×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৪ জুলাই ২০২১ ই-পেপার

C.I.D: শুভেন্দু-রক্ষীর মৃত্যুতে তলব পুলিশকর্মীদের

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২২ জুলাই ২০২১ ০৮:১৭
ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

ঘটনাটি যখন ঘটে, কাঁথির পুলিশ ব্যারাকে সেই সময় একাধিক পুলিশকর্মীর উপস্থিত থাকার কথা ছিল। কিন্তু শুভেন্দু অধিকারীর প্রাক্তন নিরাপত্তারক্ষী শুভব্রত চক্রবর্তীর অপমৃত্যুর দিন ঠিক কী ঘটেছিল, এখনও পর্যন্ত কোনও পুলিশকর্মী সেটা তদন্তকারীদের জানাতে পারেননি। ওই রহস্যমৃত্যুর তদন্তে নেমে খানিকটা দিশাহারা সিআইডি। ঘটনার দিন ওই ব্যারাকে হাজির থাকা আট জন পুলিশকর্মীকে আজ, বৃহস্পতিবার ভবানী ভবনে তলব করা হয়েছে। একই সঙ্গে ফের তলব করা হয়েছে তৎকালীন কাঁথি থানার আইসি সুনয়ন বসুকে। গত মঙ্গলবার ওই অফিসারকে প্রায় সাত ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন তদন্তকারীরা।

২০১৮ সালের ১৩ অক্টোবর কাঁথির পুলিশ ব্যারাকে গুলিবিদ্ধ হন শুভব্রত। কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানোর পরের দিন তাঁর মৃত্যু হয়। সিআইডি সূত্রের খবর, ওই ঘটনা নিয়ে তখন কোনও তদন্তই হয়নি। এমনকি আত্মহত্যার ঘটনা বলা হলেও তার কারণ খতিয়ে দেখা হয়নি বলে অভিযোগ।

এক তদন্তকারী অফিসার জানান, কার নির্দেশে বা কেন সেই সময় ওই অস্বাভাবিক মৃত্যু নিয়ে তদন্ত হয়নি, তা জানার চেষ্টা হচ্ছে। কিসের ভিত্তিতে শুভব্রতের অস্বাভাবিক মৃত্যুকে আত্মহত্যা বলা হয়েছিল, জানার চেষ্টা করা হবে তা-ও।

Advertisement

গোয়েন্দারা জানান, ঘটনার সময় ওই ব্যারাকে একাধিক পুলিশকর্মীর হাজির থাকার কথা ছিল। তা সত্ত্বেও কেউ ঘটনার কথা কিছু জানতেন না বলে জিজ্ঞাসাবাদের মুখে জানান কনস্টেবলেরা। ওই পুলিশকর্মীদের বয়ানে অনেক ফাঁক রয়েছে বলেও সিআইডি-র দাবি। তদন্তকারীরা জানান, ময়না-তদন্তেও বলা হয়েছিল, শুভব্রত আত্মহত্যা করেছেন। কিসের ভিত্তিতে চিকিৎসকেরা এমন কথা বলেছিলেন, তা জানার জন্য ময়না-তদন্তের সঙ্গে যুক্ত সকলের সঙ্গে কথা বলা হবে বলে তদন্তকারীরা জানিয়েছেন।

‘‘প্রায় আড়াই বছরের পুরনো ঘটনা। রহস্যের জট খুলতে সময় লাগছে,’’ বলেন এক গোয়েন্দাকর্তা।

Advertisement