×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৮ মে ২০২১ ই-পেপার

বন্ধুর স্ত্রীকে ধর্ষণের নালিশ, ধৃত

নিজস্ব সংবাদদাতা
অশোকনগর ১১ জুলাই ২০১৮ ০৪:১৫
ধৃত: বাপ্পা নাথ। নিজস্ব চিত্র

ধৃত: বাপ্পা নাথ। নিজস্ব চিত্র

বন্ধুকে মদ খাইয়ে বেহুঁশ করে তাঁর স্ত্রীকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠল এক যুবকের বিরুদ্ধে। রবিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে অশোকনগর থানা এলাকার গুমা কালীনগরে। ওই মহিলা সোমবার থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। সোমবার রাতেই পুলিশ নাম বাপ্পা নাথ নামে অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করে। তার বাড়ি গুমা কালীনগর এলাকায়। ধৃতকে মঙ্গলবার বারাসত জেলা আদালতে তোলা হলে বিচারক ধৃতকে দু’দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন। অশোকনগর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে মহিলার ডাক্তারি পরীক্ষা করানো হয়েছে। মঙ্গলবার তিনি আদালতে গোপন জবানবন্দিও দিয়েছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বাপ্পা ও ওই মহিলার স্বামী কর্মসূত্রে পূর্ব পরিচিত। দুই পরিবারের মধ্যে যাতায়াতও ছিল। রবিবার রাতে বাপ্পা বন্ধু ও তাঁর স্ত্রীকে বাড়িতে নিমন্ত্রণ করে। মাছ-মাংস রান্না হয়। বন্ধুর সঙ্গে বসে মদ্যপান করে বাপ্পা। অভিযোগ, বন্ধুর স্ত্রীকেও জোর করে সামান্য মদ খাইয়ে দেয় সে। ততক্ষণে বেহুঁশ হয়ে পড়েছেন তরুণীর স্বামী।

মহিলা পুলিশকে জানিয়েছেন, তিনি প্রথমে মদ খেতে চাননি। কিন্তু বাপ্পার জোরাজুরিতে সামান্য মদ খেতে বাধ্য হন। কিন্তু মদ মুখে দিতেই মাথা ঘুরতে থাকে তাঁর। কিছুটা বেসামাল হয়ে পড়েন। সেই সুযোগে বাপ্পা তাঁকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ। মহিলা পুলিশকে জানিয়েছেন, তিনি স্বামীকে ডেকেছিলেন। কিন্তু স্বামীর হুঁশ ফেরেনি।

Advertisement

পুলিশ জানতে পেরেছে, ঘটনার সময়ে বাপ্পার বাড়িতে কেউ ছিল না। স্ত্রীকে সে শ্বশুরবাড়িতে পাঠিয়ে দিয়েছিল। প্রাথমিক তদন্তের পরে পুলিশের অনুমান, গোটা ঘটনাটাই বাপ্পার পূর্ব পরিকল্পিত।

ওই দম্পতির অনুমান, মদের সঙ্গে কিছু মিশিয়ে দিয়েছিল বাপ্পা। সে জন্যই বেহুঁশ হয়ে গিয়েছিলেন ওই মহিলার স্বামী। পুলিশ জানায়, রাতেই মহিলা বাড়ি ফিরে আসতে চেয়েছিলেন। কিন্তু স্বামীর হুঁশ না ফেরায় তা সম্ভব হয়নি। সারা রাত তিনি জেগেই কাটান। সোমবার সকালে স্বামীর ঘুম ভাঙলে বড় বামনিয়ায় বাড়ি ফিরে স্ত্রী তাঁকে ঘটনার কথা জানান। তারপরেই অভিযোগ দায়ের হয় থানায়।

Advertisement