×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৫ মার্চ ২০২১ ই-পেপার

প্রশাসনের হাতে কিছু বেসরকারি হাসপাতাল

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ৩১ মার্চ ২০২০ ০৫:৪১
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। —ছবি পিটিআই।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। —ছবি পিটিআই।

করোনা মোকাবিলায় জেলা স্তরে পরিকাঠামো তৈরির ক্ষেত্রে এ বার সাময়িক ভাবে বেসরকারি হাসপাতালগুলির দায়িত্ব প্রশাসনকে নিতে বললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার রাজ্য ও জেলা প্রশাসনের আধিকারিকদের সঙ্গে ভিডিয়ো-বৈঠকে এ কথা বলেন তিনি। ওই সব হাসপাতালে করোনা-আক্রান্তদের আইসোলেশন ওয়ার্ড তৈরি করা হবে। তবে বাছাই হাসপাতালগুলি যাতে ঘন জনবসতি এলাকা থেকে দূরে হয়, সেটাও খেয়াল রাখতে বলেছেন তিনি।

কোন কোন হাসপাতাল চিহ্নিত করা হয়েছে, বৈঠকে জেলাশাসক ও জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকদের তা জানাতে বলেন মুখ্যমন্ত্রী। বেসরকারি হাসপাতাল ছাড়াও কিছু জেলায় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের হাসপাতালও নেওয়া হয়েছে। বেসরকারি হাসপাতালে যে-পরিকাঠামো দরকার, তার জোগানও নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে। পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান এবং বীরভূমের জন্য দুর্গাপুরের প্রায় এক ডজন বেসরকারি হাসপাতালকে চিহ্নিত করা হয়েছে। ওই ৫ জেলার নোডাল আধিকারিক হিসেবে নিয়োগ করা হয়েছে আইএএস অফিসার রাজেশ সিংহকে। করোনা পরিস্থিতিতে সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালের তথ্য-ভাঁড়ার তৈরি করতেও বলা হয়েছে।

মেডিকা হাসপাতালের কর্ণধার অলোক রায় জানান, তাঁদের বর্ধমানের শাখাকে বেছে নিয়েছে সরকার। তিনি বলেন, ‘‘সব পরিকাঠামো-সহ হাসপাতাল সরকারের হাতে তুলে দেব।’’ তবে বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালের কর্তৃপক্ষ জানান, এই সাময়িক দায়িত্ব বদলের ক্ষেত্রে আর্থিক লেনদেনের বিষয়টি এখনও স্থির হয়নি। লিভার ফাউন্ডেশনের তরফে চিকিৎসক অভিজিৎ চৌধুরী জানান, এই পরিস্থিতিতে তাঁরা সরকারের সিদ্ধান্ত মেনে নেবেন।

Advertisement
Advertisement