Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

সুন্দরবনে যাত্রীবোঝাই নৌকায় আগুন

আগুন দেখে বিপদ বুঝতে পারেন যাত্রীরা। ৩৫ জন পর্যটক ও ৫ জন কর্মীক সকলেই নদীতে ঝাঁপ দিতে শুরু করেন। সেই সঙ্গে তাঁরা সাহায্যের জন্য চিৎকার করতে

নিজস্ব সংবাদদাতা
বারুইপুর ১৩ ডিসেম্বর ২০২০ ২২:০২
পর্যটকদের বোটে আগুন। নিজস্ব চিত্র।

পর্যটকদের বোটে আগুন। নিজস্ব চিত্র।

সুন্দরবনে বেড়াতে যাওয়ার পথে ভয়াবহ আগুনে ভস্মীভূত পর্যটকদের নৌকা। বনকর্মী ও পুলিশের তৎপরতায় প্রাণ বাঁচল পর্যটকদের। রবিবার সুন্দরবনের আজমলমারি জঙ্গলের ঘটনা। পুলিশ জানিয়েছে নৌকায় থাকা মোট ৪০ জনকেই নিরাপদে উদ্ধার করা গিয়েছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার উত্তর ২৪ পরগনার বারাসাত থেকে ৩৫ জন পর্যটক নিয়ে সুন্দরবন রওনা দেয় ‘মা সর্বমঙ্গলা’ নামের নামখানার একটি নৌকা। দুপুরে রামগঙ্গা থেকে বন দফতরের অনুমতি নিয়ে পর্যটকদের নৌকাটি সুন্দরবনের বনি ক্যাম্পের দিকে যাচ্ছিল। সেই সময় পর্যটকদের জন্য বোটে গ্যাস জ্বালিয়ে রান্না চলছিল। আচমকা গ্যাস সিলিন্ডার লিক করে আগুন ছড়াতে শুরু করে।

আগুন দেখে বিপদ বুঝতে পারেন যাত্রীরা। ৩৫ জন পর্যটক ও ৫ জন কর্মীক সকলেই নদীতে ঝাঁপ দিতে শুরু করেন। সেই সঙ্গে তাঁরা সাহায্যের জন্য চিৎকার করতে থাকেন। কিছুটা দূরে মৎস্যজীবীদের নৌকা থেকে শোনা যায় সেই চিৎকার। মৎস্যজীবীরা নৌকা নিয়ে এগিয়ে আসেন। তাঁরাই উদ্ধার শুরু করেন। একই সঙ্গে খবর যায় মৈপিঠ উপকূল থানার পুলিশ ও স্থানীয় বনকর্মীদের কাছে। তারাও স্পিড বোট নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে যান। বেশ কিছুক্ষণের চেষ্টায় ৪০ জনকেই উদ্ধার করে বনি ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়া হয়।

Advertisement

জল ঢেলে দুর্ঘটনাগ্রস্ত বোটের আগুন নেভানোর চেষ্টা হয়। তবে ততক্ষণে আগুনে ভস্মীভূত হয়ে যায় নৌকার বেশির ভাগ অংশই।

বারুইপুর পুলিশ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সাধারণ) ইন্দ্রজিৎ বসু জানিয়েছেন, “পর্যটকদের সবাই সুস্থ রয়েছেন। দ্রুত তাঁদের বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্থা করা হয়।”

আরও পড়ুন

Advertisement