×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৬ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

ভোটের অনু-টোটকা কী হবে? ‘গোপন মেনু’, বললেন অনুব্রত

নিজস্ব সংবাদদাতা
বীরভূম০৭ নভেম্বর ২০২০ ১৭:২৩
অনুব্রত মণ্ডল। নিজস্ব চিত্র।

অনুব্রত মণ্ডল। নিজস্ব চিত্র।

চেনা অনুব্রত মণ্ডল এখন অনেকটাই অচেনা। ভোটের ‘টোটকা’ দেওয়ার জন্য বিখ্যাত তৃণমূলের বীরভূম জেলা সভাপতি এ বার বেশ সতর্ক। বিধানসভা নির্বাচন কাছাকাছি এসে গেলেও এখনও ‘টোটকা’ জানাতে নারাজ তিনি।

রাজ্যে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সফর শেষ হয়েছে শুক্রবার রাতে। আর সেই দিন রাতেই অমিতের বিভিন্ন বক্তব্যের সমালোচনা করতে সাংবাদিক বৈঠক করেন অনুব্রত। সেখানেই প্রশ্ন ওঠে— এ বার বিধানসভা নির্বাচনে কী হবে কেষ্টদা-র টোটকা? উত্তরে সতর্ক অনুব্রত বলেন, ‘‘কবে বিয়ে হবে, তার পর ভোজ, এখন থেকে বলে দিলে হবে? ভোট ঘোষণা হোক, তার পর বলে দেব।’’

পঞ্চায়েত ভোট থেকে লোকসভা নির্বাচন সবেতেই তৃণমূল কর্মীদের উদ্দেশে দেওয়া অনুব্রতর ‘টোটকা’ নিয়ে সরগরম হয়েছে রাজ্য রাজনীতি। অতীতে কখনও শুনিয়েছেন ‘চড়াম চড়াম’ বাদ্যি আবার কখনও বলছেন, ভোটের দিন সকলের জন্য ‘গুড়বাতাসা’ থাকবে। ২০১৮ সালে তাঁরই বাণী ‘ভোটের দিন রাস্তায় উন্নয়ন দাঁড়িয়ে থাকবে’ নিয়ে বিস্তর জলঘোলা হয়েছিল। অনুব্রতর অন্যতম বড় পরিচয় হল, তিনি মুখ খুললেই ‘হিট ডায়লগ’ মেলে। অতীতে ভোটের আগে বলছেন, বিরোধীদের জন্য ‘নকুলদানা রেডি’ কিংবা দলীয় কর্মীদের হাতে ‘পাঁচন’ তুলে দেবেন। কখনও রাজনৈতিক বিরোধীর বাড়িঘর ভেঙে ‘চুরমার’ করে দেবেন বলছেন। কখনও ‘শুঁটিয়ে লাল’ করে দেওয়ার দাওয়াই বাতলাচ্ছেন। প্রতি বার তাঁর বক্তব্য রাজনৈতিক ময়দান থেকে সোশ্যাল মিডিয়া সর্বত্র ঝড় তুলেছে।

Advertisement

কিন্তু এ বার তিনি এত সতর্ক কেন? তৃণমূল সূত্রের খবর, সর্বোচ্চ নেতৃত্বের তরফে কড়া বার্তা পৌঁছেছে কেষ্টর কাছে। কথাবার্তায় রাশ টানার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে তাঁকে।

Advertisement