Advertisement
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩
Coromondel Express Accident

করমণ্ডলকাণ্ডে ক্ষতিপূরণ ‘নির্মাণ শ্রমিক কল্যাণ তহবিল’ থেকে! রাজ্যকে সতর্ক করে কেন্দ্রের চিঠি

রাজেন্দ্র তাঁর চিঠির গোড়াতেই লিখেছেন, ‘বিভিন্ন সাংবাদমাধ্যমের প্রকাশিত রিপোর্ট বলছে, নির্মাণ শ্রমিকদের জন্য বরাদ্দ করা তহবিলের জন্য কেন্দ্রের পাঠানো টাকা অন্য খাতে ব্যয় করেছে রাজ্য।

রাজ্যকে পাঠানো কেন্দ্রের চিঠি (বাঁ দিকে), বালেশ্বরে সেই দু্র্ঘটনা (ডান দিকে)।

রাজ্যকে পাঠানো কেন্দ্রের চিঠি (বাঁ দিকে), বালেশ্বরে সেই দু্র্ঘটনা (ডান দিকে)। — নিজস্ব চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৮ জুন ২০২৩ ০০:০৯
Share: Save:

বুধবার দুপুরে নেতাজি ইন্ডোরে বালেশ্বরের ট্রেন দুর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলির হাতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আর্থিক সাহায্য তুলে দেওয়ার পরেই অভিযোগ তুলেছিলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। রাতের মধ্যেই কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে চিঠি পাঠিয়ে কার্যত সেই অভিযোগ সম্পর্কেই ‘সতর্কবার্তা দেওয়া হল রাজ্যকে।

নরেন্দ্র মোদী সরকারের শ্রম মন্ত্রকের আন্ডার সেক্রেটারি রাজেন্দ্র কুমার সিংহ রাজ্যের শ্রম দফতরের দায়িত্বপ্রাপ্ত অতিরিক্ত মুখ্য সচিবের কাছে চিঠি পাঠিয়ে বলেছেন, নির্মাণ শ্রমিকদের কল্যাণে পাঠানো কেন্দ্রীয় অর্থসাহায্য যাতে অন্য খাতে ব্যয় করা না হয়, তা নিশ্চিত করতে হবে।

সেই সঙ্গে রাজেন্দ্র তাঁর চিঠির গোড়াতেই লিখেছেন, ‘বিভিন্ন সাংবাদমাধ্যমের প্রকাশিত রিপোর্ট বলছে, নির্মাণ শ্রমিকদের জন্য বরাদ্দ করা তহবিলের জন্য কেন্দ্রের পাঠানো টাকা অন্য খাতে ব্যয় করেছে রাজ্য। করমণ্ডল এক্সপ্রেস দুর্ঘটনার ক্ষতিগ্রস্তদের আর্থিক সাহায্য দিতে তা ব্যয় করা হয়েছে।’

বস্তুত শুভেন্দু অধিকারী টুইটারে অভিযোগ করেছিলেন, বালেশ্বরের রেল দুর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের সাহায্যদানের জন্য রাজ্য সরকার নির্মাণ শ্রমিকদের কল্যাণে পাঠানো তহবিল খরচ করেছে। সরাসরি এমন অভিযোগ না তুললেও শীর্ষ আদালতের ১৯৯৬ সালের একটি রায়ের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে মোদী সরকারের আন্ডার সেক্রেটারি রাজ্যকে সতর্ক করেছেন। লিখেছেন, ‘‘মহামান্য সুপ্রিম কোর্টের রায় অনুযায়ী, ওই তহবিলের জন্য কেন্দ্রীয় বরাদ্দ সুনির্দিষ্ট ভাবে সেই খাতেই ব্যয় করতে হবে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE