Advertisement
০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Abhishek Banerjee

অভিষেকের সভা হবে, তবে শান্তিকুঞ্জের ‘শান্তি’ নিশ্চিত করবে পুলিশ, নির্দেশ হাই কোর্টের

বিচারপতি রাজাশেখর মান্থা নির্দেশ দিয়েছেন, শুভেন্দু এবং তাঁর বাবা শিশির অধিকারীর অনুমতি ছাড়া কেউ যাতে শান্তিকুঞ্জে প্রবেশ করতে না পারেন তা নিশ্চিত করতে হবে পুলিশকে।

কাঁথিতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘মেগা শো’-র বিরুদ্ধে কলকাতা হাই কোর্টে মামলা করেছিলেন শুভেন্দু অধিকারীর।

কাঁথিতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘মেগা শো’-র বিরুদ্ধে কলকাতা হাই কোর্টে মামলা করেছিলেন শুভেন্দু অধিকারীর। গ্রাফিক: সনৎ সিংহ।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০১ ডিসেম্বর ২০২২ ১৫:১৫
Share: Save:

গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় সভা আটকানো যায় না। তবে সভা বা সমাবেশের নামে কারও ব্যক্তি স্বাধীনতা যাতে খর্ব না হয় তা-ও নজরে রাখা প্রয়োজন। কাঁথিতে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা নিয়ে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর করা মামলায় বৃহস্পতিবার এই মন্তব্য করল কলকাতা হাই কোর্ট।

Advertisement

বিচারপতি রাজাশেখর মান্থা নির্দেশ দিয়েছেন, শুভেন্দু এবং তাঁর বাবা শিশির অধিকারীর অনুমতি ছাড়া কেউ যাতে শান্তিকুঞ্জে প্রবেশ করতে না পারেন তা নিশ্চিত করতে হবে পুলিশকে। তিনি বলেন, ‘‘গণতান্ত্রিক দেশে সভা আটকানো যায় না। কাঁথি প্রভাত কুমার কলেজ মাঠেই সভা করতে পারবে তৃণমূল। তবে শব্দবিধি মেনে শান্তিপূর্ণ ভাবে সভা করতে হবে।’’

শুভেন্দু বৃহস্পতিবার হাই কোর্টে অভিযোগ জানিয়েছিলেন, তাঁর পরিবারের সদস্যদের হেনস্থা করার উদ্দেশ্যেই আগামী শনিবার (৩ ডিসেম্বর) বাড়ির ১০০ মিটারের মধ্যে কাঁথি প্রভাতকুমার কলেজের মাঠে সভা করছে তৃণমূল। এ বিষয়ে স্থানীয় থানা এবং পুলিশ সুপারের কাছে অভিযোগ জানিয়েও কাজ হয়নি বলে আদালতে অভিযোগ করেন নন্দীগ্রামের বিজেপি বিধায়ক। কিন্তু অভিষেকের সভায় নিষেধাজ্ঞা জারির আবেদন খারিজ করে দেন বিচারপতি মান্থা।

বৃহস্পতিবার শুনানি-পর্বে আদালতে শুভেন্দুর আইনজীবী জানান, তৃণমূলের মহিলা বাহিনী বাড়ি বাড়ি গিয়ে জনসংযোগের একটি কর্মসূচি নিয়েছে। তাঁরা শান্তিকুঞ্জে ঢুকে পড়তে পারেন। এ প্রসঙ্গে রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল সৌমেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‘শিশির অধিকারী তো এখনও তৃণমূলের সাংসদ। দলের কোনও কর্মসূচি নিয়ে কেউ কি তাঁর বাড়িতে যেতে পারেন না?’’ জবাবে বিচারপতি মান্থা জানান, সে ক্ষেত্রে শান্তিকুঞ্জে প্রবেশের জন্য শিশিরের অনুমতি প্রয়োজন। এই নির্দেশ মানা হয়েছে কি না স্থানীয় থানা এবং জেলার পুলিশ সুপারকে আগামী মঙ্গলবার পরবর্তী শুনানির দিন আদালতে রিপোর্ট দিয়ে জানাতে হবে বলেও নির্দেশ দেন বিচারপতি।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.