Advertisement
২২ জুলাই ২০২৪
West Bengal Assembly

মঙ্গলে সিএজির পর বুধে নারী নির্যাতন! বিজেপির তোলা আলোচনার দাবি ঘিরে হইচই বিধানসভায়

সম্প্রতি মালদহ এবং দিঘায় ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। যা নিয়ে রাজ্য-রাজনীতিতে শোরগোল পড়ে গিয়েছে। দোষীদের শাস্তির দাবিতে পথে নেমেছে বিজেপি।

BJP Agitation at West Bengal Assembly but TMC unwilling to care

বিধানসভায় বিক্ষোভ বিজেপি বিধায়কদের। — নিজস্ব চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১৪:৫৩
Share: Save:

সিএজি রিপোর্টের পর এ বার নারী নির্যাতনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তাল হয়ে উঠল রাজ্য বিধানসভা। মঙ্গলবার বিজেপি বিধায়কেরা সিএজি রিপোর্ট নিয়ে আলোচনা চেয়েছিলেন। কিন্তু স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় সেই দাবি না মানায় বিধানসভার বাইরে বিক্ষোভ দেখান তাঁরা। বুধবারও একই ঘটনা ঘটল। রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় নারী নির্যাতনের ঘটনার আলোচনা করতে চেয়ে অধিবেশন মুলতুবির প্রস্তাব আনে বিজেপি। তবে স্পিকার প্রস্তাব খারিজ করে দেওয়ায় ক্ষোভপ্রকাশ করেন বিজেপি বিধায়কেরা।

সম্প্রতি মালদহ এবং দিঘায় ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। যা নিয়ে রাজ্য-রাজনীতিতে শোরগোল পড়ে গিয়েছে। দোষীদের শাস্তির দাবিতে পথে নেমেছে বিজেপি। রাজ্যের পুলিশ-প্রশাসনের বিরুদ্ধে সুর চড়াচ্ছে তারা। বুধবার সেই আঁচ এসে পড়ল বিধানসভার অন্দরে। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে নারী নির্যাতনের ঘটনা নিয়ে আলোচনা চেয়ে অধিবেশন মুলতুবির প্রস্তাব আনেন বিজেপি বিধায়ক মালতী রাভা ও অগ্নিমিত্রা পাল।

বিজেপি বিধায়কদের এই প্রস্তাব খারিজ করে দেন বিধানসভার স্পিকার। প্রস্তাব খারিজ হতেই বিধানসভা কক্ষের মধ্যেই স্লোগান দিতে শুরু করেন বিজেপি বিধায়কেরা। অধিবেশন চলাকালীন বিজেপির বিক্ষোভে বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়। স্পিকার সকলকে শান্ত থাকার আর্জি জানান। কিন্তু বিজেপি বিধায়কেরা তাতে কর্ণপাত করেননি। তার পর তাঁরা বিধানসভা কক্ষ থেকে বেরিয়ে এসে গেটের সামনে বিক্ষোভ দেখান।

বিজেপি বিধায়ক অগ্নিমিত্রা বলেন, “শুধু জল বা রাস্তা নিয়ে কথা বলতে আসিনি। নারীসুরক্ষা তলানিতে ঠেকেছে। ধর্ষণ করে খুন নিয়ে বিচার হবে না? আলোচনা হবে না?” তাঁর সঙ্গেই সুর মেলান বাকি বিধায়কেরাও। তাঁদের দাবি, এ ভাবে চলতে থাকলে বিধানসভার বাজেট অধিবেশন বয়কট করবেন তাঁরা। এ নিয়ে তাঁরা রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বের সঙ্গে কথা বলবেন। রাজ্যে যে নারী নির্যাতনের ঘটনা ঘটছে তা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিবৃতিরও দাবি করছে বিজেপি। এমনকি, স্পিকারকে কালো পতাকাও দেখিয়েছেন বিজেপি বিধায়কেরা।

বিজেপির বিরুদ্ধে পাল্টা স্লোগান দেন তৃণমূলের বিধায়কেরাও। তবে বিধানসভায় বিজেপির এই ‘হাঙ্গামা’কে বিশেষ পাত্তা দিতে নারাজ তৃণমূল। তৃণমূলের পরিষদীয় দলের মুখ্য সচেতক নির্মল ঘোষ বলেন, ‘‘বিজেপি পরিষদীয় দলের কোনও লক্ষ্য নেই। সদনে আসেই হাঙ্গামা করতে। নিজের এলাকার কিংবা রাজ্যের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিভিন্ন প্রশ্ন জমা দিয়েও আলোচনায় অংশ নেন না বিজেপি বিধায়কেরা। মানুষ তাঁদের যার জন্য বিধানসভায় পাঠিয়েছেন, সেই কাজ করছেন না তাঁরা। হাঙ্গামা করে শুধু সংবাদমাধ্যমে ভেসে থাকতে চায় বিজেপি। আমরা ওদের হাঙ্গামা রাজনীতিকে গুরুত্ব দিই না।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

West bengal Assembly BJP
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE