×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৯ মে ২০২১ ই-পেপার

ঝোপে ‘ফেলা হল’ সদ্যোজাতকে, অভিযুক্ত পরিবার

নিজস্ব সংবাদদাতা
২১ এপ্রিল ২০২০ ০৪:০৯
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

কুকুরদের পাহারায়, ঝোপের আড়াল থেকে পাওয়া গেল সদ্যোজাত এক শিশুকন্যাকে। এই ঘটনায় তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়েছে নিউ ব্যারাকপুর এলাকায়। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, এলাকারই একটি পরিবার শিশুটিকে ওই ভাবে ফেলে গিয়েছে। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করে ওই পরিবারের দাবি, শিশুটিকে এক মহিলার হাতে তুলে দিয়েছেন তাঁরা। ঝোপে ফেলে আসা হয়নি।

শনিবার গভীর রাতে নিউ ব্যারাকপুর পুরসভার ২০ নম্বর ওয়ার্ডের বিদ্যাসাগরপল্লিতে রাস্তার পাশে একটি ঝোপের ভিতর থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করেন স্থানীয় এক গৃহবধূ। বর্তমানে সে তাঁর কাছেই রয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রতিমা বালা নামে ওই মহিলা যখন শিশুটিকে উদ্ধার করেন, তখন তিনটি কুকুর তাকে ঘিরে পাহারা দিচ্ছিল। বাড়ি ফিরে শিশুটির পরিচর্যা করে তাকে সুস্থ করে তোলেন প্রতিমা। রবিবার তিনি বিষয়টি স্থানীয় কাউন্সিলর ও পুলিশকে জানান। সোমবার প্রতিমা বলেন, ‘‘লকডাউন ওঠা পর্যন্ত আমাকেই শিশুটির দেখভাল করতে বলেছেন ওঁরা।’’ এ দিন ওই এলাকার আরও কয়েক জন মহিলা মিলে শিশুটিকে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান।

Advertisement

পেশায় আয়া প্রতিমার স্বামী ১২ বছর ধরে শয্যাশায়ী। চার ছেলে-মেয়ে ও স্বামীকে নিয়ে ওই এলাকার একটি ভাড়া বাড়িতে থাকেন তিনি। এ দিন স্থানীয় কাউন্সিলর অর্চনা সেন বলেন, ‘‘শিশুটিকে উদ্ধারের পরে আমাদের খবর দেন প্রতিমা। আপাতত ওঁকেই বাচ্চাটির দেখভাল করতে বলা হয়েছে।’’

এলাকার বাসিন্দাদের অভিযোগ, স্থানীয় একটি পরিবারই শিশুটিকে ঝোপে ফেলে এসেছে। এ দিন অবশ্য ওই পরিবারের সদস্যেরা এমন অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন। তাঁদের দাবি, প্রতিমার কাছে শিশুটিকে রেখেছেন তাঁরা। কারণ, শিশুটির মায়ের বয়স মাত্র ১৯। সামাজিক মতে এখনও তাঁর বিয়ে হয়নি। এই অবস্থায় শিশুটিকে রাখা সম্ভব নয়। যদিও এই দাবি উড়িয়ে দিয়েছেন এলাকার মানুষ এবং প্রতিমা নিজেও। গোটা ঘটনার তদন্ত করছে নিউ ব্যারাকপুর থানার পুলিশ।

Advertisement