×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৫ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

‘ভারতী-ঘনিষ্ঠ’ ওসি-র কাছেও টাকা, সোনা

নিজস্ব সংবাদদাতা
মেদিনীপুর ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ০৩:৫৫

ব্যবসায়ীর টাকা হাতানোর মামলায় ধৃত খড়্গপুর লোকাল থানার প্রাক্তন ওসি রাজশেখর পাইনকে জেরা করে নগদ টাকা, সোনার গয়না ও বেশ কিছু নথিপত্র উদ্ধার হয়েছে বলে দাবি করল সিআইডি। এই মামলাতেই প্রধান অভিযুক্ত পশ্চিম মেদিনীপুরের প্রাক্তন পুলিশ সুপার ভারতী ঘোষ। আর রাজশেখর তাঁর ‘ঘনিষ্ঠ’ বলেই পরিচিত।

শুক্রবার রাজশেখরকে ফের মেদিনীপুর সিজেএম আদালতে হাজির তোলে সিআইডি। তাঁকে তিন দিন সিআইডি হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সিআইডি জানায়, রাজশেখরের একাধিক ব্যাঙ্কের পাসবুক, ক্যাশবন্ড, ল্যাপটপ, পেনড্রাইভ বাজেয়াপ্ত হয়েছে। সরকার পক্ষের আইনজীবী সৈয়দ নাজিম হাবিব বলেন, ‘‘বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্র উদ্ধার করেছে সিআইডি।’’

এ দিন আদালতে গোপন জবানবন্দি দেন মেদিনীপুর কোতোয়ালি থানার প্রাক্তন আইসি সুশান্ত রাজবংশী, আর এক পুলিশ কর্মী সঞ্জয় কুণ্ডু এবং সফিক আলি নামে এক ব্যবসায়ী। সুশান্তও ভারতী ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত ছিলেন।

Advertisement

আরও পড়ুন: ডোকলাম হাতে চায় চিন, অস্বস্তি ভারতের

যে ঘটনার ভিত্তিতে এই মামলা, সেটি ২০১৬ সালের ২৪ সেপ্টেম্বরের। ওই দিন খড়্গপুরের সাদাতপুরে তাঁর গাড়ি থেকে ৪৫ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়া হয় বলে অভিযোগ উত্তর ২৪ পরগনার স্বরূপনগরের ব্যবসায়ী ইউনুস আলি মণ্ডলের।

নেতাজিনগর থানায় ভারতী ও তাঁর স্বামী এমএভি রাজুর বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন সৈকত গুপ্ত নামে এক ব্যক্তি। সৈকতের অভিযোগ, তাঁর ফ্ল্যাটের চাবি হাতিয়ে রাজু ও ভারতীর রক্ষী সুজিত মণ্ডল আলমারিতে টাকা রেখে তালা দিয়ে দেন।



Tags:
Bharati Ghosh Corruption Police Officer OCরাজশেখর পাইন CIDসিআইডিভারতী ঘোষ

Advertisement