Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৭ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

কৃষ্ণদেবপুরে টসের মাধ্যমে বেছে নেওয়া হল পঞ্চায়েত প্রধান!

দলের নির্দিষ্ট করে দেওয়া কোনও নাম নয়, কালনার কৃষ্ণদেবপুর পঞ্চায়েতে প্রধান বেছে নেওয়া হল টসের মাধ্যমে। এই ঘটনার পরে পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনে দলে

নিজস্ব সংবাদদাতা
কালনা ২৯ অগস্ট ২০১৮ ০৩:৩০
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

দলের নির্দিষ্ট করে দেওয়া কোনও নাম নয়, কালনার কৃষ্ণদেবপুর পঞ্চায়েতে প্রধান বেছে নেওয়া হল টসের মাধ্যমে। এই ঘটনার পরে পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনে দলের কর্মীদের উপরে তৃণমূলের নেতৃত্বের কর্তৃত্ব নিয়ে ফের প্রশ্ন উঠল জেলায়।

জেলা তৃণমূল সূত্রে জানা যায়, পঞ্চায়েতের পদাধিকারীদের বাছতে এ বার বিধানসভা এলাকা ধরে একটি করে কমিটি গড়ে দেওয়া হয়েছে। এই কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী সম্প্রতি কালনা ২ ব্লকে সব ক’টি পঞ্চায়েতে বোর্ড গড়া হয়েছে। মঙ্গলবার ছিল কালনা ১ ব্লকের কৃষ্ণদেবপুর পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠন। এই পঞ্চায়েতে ১৪টি আসনের সব ক’টিতেই জিতেছেন তৃণমূল প্রার্থীরা।

তৃণমূল সূত্রে জানা যায়, পঞ্চায়েতে প্রধান পদটি এ বার মহিলাদের জন্য সংরক্ষিত। কে প্রধান হবেন, এ নিয়ে শুরু থেকেই দু’টি গোষ্ঠীর মধ্যে চাপান-উতোর চলছিল। দলীয় নেতৃত্বও প্রধান ঠিক করে দিতে পারেননি বলে স্থানীয় তৃণমূল নেতা-কর্মীদের দাবি। এ দিন কৃষ্ণদেবপুরে হাজির ছিলেন বিদায়ী জেলা সভাধিপতি দেবু টুডু, কালনার বিধায়ক বিশ্বজিৎ কুণ্ডু, কালনা ১ ব্লক তৃণমূল সভাপতি উমাশঙ্কর সিংহরায়। এ দিন প্রধান ঘোষণার আগে দলের ১৪ জন সদস্যের সঙ্গে বৈঠকও করেন দেবুবাবু।

Advertisement

আরও পড়ুন: বিজেপি-সিপিএমের দিকেই তির মমতার

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ১৪ জন সদস্য পঞ্চায়েতের কক্ষে শপথ গ্রহণ করেন। তবে প্রধান হিসাবে দু’টি নামের প্রস্তাব আসে— দময়ন্তী কীর্তনিয়া ও রুমা দত্ত। দু’টি পক্ষ হয়ে যাওয়ার পরেই বিডিও-র প্রতিনিধি জানিয়ে দেন, ভোটাভুটি হবে। কিন্তু তাতেও দেখা যায়, দু’পক্ষই সাতটি করে ভোট পেয়েছে। তাই প্রধান বাছতে টস করা হয়। টসে জিতে প্রধান হন রুমাদেবী। উপপ্রধান পদে অবশ্য সর্বসম্মত ভাবে নির্বাচিত হন আব্দুল সালাম শেখ।

প্রধান নির্বাচন নিয়ে আগ্রহ থাকায় পঞ্চায়েতের আশপাশে ভিড় জমান অনেকে। মোতায়েন ছিল পুলিশের বড় বাহিনীও। টস করে প্রধান নির্বাচনের ঘটনার পরে প্রশ্ন উঠেছে দলের কর্তৃত্ব নিয়েও। কেন আগে প্রধান বাছাই করা গেল না, তার কোনও সদুত্তর নেতাদের কাছে মেলেনি। কালনার বিধায়ক বিশ্বজিৎবাবু বলেন, ‘‘যা বলার দেবুদা বলবেন।’’ দেবুবাবুর বক্তব্য, ‘‘গণতান্ত্রিক পদ্ধতি মেনেই প্রধান, উপপ্রধান নির্বাচন হয়েছে।’’



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement