Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২১ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

বউ ফেরত চেয়ে শ্বশুরবাড়ির সামনে ধর্নায় যুবক

নিজস্ব সংবাদদাতা
অশোকনগর ০৫ ডিসেম্বর ২০২০ ১৬:৫৭
স্ত্রীকে ফেরত চেয়ে ধর্নায় সৌমেন।—নিজস্ব চিত্র।

স্ত্রীকে ফেরত চেয়ে ধর্নায় সৌমেন।—নিজস্ব চিত্র।

সাত বছর ধরে সম্পর্ক। রেজিস্ট্রিও সেরে ফেলেছেন। কিন্তু মানছে না শ্বশুরবাড়ি। মেয়েকে আটকে রেখে দিয়েছে তারা। চোখের দেখাও দেখতে দিচ্ছে না। অগত্যা শ্বশুরবাড়ির সামনে ধর্নায় বসলেন যুবক। তাঁর দাবি, বউ ফেরত চাই। অন্যথায় ফিরিয়ে দিতে হবে তাঁর জীবনের সাত-সাতটি বছর। উত্তর ২৪ পরগনার দেবীনগর থেকে এ বার এমনই ঘটনা সামনে এল।

স্বামীর সঙ্গে সংসার করতে চেয়ে শ্বশুরবাড়ির সামনে ধর্নায় মহিলা, এর আগে একাধিক বার এমন ঘটনা সামনে এসেছে। কিন্তু স্ত্রীকে ফিরে পেতে মরিয়া স্বামী শ্বশুরবাড়ির সামনে হত্যে দিয়ে পড়ে রয়েছেন, এমন দৃশ্য দেখে অবাক স্থানীয় বাসিন্দারা। কাকে সমর্থন করবেন ভেবে কূল পাচ্ছেন না তাঁরা।

শ্বশুরবাড়ির সামনে ধর্নায় বসা ওই যুবকের নাম সৌমেন দত্ত। অশোকনগরের মানিকতলায় বাড়ি তাঁর। দেবীনগরের গার্গীর সঙ্গে দীর্ঘ সাত বছরের সম্পর্ক তাঁর। শুরু থেকেই এই সম্পর্কে আপত্তি ছিল গার্গীর পরিবারের। সৌমেনের দাবি, বাড়ির অমত থাকায় গার্গী নিজেই রেজিস্ট্রি বিয়ে করতে চান। সেই মতো কয়েক বছর আগে আইনি বিয়ে‌ সেরে ফেলেন তাঁরা।

Advertisement

আরও পড়ুন: কৃষি আইন নিয়ে বিজেপি বিরোধিতায় আঞ্চলিক দলগুলির জোট চান মমতা​

তবে রেজিস্ট্রি হয়ে গেলেও, কাউকে কিছু জানাননি সৌমেন ও গার্গী। যে যাঁর বাড়িতেই থাকতেন তাঁরা। সময় মতো সবকিছু প্রকাশ করবেন ভেবেছিলেন দু’জনে। সৌমেনের দাবি, রেজিস্ট্রির পর থেকে গার্গীর পড়াশোনা-সহ যাবতীয় খরচ জুগিয়ে গিয়েছেন তিনি। কিন্তু কিছু দিন আগে থেকে তাঁর সঙ্গে আর মেয়েকে দেখা করতে দিচ্ছেন না গার্গীর পরিবারের লোকজন। সাত বছরের সম্পর্ক তো বটেই, তাঁদের আইনি বিয়েকেও অস্বীকার করছেন তাঁরা। তাই শ্বশুরবাড়ির সামেন ধর্নায় বসা ছাড়া আর কোনও উপায় ছিল না তাঁর।

গার্গীর পরিবার যদিও সৌমেনের দিকেই পাল্টা আঙুল তুলেছেন। মেয়েটির মায়ের অভিযোগ, মেয়েকে ভুলিয়ে ভালিয়ে রেজিস্ট্রি করেছেন সৌমেন। সৌমেন মাত্র উচ্চমাধ্যমিক পাশ। তেমন রোজগারও নেই তাঁর। তাঁরা এই সম্পর্ক মানেন না। গার্গী এখন পড়াশোনা করছেন। উচ্চশিক্ষিত হয়ে ভাল চাকরি করবেন। সৌমেনের সঙ্গে কোনও ভাবেই তাঁর জীবন মিলবে না।

তবে শ্বশুরবাড়ি প্রত্যাখ্যান করলেও, নাছোড়বান্দা সৌমেন। তাঁর সাফ কথা, ‘‘তাহলে আমার জীবনের সাত বছর ফিরিয়ে দিতে হবে। কোনও মহিলার সঙ্গে এমন ঘটলে যেমন ব্যবস্থা নেওয়া হয়। আমার ক্ষেত্রেও তেমন ব্যবস্থা নিতে হবে। আমার ন্যায্য বিচার চাই।’’

আরও পড়ুন: কোভ্যাক্সিন নেওয়ার পর করোনা ধরা পড়ল হরিয়ানার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

রেজিস্ট্রি করে যখন বিয়ে হয়েছে এবং মেয়েটির পরিবারও যখন রেজিস্ট্রির কথা অস্বীকার করছেন না, সে ক্ষেত্রে গার্গী প্রাপ্তবয়স্ক বলেই মনে করা হচ্ছে। স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় অশোকনগর থানার পুলিশ। কিন্তু এখনও পর্যন্ত সৌমেনের কাছে গার্গীকে ফেরানো যায়নি। বরং গার্গীর পরিবার তাঁকে ফোনে হুমকি দিচ্ছেন বলেও অভিযোগ করেছেন সৌমেন।

আরও পড়ুন

Advertisement