Advertisement
২৪ জুলাই ২০২৪
Cobra

Cobra: মেঝে খুঁড়তেই বেরিয়ে এল ঝাঁকে ঝাঁকে বাচ্চা কেউটে! গ্রামবাসীরা পিটিয়ে মারল ৪২টিকে

কেউটে ভারতীয় বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইনের ২ নম্বর তফসিল-ভুক্ত সংরক্ষিত প্রজাতি। তাদের মারা বা ধরা দণ্ডনীয় অপরাধ।

পিটিয়ে মারা কেউটে শাবকের দল।

পিটিয়ে মারা কেউটে শাবকের দল। নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
বারাসত শেষ আপডেট: ১৬ অক্টোবর ২০২১ ১৬:৫৫
Share: Save:

কথায় বলে, ‘জাত সাপের শেষ রাখতে নেই’। শনিবার সকালে উত্তর ২৪ পরগনার আমডাঙ্গার একটি বাড়িতে কেউটের বাসার খোঁজ পেয়ে তাই ‘সময় নষ্ট’ করেননি স্থানীদের একাংশ। একে একে বার করে পিটিয়ে মারা হয় ৪২টি কেউটে শিশুকে। নষ্ট করে ফেলা হয় বাসায় মেলা কয়েকটি ডিমও।

স্থানীয় সূত্রের খবর, রায়পুর গ্রামের ওই পুরনো পরিত্যক্ত মাটির বাড়িটি সংস্কারের জন্য মেঝের মাটি কাটছিলেন মালিক আরিফ মিস্ত্রি। সে সময় নজরে আসে সাপের গর্ত। আরিফ বলেন, ‘‘হঠাৎ দেখি গর্তের মধ্যে থেকে এক সঙ্গে অনেকগুলি সাপের বাচ্চা বেরিয়ে আসছে।’’

ঘটনা কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়। স্থানীয়দের করেকজন কেউটের বাচ্চাগুলির বার করে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে মারেন। ওই মাটির ঘরের মেঝের গর্তে আরও বিষাক্ত সাপ রয়েছে বলে দাবি স্থানীয়দের। আপাতত মাটি কাটার কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন আরিফ।

স্থানীয়দের একাংশ জানিয়েছেন, বন দফতরে খবর দেওয়া হয়েছে। যদিও উত্তর ২৪ পরগনা বনবিভাগ সূত্রের খবর, শনিবার বিকেল পর্যন্ত এ বিষয়ে কোনও খবর এসে পৌঁছয়নি। রাজ্য বন দফতরের এক আধিকারিক বলেন, ‘‘কেউটে ভারতীয় বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইনের ২ নম্বর তফসিল-ভুক্ত সংরক্ষিত প্রজাতি। তাদের মারা বা ধরা দণ্ডনীয় অপরাধ।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE