Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Rafael Nadal: রাজার মতো জয়, উইম্বলডনের কোয়ার্টার ফাইনালে নাদাল

সরাসরি সেটে জিতলেও কিছুটা হলেও পরিশ্রম করতে হয়েছে নাদালকে। শেষ মেশ পঞ্চম ম্যাচ পয়েন্ট কাজে লাগিয়ে জিতলেন তিনি।

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ০৫ জুলাই ২০২২ ০১:৫৭
Save
Something isn't right! Please refresh.
জিতলেন নাদাল।

জিতলেন নাদাল।
ছবি রয়টার্স

Popup Close

স্কোরলাইন হয়তো বলবে রাফায়েল নাদাল স্ট্রেট সেটে জিতে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে গিয়েছেন। কিন্তু যাঁরা সোমবার রাতে ম্যাচ দেখলেন, তাঁরাই বুঝতে পারবেন যে স্প্যানিশ তারকাকে ঘাম ঝরিয়ে, লড়ে জিততে হয়েছে। নেদারল্যান্ডসের ২৬ বছরের খেলোয়াড় বোটিক ফান ডে জান্ডশুপ যে অদম্য, হার-না-মানা মনোভাব দেখালেন ম্যাচের শেষ পয়েন্ট পর্যন্ত, তা মনে থেকে যাবে বহু দিন। শেষ পর্যন্ত নাদাল জিতলেন ৬-৪, ৬-২, ৭-৬ গেমে। উইম্বলডনের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে গেলেন তিনি। এ বার খেলবেন আমেরিকার টেলর ফ্রিৎজের বিরুদ্ধে।

বোটিকের বিরুদ্ধে লড়াই যে কঠিন হবে এটা জানাই ছিল। চলতি বছরে দুর্দান্ত ছন্দে রয়েছেন নেদারল্যান্ডসের এই খেলোয়াড়। অস্ট্রেলিয়ান ওপেন এবং ফরাসি ওপেনের তৃতীয় রাউন্ডে ওঠার পর উইম্বলডনের চতুর্থ রাউন্ড খেলে ফেললেন। শুরুতে কিছুটা হলেও বেগ দিলেন নাদালকে। যে দিকেই নাদাল শট মারছিলেন, বোটিক অতি সহজেই ফিরিয়ে দিচ্ছিলেন। তবে দ্বিতীয় সেটে ছন্দ ফিরে পান নাদাল। নিজের সার্ভিস ধরে রাখার পরেই ব্রেক করেন বোটিককে। এক সময় ৩-০ এগিয়ে যান। বোটিক ম্যাচে ফেরার চেষ্টা করলেও লাভ হয়নি।

Advertisement

তৃতীয় সেটের শুরুতে নাদালকে ব্রেক করেন বোটিক। তবে নাদালকে দেখে এক বারের জন্যও মনে হয়নি, তিনি ঘাবড়ে গিয়েছেন। নিজের পরের দু’টি সার্ভিস ধরে রাখার পর বোটিককে ব্রেক করেন। এগিয়ে যান ৫-২ গেমে। এখান থেকে শুরু হয় হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। তৃতীয় সেটের শুরুটা যত সহজ মনে হয়েছিল, ম্যাচ গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে পরিস্থিতি ততটাই বদলাতে থাকে। বোটিক আবার ব্রেক করেন নাদালকে। ২-৫ পিছিয়ে থেকে ৫-৫, এমনকি কিছু ক্ষণ পরে ৬-৬ করে খেলা নিয়ে যান টাইব্রেকারে। উইম্বলডনের সেন্টার কোর্টের দর্শকরা তখন নড়েচড়ে বসেছেন। নাদাল প্রথম দু’টি রাউন্ডে সেট খুইয়েছিলেন। এই রাউন্ডেও কি তাঁকে সেট খোয়াতে হবে? কোনও কোনও দর্শককে দেখা যায় উত্তেজনায় হাতের নখ খুঁটতে শুরু করেছেন।

তবে যিনি ২২টি গ্র্যান্ড স্ল্যামের মালিক, গত ১৯ বছর ধরে দাপটের সঙ্গে খেলে আসছেন, তাঁকে কি এত সহজে চাপে ফেলা যায়? নাদাল ম্যাচে ফিরলেন রাজার মতোই। বোটিক যতই তাঁকে লম্বা র‌্যালি খেলে চাপে ফেলার চেষ্টা করুন, নাদাল কোনও ফাঁদে পা দেননি। চারটি ম্যাচ পয়েন্ট বাঁচিয়েছেন বোটিক। কিন্তু পঞ্চম ম্যাচ পয়েন্ট কাজে লাগিয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করে ফেলেন নাদাল। বোটিকের উঁচু করে মারা ব্যাক হ্যান্ড লাইনের বাইরে যেতেই দু’হাত তুলে উচ্ছ্বাসে মাতলেন স্পেনের খেলোয়াড়।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement