Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

সাসপেন্ড শিক্ষক, বকেয়া মেটাতে নির্দেশ

শিক্ষককে সাসপেন্ড করার পরে নির্দারিত সময়ের মধ্যে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের কাছ থেকে অনুমোদন নেওয়া হয়নি। তাই মালদহের ভাটোল জুনিয়র স্কুলের অবসরপ্রাপ্

নিজস্ব সংবাদদাতা
২৭ জানুয়ারি ২০১৯ ০০:০২
Save
Something isn't right! Please refresh.
—ফাইল চিত্র।

—ফাইল চিত্র।

Popup Close

শিক্ষককে সাসপেন্ড করার পরে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের কাছ থেকে অনুমোদন নেওয়া হয়নি। তাই মালদহের ভাটোল জুনিয়র স্কুলের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক তারকনাথ সিংহের বকেয়া সব বেতন মিটিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট।

ওই শিক্ষকের আইনজীবী এক্রামুল বারি শনিবার জানান, ১৯৭৪ সাল থেকে তাঁর মক্কেল ওই স্কুলের শিক্ষক। ২০০৫ সালের ২৯ জানুয়ারি তাঁকে অবৈধ ভাবে সাসপেন্ড করা হয়। নিয়ম অনুযায়ী সাসপেন্ড করার ৯০ দিনের মধ্যে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের কাছ থেকে তার বৈধতার অনুমোদন নিতে হয়। কিন্তু এ ক্ষেত্রে স্কুল সেই শংসাপত্র পায়নি। এ দিকে, তারকবাবু স্কুলে ঢুকতে চাইলে তাঁকে বাধা দেওয়া হয়। ২০০৮ সালের ৩০ জুন তিনি অবসর নেন। কিন্তু মধ্যবর্তী সময়ের বেতন তো বটেই, অবসরকালীন সুবিধাও পাননি তিনি।

এই পরিস্থিতিতে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন তারকবাবু। স্কুল পরিচালন কমিটি আদালতে জানায়, তাঁর বিরুদ্ধে সাসপেনশন বলবৎ রয়েছে। বিভাগীয় তদন্ত চলছে। তাই তাঁকে বকেয়া দেওয়া যাবে না। হাইকোর্ট সংশ্লিষ্ট জেলা স্কুল পরিদর্শকে বিষয়টি খতিয়ে দেখে সিদ্ধান্ত নিতে নির্দেশ দেয়। জেলা স্কুল পরিদর্শক আদালতে জানান, ওই শিক্ষক স্কুলে যাননি বলে তাঁর বকেয়া পাওনা মেটানো যাবে না। পরিদর্শকের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্ট‌ে পুনরায় আবেদন জানান ওই প্রধান শিক্ষক। সম্প্রতি হাইকোর্টের বিচারপতি দেবাংশু বসাক নির্দেশ দিয়েছেন, সাসপেনশনের দিন থেকে অবসরের দিন পর্যন্ত তারকবাবুর সব বকেয়া মেটাতে হবে।

Advertisement


Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement