চাইলেই স্ত্রীর টেনিস জীবনের শেষ গ্র্যান্ড স্ল্যাম ফাইনালের সাক্ষী থাকতে পারেন।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.