Advertisement
১৬ জুন ২০২৪
Adhir Ranjan Chowdhury

স্মরণ কমিটিতে আসার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই নেতাজি নিয়ে মোদীকে তোপ অধীরের

শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের নামে কলকাতা বন্দরের নামকরণ হয়েছে। বন্দরের অধীনে রয়েছে নেতাজি সুভাষ ডক-ও।

সাংবাদিকদের মুখোমুখি অধীর চৌধুরী। নিজস্ব চিত্র

সাংবাদিকদের মুখোমুখি অধীর চৌধুরী। নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
বহরমপুর শেষ আপডেট: ১০ জানুয়ারি ২০২১ ১৬:২৯
Share: Save:

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ‘নেতাজি-স্মরণ’ নিয়ে তাঁকে বিঁধলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি তথা লোকসভায় কংগ্রেসের নেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরী। ঘটনাচক্রে, নেতাজি সুভাষের ১২৫তম জন্মবার্ষিকী উদ্‌যাপনের জন্য মঙ্গলবার যে বিশেষ কমিটি গঠিত হয়েছে, সেখানেই একযোগে ঠাঁই পেয়েছেন শাসক তৃণমূল ও বিরোধী বাম এবং কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্ব। এই কমিটিতে অধীরও রয়েছেন।

শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের নামে কলকাতা বন্দরের নামকরণ হয়েছে। বন্দরের অধীনে রয়েছে নেতাজি সুভাষ ডক-ও। এই ঘটনা উল্লেখ করে রবিবার অধীরের ব্যাখ্যা, ‘‘ভোটের সময় নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু বা রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের মতো মনীষীকে স্মরণ আসলে বিজেপির কৌশল।’’ শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের নামে বন্দরের নামকরণ করে বিজেপি সরকার নেতাজিকে ‘অপমান’ করেছে বলেও মনে করছেন অধীর।

নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মবার্ষিকী উদ্‌যাপন করতে মোদীর ঘোষিত কমিটি নিয়েও তাঁকে আক্রমণ করলেন অধীর। বহরমপুরের সাংসদের অভিযোগ, ‘‘কোনও দিন কেউ নেতাজির কথা মনে করেনি।’’

আরও পড়ুন: বিনামূল্যে করোনার টিকা দিতে চান মমতা, খরচ নিয়ে প্রশ্ন

আরও পড়ুন: চাকরি না পেয়ে হোম ডেলিভারি শিক্ষিত ছেলের, অবসাদে আত্মঘাতী হলেন বৃদ্ধ দম্পতি?

গত বছর জানুয়ারিতেই কলকাতা বন্দরের নামকরণ হয় শ্যামাপ্রসাদের নামে। বন্দরের অধীনে রয়েছে নেতাজি সুভাষ ডক-ও। প্রধানমন্ত্রী কী ভাবে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর নামের উপরে শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়কে চাপিয়ে দিয়ে গেলেন, তা নিয়ে সে সময় প্রশ্ন তোলে বাম এবং কংগ্রেস। রবিবার সেই বিতর্কই ফের খুঁচিয়ে তুলেছেন অধীর। তাঁর বক্তব্য, ‘‘সরকার নতুন ডক বা বন্দর বানিয়ে শ্যামাপ্রসাদের নামে করতে পারত। কিন্তু তা করেনি। এর থেকে বড় অপমান নেতাজিকে আর কেউ করেনি।’’ একই সঙ্গে বিজেপিকে নিশানা করে অধীরের তোপ, ‘‘ওরা ভোটপাখি। এখন ভোটের সময় বলেই নেতাজি, রবীন্দ্রনাথ, দক্ষিণেশ্বর মন্দিরের কথা মনে পড়ছে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE